জনপ্রিয় সংবাদ

x

সুষ্ঠু ভোট হলে আমাদের পুরো প্যানেল জিতত : ফেসবুকে নুর

মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০১৯ | ৬:৩০ অপরাহ্ণ | 62 বার

সুষ্ঠু ভোট হলে আমাদের পুরো প্যানেল জিতত : ফেসবুকে নুর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন সুষ্ঠু হলে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের পুরো প্যানেল জয়ী হতো বলে মন্তব্য করেছে নবনির্বাচিত সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ করে তিনি বলেন, সুষ্ঠু ভোট হলে আমাদের পুরো প্যানেল জিততো। তার উদাহরণ সুফিয়া কামাল, শামসুন্নাহার ও কুয়েত মৈত্রী হল।

প্রসঙ্গত ২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনে ভিপি ও সমাজসেবা সম্পাদক পদ ছাড়া সব পদে ছাত্রলীগের প্যানেল নিরঙ্কুশ জয় পায়। সর্বোচ্চ পদে চমক দেখিয়েছেন নুরুল হক নুর। চাকরিতে কোটাব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনের প্লাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্যানেল থেকে নির্বাচন করা এ নেতা জয়ী হয়েছেন বিপুল ভোটে।

ডাকসু নির্বাচনে নুরের প্রাপ্ত ভোট ছিল ১১ হাজার ৬২টি । তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হেভিওয়েট প্রার্থী ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পেয়েছেন ৯ হাজার ১২৯ ভোট। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে ১৯৩৩ ভোট বেশি পেয়ে জয়ী হন নুর। শিক্ষার্থীরা বলছেন ভিপি পদে নীরব ভোট বিপ্লব হয়েছে।

নির্বাচনে জয়ের খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকাল ৯টা ৯ মিনিটে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন নুরুল হক নুর। এতে তিনি লিখেন, ‘রাতে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করানো হয়েছে। বাইরের শিক্ষার্থীরা যেন ভোট দিতে না পারে সেজন্য গণরুমের শিক্ষার্থী এবং নিজেদের লেজুরবৃত্তিক অপরাজনীতি করা নেতা-কর্মীদের দিয়ে বিশাল লাইন করানো হয়েছে। এত কারচুপি, অনিয়ম, রাতভর ইঞ্জিনিয়ারিং করেও নুর এবং আখতারকে হারাতে পারেনি।সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমাদের পুরো প্যানেল জিতত। তার অন্যতম উদাহরণ সুফিয়া কামাল, শামসুন্নাহার ও কুয়েত মৈত্রী হল।’

আগের দিন সোমবার ডাকসু নির্বাচনে ভোট কারচুপির প্রতিবাদ করতে গিয়ে রোকেয়া হলে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন নুরুল হক নুর। সেখান থেকে তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। হাসপাতাল বিছানায় শুয়েই ভিপি পদে জয়ের সংবাদ পান নুর।

হাসপাতাল থেকে আজ বেলা ২টার দিকে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেন ডাকসুর নবনির্বাচিত এই ভিপি। টিএসসিতে যাওয়ামাত্রই তার ওপর হামলা চালান ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে হামলার শিকার হন ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রদলের সমাজসেবা সম্পাদক পদে নির্বাচন করা তৌহিদুর রহমান। লাঠিসোটার হামলায় তৌহিদের মাথা ফেটে যায়।

টিএসসিতে সকাল থেকেই অবস্থান করছিলেন ডাকসু ভোট বর্জন করে পুনঃতফসিল দাবিতে আন্দোলনকারীরা। আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করতে গিয়েছিলেন ডাকসু নির্বাচনে নবনির্বাচিত ভিপি নুর।

নুর ব্রিফ করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় একদল যুবক লাঠিসোটা নিয়ে টিএসসিতে ঢুকে নুরের দিকে তেড়ে যান। নুরকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন ছাত্রদল, বামজোটসহ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতাকর্মীরা।

এ সময় হামলাকারীদের লাঠির আঘাতে আহত হন ছাত্রদল নেতা তৌহিদুর রহমান।

পরে আন্দোলনকারীরা মিছিল নিয়ে ভিসি কার্যালয়ের দিকে যান। মিছিলে প্রহসনের ডাকসু নির্বাচন বাতিল করে পুনঃতফসিল ঘোষণার দাবি জানান তারা।

মিছিলে অংশ নেন ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর, বামজোটের নেতা লিটন নন্দী প্রমুখ। ছাত্রদল নেতারাও মিছিলে রয়েছেন।

মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তৃতা করেন নুর। তিনি বলেন, ভিপি ও সমাজসেবা পদ ছাড়া ডাকসুর সব পদে পুনর্নির্বাচন দাবি করছি।

Development by: webnewsdesign.com