জনপ্রিয় সংবাদ

x

সাইমুন কনকের শোক সভা অনুষ্ঠিত, বাংলাদেশের উন্নত, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক, দুর্নীতিমুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সুশাসনের ভবিষ্যত তৈরি করার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে : হাসানুল হক ইনু

শনিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ১:১৬ পূর্বাহ্ণ | 50 বার

সাইমুন কনকের শোক সভা অনুষ্ঠিত, বাংলাদেশের উন্নত, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক, দুর্নীতিমুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সুশাসনের ভবিষ্যত তৈরি করার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে : হাসানুল হক ইনু
সাইমুন কনকের শোক সভা অনুষ্ঠিত, বাংলাদেশের উন্নত, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক, দুর্নীতিমুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সুশাসনের ভবিষ্যত তৈরি করার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে : হাসানুল হক ইনু

৭ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৪ টায় শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে গত ২৫ জানুয়ারি ভারতের পশ্চিবঙ্গের ডুয়ার্সে জঙ্গল সাফারী করতে গিয়ে বন্য হাতির আক্রমণে নিহত জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক ও জাসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা নুর আলম জিকুর জ্যৈষ্ঠ পুত্র সাইমুন কনকের শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা মহানগর জাসদের সমন্বয়ক মীর হোসাইন আখতারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ শোক সভায় বক্তব্য রাখেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি, কার্যকরী সভাপতি এড. রবিউল আলম, সাইমুন কনকের স্ত্রী মাকসুদা সাইমুন মালা, সাইমুন কনকের পুত্র সৈয়দ মুহিদ আরিয়ান শান্ত, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল আকতার, নাদের চৌধুরী, সহ-সভাপতি শফি উদ্দিন মোল্লা, শহীদুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রোকনুজ্জামান রোকন, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নইমুল আহসান জুয়েল, শওকত রায়হান, জাতীয় শ্রমক জোট-বাংলাদেশ এর সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য প্রযুক্ত বিষয়ক সম্পাদক কাজী সালমা সুলতানা, জাতীয় যুব জোটের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন, ঢাকা মহানগর উত্তর জাসদের সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি আহসান হাবীব শামীম প্রমূখ।

হাসানুল হক ইনু তার ভাষণে প্রয়াত নেতা সৈয়দ সাইমুন কনকের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, প্রয়াত সাইমুন কনক তার জীবন-যাপন ও জীবনাচারে তার রাজনৈতিক নীতি-আদর্শের প্রতিফলন দেখিয়েছেন। দলের দ্বিতীয় প্রজন্মের একজন নেতা হিসাবে দলের প্রথম প্রজন্মের প্রতিষ্ঠাতা নেতাদের প্রদর্শিত পথে দলকে এগিয়ে নেয়ার জন্য নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়েছেন।

 

 

তিনি বলেন, ২০০১ সাল পরবর্তীতে তৎকালীন ক্ষমতাসীন বিএনপি-জামাত জোট সরকার বাংলাদেশকে পাকিস্তানপন্থায় পরিচালিত করার সর্বাত্মক অপচেষ্টা চালিয়েছিল। বিএনপি-জামাতের পাকিস্তানপন্থার রাজনীতির বিপরীতে জাসদ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল শক্তির বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলে পাকিস্তানপন্থাকে পরাজিত করার রাজনৈতিক অবস্থান গ্রহণ করে।

জাসদের এ রাজনৈতিক অবস্থান ও উদ্যোগের ফলেই ১৪ দল ও মহাজোট গঠিত হয়। ২০০৮ সাল ও ২০১৪ সালে মহাজোট ক্ষমতায় এসে সংবিধান-রাষ্ট্র-রাজনীতি থেকে পাকিস্তানপন্থার রাজনৈতিক আবর্জনা পরিস্কার করা শুরু করে।

২০১৮ সালের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে পাকিস্তানপন্থার রাজনীতি ব্যাপকভাবে পরাজিত হয়। এখন বাংলাদেশ এক নতুন উন্নত, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক, দুর্নীতিমুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সুশাসনের ভবিষ্যত রচনার পথে আছে। দেশের সকল গণতান্ত্রিক-প্রগতিশীল শক্তিকে বাংলাদেশের উন্নত, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক, দুর্নীতিমুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সুশাসনের ভবিষ্যত তৈরি করার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী গোপাল চাঁদ বারুণী মেলা শুরু : লাখো ভক্তের পদচারনায় মুখরিত মেলা

Development by: webnewsdesign.com