সর্বশেষ সংবাদ

x



নৌকার ত্যাগী কান্ডারী আব্দুল হক

শাহপরীরদ্বীপ ইউনিয়নের সাবেক যুবলীগের ত্যাগী নেতার মানবেতর জীবনযাপন

বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০ | ১:৪৪ অপরাহ্ণ | 133 বার

শাহপরীরদ্বীপ ইউনিয়নের সাবেক যুবলীগের ত্যাগী নেতার মানবেতর জীবনযাপন
নৌকার ত্যাগী কান্ডারী আব্দুল হক

টেকনাফ থেকে ফিরে, টেকনাফ প্রতিনিধি ও মাহমুদ রাজু :

বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে যার রাজনীতি শুরু । টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপের এক সময়ের জনপ্রিয় যুবলীগ নেতা আব্দুল হক । শাহপরীরদ্বীপ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। এলাকার সবাই তাকে হক সাহেব নামে চেনেন।



শাহপরীরদ্বীপ ইউনিয়ন যুবলীগের এই সাবেক সভাপতি, এলাকার ত্যাগী নেতা দল থেকে পদ হারিয়ে আজ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপের যুবলীগের কান্ডারী সময়ের ত‌্যাগী নেতা আব্দুল হকের কথাই বলছি, আমাদের প্রতিনিধির সাথে কথা হয় শাহপরীরদ্বীপ ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি, এলাকার সকলের কাছে যিনি হক সাহেব নামে পরিচিত, দলের দুঃসমেয় পাশে থাকা আওয়ামী যুবলীগের নৌকার এই ত্যাগী কান্ডারী বর্তমানে অবদমনের জীবন যাপন করছেন।

সম্প্রতি তার সাথে কথা হয় ঢাকানিউজএক্সপ্রেসডটকম‘র এই প্রতিনিধির সাথে। আমাদের পাঠকের জন্য সাক্ষাৎকারটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

আপনি কর্মজীবনে কি করতেনঃ

কর্মজীবনে আমি ব্যবসায়ি ছিল, কিন্তু কিছু কুচক্রীমহলের কারণে আমার ব‌্যবসায় কোটি কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ।

আপনার পরিবারের সদস‌্য কে কে আছেঃ

পরিবারে আমার স্ত্রী ও ছেলেমেয়ে সহ ৬ জন আছে। আমার বাবা সততার সাথেই ব্যবসা পরিচালনা করতেন,তার মাছ ধরার ২৪টি বোট ছিল, কিন্তু আব্বা মারা গেছেন দীর্ঘ ১৫ বছর আগে। আব্বা মারা যাওয়ার পর আমি ১৯৯৫ সালে কর্মজীবনে আসি। শুরুতে বেকার ছিলাম। ব্যবসায়ে আমার কোটি কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিরোধীদলের নানা রকম হয়রানী ও চক্রান্তে পড়ে আমি জীবন যুদ্ধে নেমে গিয়েছিলাম। তাতে এক পর্যায়ে আমি অসহায় হয়ে পড়েছি।

আপনি কত সালে রাজনীতি শুরু করেনঃ

আমি ২০০১ সাল থেকে রাজনীতি শুরু করি। রাজনীতিতে আশার পর পরই আমার বিরুদ্ধে বিরোধীদল ও কুচক্রীমহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা ৪টি মামলা করেন, সে মামলা ২০০৪ সালে খালাস পায়।

এছাড়াও ১৯৯১ সালে আমি ৮/৯ টি অবৈধ মিথ্যা মামলার আসামী হই । আইনের সহয়তায় আর নিজের সততায় পরে ১৯৯৪ সালে গিয়ে এ মামলাগুলো শেষ হয়ে যায়, এরপর ১৯৯৫ সালে কর্মজীবনে আসি, ব‌্যবসায়ি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চেষ্টা করি।

১৯৯৫ থেকে ২০০৭ একজন সফল ব‌্যবসায়ি হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার পর সেই ফিরে যাওয়া ১৯৯১ বিরোধীদল ও কুচক্রীমহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলেন ২০০৭ সালে যৌথবাহিনীর কাছে। গ্রেফতার হই আমি। ৬ মাস কারাভোগের পর মহামান্য হাইকোর্ট থেকে আমি জামিন পেয়ে ছাড়াপাই। এ মামলাতেও অব্যাহতি পেয়ে যাই ।

আপনি রাজনীতিতে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে কিভাবে ষড়যন্ত্রের শিকার হনঃ

আমি এলাকায় সুনাম ও সততার সহিত দায়িত্ব পালন করি একটানা ১২ বছর, ২০০১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত। আমার বিপক্ষে অনেকেই বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্র করে আমার অজান্তে আমাকে কমিটি থেকে বাদ দিয়ে দেয়। কারণ আমার কারণে অবৈধ কাজ করতে না পারায় আমাকে নিয়ে এত ষড়যন্ত্র। আমি শাহপরীরদ্বীপ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি পদে ছিলাম। যার বিভিন্ন পেপার ডকুমেন্টস আমার কাছে আছে। আমি দলের সকল কর্মসূচী গুরুত্ব দিয়ে পালন করতাম, নিজের খরচে মিটিং মিছিল শেষ করার পাশাপাশি সকলকে খরচ দিতাম?

আপনি দলের জন্য অনেক কিছু করার পরও কি কারণে রাজনীতি থেকে সরে গেলেন বা গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেননাঃ

আমি রাজনীতি শুরু করেছিলাম রাষ্ট্রনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারন করে। আমি এলাকার একজন ত্যাগী আওয়ামীলীগ নেতা। আমি আওয়ামী যুবলীগ করেছি, আমার যুব সমাজ যেন মাদকের ছোবলে ধংস হয়ে না পরে সেজন‌্য আমি সবসময় ইয়াবা, মানবপাচার ও অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছি, এলাকার যুবকদের নিয়েই আমার স্বপ্ন ছিল, আওয়ামী যুবলীগ করতাম বিধায় আমাকে বাদ দিয়ে শাহপরীরদ্বীপে নতুন কমিটি ঘোষণা দেওয়া হয় ১লা নভেম্বর ২০১৩ ইং সালে। শাহপরীরদ্বীপে নবগঠিত যুবলীগের কমিটি প্রত্যাখ্যান ও যুবলীগ নেতাদের পক্ষে বিবৃতি দেওয়ার উপরে কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক দৈনন্দিন পেপারে একটি বিশাল নিউজ প্রকাশিত হয়। পরে ৩রা নভেম্বর ২০১৩ ইং সালে আমার নিজের মতামতের উপরে আরও একটা নিউজ কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক দৈনন্দিন পেপারে প্রকাশিত হয়। শিরোনাম হয় “শাহপরীরদ্বীপ যুবলীগ কমিটির দীর্ঘ সময়ের সফল সভাপতি আবদুল হকের কিছু কথা” ।

দলের জন্য আপনি কি কি করেছেনঃ

আমি দলের সকল কর্মসূচী আন্তরিকতার সহিত পালন করতাম। আমি ২০০১ সাল থেকে দায়িত্ব নিয়ে ২০০৩ সাল পর্যন্ত অন্য কেউ না থাকায় আমি নিজের খরচে মিটিং মিছিল ও দলের সকল খরচ বহন করেই দল চালাতাম। যার অনেক প্রমাণ দলের লোকজনদের সাথে কথা বললেই জানতে পারবেন।

এছাড়াও ২০০২ সালে আমি বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, ঢাকা কার্যালয় কর্তৃক তৎকালীন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মির্জা আজম এমপির কাছ থেকে সদস্যপদ নবায়নের কার্ড পাই । যা আমার কাছে প্রমাণস্বরূপ সংরক্ষিত আছে। আমার কাছে যার ডকুমেন্টসও সংরক্ষণে আছে।

বর্তমানে আপনার কি অবস্থাঃ

একসময় দলের জন্য অনেক কিছু করেও আমি এখন অনেক কস্টে আছি। মানবেতর জীবনযাপন করছি। আমি সীমাহীন অসুস্থের মধ্যে আছি। কখন যে মরে যাই তার ঠিকঠিকানা নেই। আর ডাক্তার বলেছে আমার হার্টের বড় সমস্যা। আমার ভাল চিকিৎসার প্রয়োজন।

আপনি দলীয় লোক হয়েও এখন দল থেকে কোন সুবিধা পাচ্ছেন কিনাঃ

না কোন সুবিধা পাচ্ছিনা। তবে সুবিধা পাওয়াতো দূরের কথা উল্টো আমার আরও কোটি কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যা আপনারা তদন্ত করলে পারেন।

এই সময়ে আপনার মূল চাওয়াটা কিঃ

আমি জেলেদের জেলে কার্ড ও সুবিধা দেওয়া, মাদক নির্মূলের দাবী, ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করার দাবী নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর সুদৃষ্টি কামনা করে আবেদন জানাচ্ছি।

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, আমি সারাজীবন ধরে ষড়যন্ত্রের শিকার। আমি আজীবন অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে যাব। এছাড়া আমার কাছে কোন দল ভাগ নয়, আমার কাছে সব দলই সমান। আমি সব দলের নেতা কর্মীদের সাথে নিয়েই কাজ করতে চাই । মাদক নির্মূলে আমি ও আমার, নেতা কর্মীরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে অনুযায়ী কাজ করে যাচ্ছি। এ ব্যাপারে আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ পুরো প্রশাসনের জরুরী সহযোগিতা কামনা করছি।

পাশাপাশি দেশ ও দশের সেবা করা হল আমার মূল ও প্রধান কাজ।

আপনি ইলেকট্রনিকস ও প্রিন্ট মিডিয়ার মাধ্যমে কার কার হস্তক্ষেপ কামনা করেনঃ

আমি ইলেকট্রনিকস মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া ও অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত সকল ভাইদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদকের জরুরী হস্তক্ষেপ ও জরুরী সহযোগিতা কামনা করছি।

আমি মিডিয়ার মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সাথে দেখা করতে ইচ্ছুক? যদি আল্লাহ সুযোগ দেয় ও বাচিয়ে রাখেন আল্লাহর রহমতে যদি দেখা হয়েই যায় তাহলে আমার মনের সকল আশাই পূর্ণ হবে ইনশাহআল্লাহ।

আমাদের পাঠকদের উদ‌্যেশে কিছু বলার আছে,

আমি সকলের কাছে আমার সুস্থতা কামনা করছি, আপনারা আমার পাশে ছিলেন আগামীতেও থাকবেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে রাজনীতির শুরু করেছি, ইনশাআল্লাহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শ নিয়েই রাজনীতিতে নিজেকে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সচল রাখতে চাই।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জের বথপালীগাঁও নিজস্ব সম্পত্তির উপর দুসক্রীতি কারীদের হামলা

Development by: webnewsdesign.com