জনপ্রিয় সংবাদ

x



যেসব তারকারা শখের বশে বিমান কেনেন!

বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০১৬ | ২:১৪ পূর্বাহ্ণ | 989 বার

যেসব তারকারা শখের বশে বিমান কেনেন!
আরনল্ড সোয়ার্জনেগার | জ্যাকি চ্যান | টম ক্রুজ | জিম ক্যারি

তারকাদের সংগ্রহে ব্যক্তিগত বিমান। কেউ পেয়েছেন উপহার। কেউ বা কিনেছেন নিজেই। জিম ক্যারি থেকে জন ট্রাভোল্টা, জ্যাকি চ্যান থেকে টম ক্রুজ, হলিউডের নামী তারকাদের সফর ব্যক্তিগত বিমানেই। তবে এ তালিকায় নেই কোন বলিউড তারকা। জেনে নিন সেই সব তারকাদের কথা:

আরনল্ড সোয়ার্জনেগার:
ইচ্ছেমতো বিমান বদলান আরনল্ড সোয়ার্জনেগার। পছন্দ না হলে বিক্রি করে দেন। আবার নতুন একটা কিনে ফেলেন। মোটরসাইকেল বা চারচাকা নয়, বিমানে চড়েই যাতায়াত করেন তিনি। ২০০৮ সালে শখ করেই একটি গাল্ফস্ট্রিম ফোর বিমান কেনেন সোয়ার্জনেগার। কিন্তু পার্ক করবেন কোথায়? এ নিয়ে একাধিকবার ঝামেলায় পড়তে হয় তাকে। বিপদে পড়ে শেষ পর্যন্ত বিক্রিও করে দেন সেই বিমান। যদিও কয়েক বছর পর ফের কিনে ফেলেন একটি বিমান। তবে সেটি কোথায় পার্ক করাচ্ছেন, সে খবর গোপনই রেখেছেন আরনল্ড।



জ্যাকি চ্যান:
এশিয়া মহাদেশে তার জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে জ্যাকি চ্যানকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর করেন ব্রাজিলের বিমান সংস্থা এমব্রয়ার। ফলও মেলে হাতেনাতে। চীনের অভিজাত মহলে সংস্থার তৈরি বিমানের চাহিদা বাড়ে ঝড়ের গতিতে। লাফ দিয়ে বাড়ে সংস্থার লাভের অংকও। তাই উপহারস্বরূপ এবছর জ্যাকিকে একটা বিমান উপহার দিয়েছে এমব্রয়ার। এই সংস্থার আরও একটি বিমান রয়েছে কুংফু মাস্টারের সংগ্রহে।

টম ক্রুজ:
টপ গান-এ অভিনয়ের সময় থেকেই টম ক্রুজের প্রাইভেট জেটের প্রতি আগ্রহ। শুটিং শেষে ফ্লাইং স্কুলে নাম লেখান তিনি। ১৯৯৪ সালে পাইলটের লাইসেন্স পান টম। তার কাছে রয়েছে একটি গাল্ফস্ট্রিম ফোর এসভি মডেলের বিমান।
বিশ্বের সবচেয়ে বিলাসবহুল বিমানগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। এই মডেলের দাম শুরু হয় ২৪১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা থেকে।

জিম ক্যারি:
হলিউড তারকাদের মধ্যে সবচেয়ে দামি বিমান রয়েছে জিম ক্যারির হ্যাঙারে। দ্য মাস্ক, ডাম্ব অ্যান্ড ডাম্বার-এর জমপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। বক্স অফিসে সাফল্যের সঙ্গে পাল্লা দিয়েই বেড়েছে তাঁর রোজগার। তাই বিমান কেনার সময় সমঝোতা করেননি জিম। গাল্ফস্ট্রিম মডেলের সর্বাধুনিক বিমানখানাই পকেটে পুরেছেন। এই বিমান কিনতে তাকে প্রায় ৩৯৫ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা খরচ করতে হয়েছে।

জন ট্রাভোল্টা:
প্লেন নিয়ে পাগলামির অন্ত নেই জন ট্রাভোল্টার। তার পাগলামি এমন পর্যায়ে যে, তিনি বাড়িতেই বানিয়ে ফেলেছেন একখানা রানওয়ে। জনের ফ্লোরিডার বাড়িতে রয়েছে হ্যাঙারসহ ব্যক্তিগত এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলিংয়ের ব্যবস্থা। মত্র ২২ বছর বয়সেই পাইলটের লাইসেন্স পেয়েছিলেন তিনি। ৩টি গাল্ফস্ট্রিম মডেলের বিমান ছাড়াও তার রয়েছে একটা বোয়িং ৭২৭ এবং ৭০৭-১৩৪বি বিমান।

হ্যারিসন ফোর্ড:
দক্ষ পাইলট হ্যারিসন ফোর্ড। তিনি শুধু শখের পাইলটই নন। একাধিকবার প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় তিনি বিপর্যয় মোকাবিলায় দফতরের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়েছেন। নিজে দুর্ঘটনাতেও পড়েছেন। ১৯৯৯ সালে হেলিকপ্টার নিয়ে উড়তে গিয়ে বিপদে পড়েছিলেন। সম্প্রতি তার সাধের ভিনটেজ মোনোপ্লেন ওড়াতে গিয়েও দুর্ঘটনা ঘটিয়েছেন। তাতেও দমেননি তিনি। সুস্থ হয়ে উঠতেই ফের তিনি আকাশে ডানা মেলেছেন। তার সঙ্গী ‘সেসেনা ৬৮০’।

250

Development by: webnewsdesign.com