জনপ্রিয় সংবাদ

x



দেশের জন্য চতুর্থ স্বর্ণ এনেদিল নারী ক্রিকেটাররা

মেয়ে ক্রিকেটারদের স্বর্ণ জয়

রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৭:৪১ অপরাহ্ণ | 35 বার

মেয়ে ক্রিকেটারদের স্বর্ণ জয়
স্বর্ণ জয়ের পর বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল

এসএ গেমসের অষ্টম দিনে এসে আবারও চার স্বর্ণের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ। এদিন আর্চারিতে তিনটি স্বর্ণের পর দেশের জন্য চতুর্থ স্বর্ণ জিতে এনেছেন নারী ক্রিকেটাররা। নেপালের পোখারায় শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনাল ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ২ রানের ব্যবধানে হারিয়ে দিনের চতুর্থ এবং সব মিলিয়ে এবারের টুর্নামেন্টে দেশের পক্ষে ১১তম স্বর্ণ এনে দিলেন সালমা-জাহানারারা।

পোখারার রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে রোববার (৮ ডিসেম্বর) ফাইনালে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে হতাশ করেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। নির্ধারিত ২০ ওভার খেলেও দলীয় রান ছোঁয়নি একশ, ৮ উইকেটে ৯১ রানে থামে বাংলাদেশের ইনিংস। সেই পুঁজিতেই অবশ্য ম্যাচ জয়ের জন্য যথেষ্ট প্রমাণ করেছেন বোলাররা। টান টান উত্তেজনা ছড়িয়ে ম্যাচ জিতিয়েছেন ২ রানে।



গ্রুপ পর্বে এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই জয় দিয়ে এসএ গেমস ক্রিকেটে শুভ সূচনা করেছিলেন নারী ক্রিকেটাররা। আর সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফাইনালে জয় ছিনিয়ে নিয়েই টুর্নামেন্ট থেকে স্বর্ণ জয় করে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। অবশ্য প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হেসে খেলে জয় পেলেও ফাইনাল হয়েছে ঠিক ফাইনালের মতোই।

স্বর্ণ জয়ের উল্লাসে মাততে বাংলাদেশ অপেক্ষা করতে হয়েছে ম্যাচের শেষ বল পর্যন্ত। বাংলাদেশের দেয়া ৯২ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করত নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় লঙ্কানরা। তবে উইকেটের এক প্রান্ত আগলে রাখেন লঙ্কান অধিনায়ক হার্শিতা মধবি। কিন্তু তার প্রতিরোধ ভেঙে ঠিকই জয় তুলে নেয় বাংলার বাঘিনীরা।

জাহানারা, খাদিজা, সালমা আর নাহিদার নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শুরুতেই কোণঠাসা হয়ে পড়ে শ্রীলঙ্কা। তবে মাধবি আর লহিনি অপ্সরার ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে লঙ্কানরা। এরপর অবশ্য মধবি দলীয় ৫৫ রানে ফিরে গেলে কিছুটা ব্যাকফুটে চলে যায় লঙ্কানরা। তবে দলকে জয়ের পথেই রাখেন অপ্সরা। একটা সময় তো ম্যাচ জয়ের পাল্লাটা ভারি ছিল লঙ্কানদের দিকেই। তবে শেষ দিকে বাংলাদেশের দারুণ বোলিংয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার ইনিংস থামে ৮৯ রানে।

বাংলাদেশের হয়ে নাহিদা আক্তার ৪ ওভারে ৯ রান দিয়ে নেন দু’টি উইকেট। আর বাকি তিন বোলার জাহানারা আলম ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে তুলে নেন এক উইকেট। সালমা খাতুন ৪ ওভারে ১৩ রান দিয়ে নেন একটি উইকেট। খাদিজা তুল কুবরা ৪ ওভারে ২১ রানে নেন এক উইকেট। আর ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে উইকেট শূন্য থাকেন ফাহিমা খাতুন।

এর আগে অবশ্য ব্যাট হাতে নিগার সুলতানা ছাড়া ব্যর্থ হয় বাকিরা। ব্যাট হাতে নিগার সুলতানা ২৯ রান করেন। আর সানজিদা ইসলাম এবং ফাতিমা খাতুন করেন ১৫ রান। আর ব্যাটসম্যানদের মধ্যে চতুর্থ সর্বোচ্চ রান আসে ওপেনার মুরশিদা খাতুনের ব্যাট থেকে। তিনি থামেন মাত্র ১৪ রানে।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) আর্চারির দলগত ইভেন্টে পুরুষ ও নারী উভয় ইভেন্টে স্বর্ণপদক জিতে নেয় বাংলাদেশ। আর তাতেই দেশের ঝুলিতে যুক্ত হয় মোট ১০টি স্বর্ণপদক। এরপর ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কাকে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে মাত্র ২ রানে হারিয়ে দিনের চতুর্থ স্বর্ণ জয় করে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। এটি বাংলাদেশের ১১তম স্বর্ণ। এছাড়া, ২২টি রৌপ্য আর ৫৫টি ব্রোঞ্জ নিয়ে বাংলাদেশের পদকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৮টি।

250
‘উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবেও সম্মান অর্জন করেছে বাংলাদেশ’

Development by: webnewsdesign.com