জনপ্রিয় সংবাদ

x

বিমানে হুইল চেয়ার ওঠাতে লাগে হাজার টাকা, ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি

রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬:০১ অপরাহ্ণ | 13 বার

বিমানে হুইল চেয়ার ওঠাতে লাগে হাজার টাকা, ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি
জাতীয় সংসদ ভবন

বাংলাদেশ বিমানে ওঠার জন্য অসুস্থ ব্যক্তি হুইল চেয়ার ব্যবহার করলে প্রায় ৪ হাজার টাকা (৪৫ ডলার) গুনতে হবে। যা নিয়ে ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি।

এমন দূূূূূর্ভোগের দৃশ‌্য এবার হজ্বে যাবার সময় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দেখা যায় । এই প্রতিবেদক জানান সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে আমার শ্বশুর হজ্বে যাবেন, প্রথম বার এবং একাই যাচ্ছেন । ফ্লাইট ছাড়তে অনেক সময় বাকি । ওনার হাটতেও একটু কষ্ট হয়, তাই আমি নিজেই একটি হুইল চেয়ার বিমানবন্দরে ভিতরে দেখতে পাই, তাই আমি হুইল চেয়ারটি আনতে গেলে বিমানে এয়ারলাইন্সে কর্মরত এক মহিলা স্টাফ আমাকে হুইল চেয়ারটি নিতে বাধা দেন এবং বলেন বিমানের টিকিট কাটার সময়ই বলে নিতে হয়, হুইল চেয়ার লাগবে, এবং আলাদা পেমেন্টও করতে হয় ।

কমিটির সভাপতি এ নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, এমনটি কোনো এয়ারলাইন্সে চোখে পড়েনি। এটা পরিবর্তন হওয়া দরকার।

সংসদীয় কমিটি সূত্র জানায়, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী সম্প্রতি চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে যান। অসুস্থ থাকায় সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার সময় বিমানবন্দরে হুইল চেয়ার ব্যবহার করেন। কিন্তু এজন্য তাকে (প্রায় ৪ হাজার টাকা)  ৪৫ ডলার গুনতে হয়। তিনি নিজেই সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন করেন। যা নিয়ে সংসদীয় কমিটির অন্যান্য সদস্যরাও ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, বিমানের পদে পদে অব্যবস্থাপনা। অসুস্থ ব্যক্তি ছাড়া বিমানবন্দরে হুইল চেয়ার ব্যবহার করে না।

অথচ তাদের কাছ থেকে ৪ হাজার টাকা কেন নেওয়া হবে? সিঙ্গাপুর এয়ারপোর্টে বিমান বানানটাও ভুল লেখা আছে। কমিটির পক্ষ থেকে এ সকল বিষয়ে সতর্ক হওয়া নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বৈঠকে কমিটির সদস্য বিমান প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, কাজী ফিরোজ রশীদ, তানভীর ইমাম, আশেক উল্লাহ রফিক, আনোয়ার হোসেন খান ও সৈয়দা রুবিনা আক্তার এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর ও কক্সবাজার বিমান বন্দর পরিদর্শনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Development by: webnewsdesign.com