সর্বশেষ সংবাদ

x



বিএসটিআই’র অভিযানে দুই হাজার জার ও ০৪ টি অবৈধ কারখানা ধ্বংস, ওজন ও পরিমাপে কারচুপির অপরাধে ৫ মামলা

বুধবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৫:৫২ অপরাহ্ণ | 370 বার

বিএসটিআই’র অভিযানে দুই হাজার জার ও ০৪ টি অবৈধ কারখানা ধ্বংস, ওজন ও পরিমাপে কারচুপির অপরাধে ৫ মামলা
অনুমোদনবিহীন ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে উৎপাদিত জারের পানির কোম্পানিতে আজ বুধবার বিএসটিআইয়ের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে নের্তৃত্ব দেন বিএসটিআই পরিচালক (সিএম) প্রকৌশলী এস. এম. ইসহাক আলী। এ সময় বিএসটিআই ঊর্ধ্বতন এবং মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তরা উপস্থিত ছিলেন।

বিএসটিআই’র অনুমোদন গ্রহণ না করে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে নিম্নমানের জারে ড্রিংকিং ওয়াটার বাজারজাত করায় বিএসটিআই’র সার্ভিল্যান্স টিমের মাধ্যমে প্রায় দুই হাজার জার এবং চারটি কারখানা ধ্বংস করা হয়।

মহানগরীর হাজারীবাগ, রায়ের বাজার, বসিলা, ঢাকা উদ্যান, মোহাম্মদপুর, গৈদারটেক, দারুস সালম এবং তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় অবৈধ জারের পানির বিরুদ্ধে সার্ভিল্যান্স অভিযান পরিচালনা করা হয়। বিএসটিআই পরিচালক (সিএম) প্রকৌশলী এস. এম. ইসহাক আলী এ অভিযানে নের্তৃত্ব দেন।



বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন আইন, ২০১৮ অমান্য করে ড্রিংকিং ওয়াটার বাজারজাত করায় ঝাউচর, হাজারীবাগ এলাকার এস এম ফুড এন্ড বেভারেজ, রায়ের বাজার এলাকার আয়াত ড্রিংকিং ওয়াটার এবং গৈদারটেক এলাকার বর্ষবরণ ফুড এন্ড বেভারেজ ও নামবিহীন একটি প্রতিষ্ঠানসহ মোট ০৪ টি অবৈধ কারখানায় অভিযান পরিচালনা করে নোংরা, অস্বাস্থ্যকর জার ও কারাখানার যন্ত্রপাতি ধ্বংস করা হয়। একইসাথে এসব প্রতিষ্ঠানসমূহের পানি উত্তোলনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

এছাড়াও মিরপুর এলাকাস্থ পপুলার হাসপাতালে সার্ভিল্যান্স পরিচালনাকালে জারে সরবরাহকৃত পানির মান সম্পর্কিত কোন পরীক্ষণ প্রতিবেদন দেখাতে না পারায় পরীক্ষার জন্য ২ জার ড্রিংকিং ওয়াটার জব্দ করা হয়।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় অপর একটি সার্ভিল্যান্স অভিযান পরিচালনাকালে বিভিন্ন হোটেল ও দোকানপাটে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সংরক্ষিত এবং রাস্তায় পানি সরবরাহকারী ভ্যান হতে নোংরা ও জীর্ণ জার জব্দ এবং ধ্বংস করা হয়। এ সময় লাইসেন্সবিহীন ড্রিংকিং ওয়াটার ক্রয় ও ব্যবহার হতে বিরত থাকার জন্য ক্রেতা/ভোক্তাসাধারণকে পরামর্শ প্রদান করা হয়।

ওজন ও পরিমাপে কারচুপির অপরাধে ৫ মামলা:

ওজন ও পরিমাপে কারচুপির অপরাধে ‘‘ওজন ও পরিমাপ মানদন্ড আইন-২০১৮’’ অনুযায়ী আজ ৫ টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে বিএসটিআই।

রাজধানীর খিলগাঁও এলাকায় বিএসটিআই’র সার্ভিল্যান্স টিমের মাধ্যমে এ মামলা দায়ের করা হয়। অভিযুক্ত ৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মেসার্স মিঠাই মিষ্টি ও মেসার্স ভাগ্যকুল মিষ্টান্ন ভান্ডার ডিজিটাল স্কেলের বিএসটিআই’র ভেরিফিকেশন সার্টিফিকেট গ্রহণ না করায়, মেসার্স সেঞ্চুরী সুইট বেকারী এন্ড ক্যাফ পণ্যের প্যাকেটের গায়ে ওজন, মূল্য, উৎপাদন তারিখ ও মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ ইত্যাদি উল্লেখ না করায় এবং মেসার্স রেমন্ড ফেব্রিক্স কাপড় পরিমাপে মিটার সেন্টিমিটারের পরিবর্তে গজকাঠি ব্যবহার করায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়া শাহজাহানপুর এলাকার মেসার্স খলিল মাংসের বিতান ডিজিটাল স্কেলের বিএসটিআই’র ভেরিফিকেশন সার্টিফিকেট না থাকায় ওজন ও পরিমাপ মানদ- আইন লঙ্ঘিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। বিএসটিআই’র এরূপ অভিযান অব্যাহত থাকবে ।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
ধর্মবর্ণ ভুলে গিয়ে ত্রাণ পৌছে যাবে সবার হাতে-মাসুদ রানা

Development by: webnewsdesign.com