জনপ্রিয় সংবাদ

x



বিইউপি ছাত্রকে চাপা দেয়া বেপরোয়া বাসের চালক আটক, সড়ক অবরোধ

মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯ | ২:০৪ অপরাহ্ণ | 142 বার

বিইউপি ছাত্রকে চাপা দেয়া বেপরোয়া বাসের চালক আটক, সড়ক অবরোধ

রাজধানীর নর্দা-বসুন্ধরা এলাকায় দ্রুতগতিতে চালিয়ে যাওয়া যাত্রীবাহী বাসের চাপায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে যাওয়া ওই বাসচালককে এবং জব্দ করা হয়েছে বাসটিকে।

এদিকে বাসচাপায় সহপাঠীর মৃত্যুর প্রতিবাদ ও বিচার দাবিতে রামপুরা সড়কের নর্দা-বসুন্ধরা এলাকায় সড়ক আটকিয়ে অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন। এই সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। বিশ্বরোড এলাকার পর থেকে গণপরিবহনগুলো আর সামনে এগোচ্ছে না। দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন অফিসগামী মানুষ।



নিহত শিক্ষার্থীর নাম আবরার আহমেদ চৌধুরী। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালে (বিইউপি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি বিইউপির ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তার বাবা আরিফ আহমেদ চৌধুরী।

মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে ওই শিক্ষার্থী রাস্তা পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আবরার বসুন্ধরা এলাকায় থাকতেন। আবরারের লাশ রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, শিক্ষার্থীদের বহনকারী বিইউপির একটি বাস সকালে বসুন্ধরা এলাকায় সড়কে দাঁড়িয়েছিল। সকাল সোয়া ৭টার দিকে আবরার বাসে উঠতে যাচ্ছিলেন। এ সময় পাশে থাকা গাজীপুরগামী সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একই পরিবহনের অপর একটি বাসকে ওভারটেক করার জন্য বেপরোয়া গতিতে সুপ্রভাত পরিবহনের বাসটি চালাচ্ছিলেন চালক। দুর্ঘটনার পর নিহত ছাত্রের সহপাঠীরা বাসটি আটক করেন। এ সময় চালক ও হেলপার পালানোর চেষ্টা করেন। পরে চালক সিরাজুল ইসলামকে ধরে ফেলেন শিক্ষার্থীরা।

এদিকে ছাত্র নিহত হওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা এ সময় সুপ্রভাত পরিবহনের সব বাস আটক করে রাস্তা বন্ধ করে মিছিল করতে থাকেন। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েন অফিসগামী লোকজনসহ সব বাসযাত্রী। এ সময় তাদের পায়ে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে যাত্রা করতে দেখা যায়।

খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে ছাত্রদের শান্ত করার চেষ্টা করে। ঘটনাস্থলে আসা গুলশান থানার এসআই মোশাররফ হোসেন যুগান্তরকে জানান, ঘাতক বাসটি আটক করে থানায় পাঠানো হয়েছে। চালককেও আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে।

রাজধানীতে ‘ট্রাফিক শৃঙ্খলা সপ্তাহ’ চলার মধ্যেই এ দুর্ঘটনা ঘটল। নিহত শিক্ষার্থী নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে জড়িত ছিলেন।

250
৩৩৩ কল সেন্টারের মাধ্যমে ডিএনসিসির সেবা হটলাইনের উদ্বোধন

Development by: webnewsdesign.com