বাজারে মূল্যতালিকা দেখে জনগণকে পণ্য কেনার আহবান জানালেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম

শুক্রবার, ১৭ মে ২০১৯ | ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ | 193 বার

বাজারে মূল্যতালিকা দেখে জনগণকে পণ্য কেনার আহবান জানালেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম
ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বাজারে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল আছে কিনা তা যাচাই করতে উত্তরা ৬নং সেক্টর কাঁচাবাজারে আকস্মিক পরিদর্শন করেন।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনার পূর্বে জনগণকে মূল্যতালিকা দেখে নেয়ার আহবান জানিয়েছেন। বাজারে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল আছে কিনা তা যাচাই করতে তিনি আজ বেলা ১২টায় উত্তরা ৬নং সেক্টর কাঁচাবাজারে আকস্মিক পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনকালে মেয়র মাংস দোকান, মুদি দোকান ও কাঁচাবাজারে গিয়ে মূল্যতালিকা প্রকাশ্যে রাখা আছে কিনা  এবং নির্ধারিত মূল্যে পণ্য বিক্রয় করছে কিনা যাচাই করেন।



 

বাজারে মূল্যতালিকা দেখে জনগণকে পণ্য কেনার আহবান জানালেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম

 

উপস্থিত ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট সোহেল রানা এ সময় মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়ের অভিযোগে ২টি মুদি দোকানকে ১৫ হাজার টাকা করে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। তাছাড়া ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করায় ২ জনকে মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

একটি দোকানে মেয়র যাওয়ার পূর্বে কাঁচামরিচ কেজি প্রতি ৮০ টাকা এবং মেয়র যাওয়ার পরে একই কাঁচামরিচ কেজি প্রতি ৪২টাকা চাওয়া হলে এবং মূল্যতালিকা পাওয়া না যাওয়ায় ডিএনসিসির অপর নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। তাছাড়া তিনি দুইটি দোকানে বিভিন্ন পণ্যের লেভেল না থাকায় ২০ হাজার টাকা করে মোট ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এসময় কয়েকটি দোকানে গিয়ে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায় নি। পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মেয়র বলেন, “নির্ধারিত মূল্যের অতিরিক্ত নেয়া হলে অসাধু ব্যবসায়ীদের আইন অনুযায়ী জেল ও জরিমানা করা হবে। বাজারে সকল পণ্যের যথেষ্ট সরবরাহ রয়েছে। অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের বিবেক জাগ্রত হোক”। তিনি পর্যায়ক্রমে ডিএনসিসির অন্যান্য বাজারও পরিদর্শন করবেন বলে জানান।

উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টর কাঁচা বাজার পরিদর্শনের আগে মেয়র উত্তরার শাহজালাল এভিনিউ হয়ে রাজউক কলেজ রোডে যান। সেখানে রাস্তা ও ফুটপাতে অবৈধ দোকান দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলেন। মেয়র বলেন, “ফুটপাত ও রাস্তা অবশ্যই দখলমুক্ত থাকতে হবে”। নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার প্রায় ৩০ টি অস্থায়ী দোকান রাস্তা ও ফুটপাত থেকে উচ্ছেদ করেন।

মেয়রের পরিদর্শন শেষে ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত রাখেন। এসময় উত্তরায়’মীনা বাজারে’ধূমপানের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করায় ১ লক্ষ টাকা এবং ডাল, রসুন ও আদা নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি নেয়া, বিএসটিআই এর অনুমোদন না থাকা এবং অন্যান্য অভিযোগে ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী ২ লক্ষ টাকাসহ মোট তিন লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। ‘শপ এন সেভে’ কাঁচা মরিচ ও বেগুন নির্ধারিত মূল্যের বেশি নেয়া, বিএসটিআইএর অনুমোদন না থাকায় এবং অন্যান্য অপরাধে ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়।

পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আফসার উদ্দিন খান, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর জাকিয়া সুলতানা উপস্থিত ছিলেন।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
মাস্ক না পরলে ৬ মাসের জেল, লাখ টাকা জরিমানা !

Development by: webnewsdesign.com