শুক্রবার ৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইভিএমে ভোট কারচুপি

প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে যুবলীগ নেতার মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২ | প্রিন্ট

প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে যুবলীগ নেতার মামলা

ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন নাসির উদ্দিন নামের এক যুবলীগ নেতা। নাসির উদ্দিন হাটহাজারী উপজেলা যুবলীগের সদস্য। তিনি নবম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন। তবে আদালত মামলাটি গ্রহণ করলেও কোনো ধরণের আদেশ দেননি।

আজ বুধবার চট্টগ্রামের প্রথম সিনিয়র সহকারী জজ ইছরাত জাহান নাসরিনের আদালতে এই মামলা করেন বলে নিশ্চিত করেছেন বাদীর আইনজীবী হাসান আলী চৌধুরী।

তিনি বলেন, নবম ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর চেয়ে বেশি ভোট পাওয়া সত্ত্বেও নির্বাচন কর্মকর্তার অন্যায় আবদার না রাখায় ইভিএমের মাধ্যমে ভুল ফলাফল প্রদর্শন করে বাদীকে পরাজিত ঘোষণা করেছে। বাদী পুনর্নির্বাচন ও ভোট পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করলেও তা গ্রাহ্য না করে ৮ জুলাই নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করে গেজেট প্রকাশ করে।
তিনি আরও বলেন, নির্বাচন নিয়ে অভিযোগ করেও কোনো ধরনের প্রতিকার না পেয়ে বিবাদীদের বিরুদ্ধে এই মামলা করেছেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করলেও কোনো ধরণের আদেশ দেননি। তবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার এই আদেশ দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উপজেলা যুবলীগ নেতা নাসির উদ্দিনের এই মামলার আসামিরা হলেন- প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী, নির্বাচন কমিশন সচিব হুমায়ুন কবির খোন্দকার, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান, জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম, হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিদুল আলম, ফরহাদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলম শওকতসহ ২৩ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ জুন নবম ধাপে চট্টগ্রামের ৬টি উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ৯ ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী, ৪ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এবং ৫ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র ও বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্রার্থীরা বিজয়ী হন। এর মধ্যে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নে ৬ হাজার ১৯৮ ভোট পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন শওকত আলম শওকত। বিদ্রোহী প্রার্থী নাসির উদ্দিন পান ৫ হাজার ৬৬৯ ভোট।

Facebook Comments Box
বিষয় :
advertisement

Posted ৭:৫৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২

dhakanewsexpress.com |

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোঃ মাসুদ রানা হানিফ সম্পাদক