রবিবার ২রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>
চা শ্রমিকদের ধর্মঘট অব্যাহত

নষ্ট হচ্ছে কাঁচাপাতা, প্রতিদিনই ক্ষতি ১৫-১৬ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২ | প্রিন্ট

নষ্ট হচ্ছে কাঁচাপাতা, প্রতিদিনই ক্ষতি ১৫-১৬ কোটি টাকা

মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে মৌলভীবাজারের ৯২টি চা বাগানসহ দেশের ১৬৭টি চা বাগানের শ্রমিকরা ধর্মঘট অব্যাহত রেখেছেন। ধর্মঘট চলাকালে চা পাতা উত্তোলন ও ফ্যাক্টরিতে চা পাতা প্রক্রিয়াজাতকরণের কাজসহ সবধরনের কাজ বন্ধ রেখেছেন শ্রমিকরা। কাজ বন্ধ রাখায় ফ্যাক্টরিগুলোতে প্রক্রিয়াজাতকরণের অপেক্ষায় থাকা চা পাতাগুলো যেমন পচে নষ্ট হচ্ছে। তেমনি বাগান থেকে সময়মতো চা পাতা উত্তোলন না করায় তাও প্রক্রিয়াজাতের অনুপযোগী হচ্ছে। এবছর ভর মৌসুমে শ্রমিকদের আন্দোলনের কারণে চা উত্তোলন ও প্রক্রিয়াজাতকরণের কাজ বন্ধ রাখাসহ ক্রমবর্ধমান লোডশেডিংয়ে চা পাতা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা চরমভাবে ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, গেল কয়েকদিন থেকে প্রতিদিনই প্রায় ১৫-১৬ কোটি টাকার লোকসান গুনতে হচ্ছে এশিল্পের সংশ্লিষ্টরা। তবে আন্দোলন অব্যাহত থাকলে ক্ষয়ক্ষতির ওই পরিসংখ্যান আরও বাড়বে এমনটিই তথ্য দিচ্ছেন চা বাগান মালিক, স্টাফ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

মঙ্গলবার বিকেলে চলমান ধর্মঘট নিরসনে দ্বিতীয় দফা আন্দোলনরত চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দদের নিয়ে বাংলাদেশ শ্রম অধিদপ্তরে মহাপরিচালক খালেদ মামুন চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা শ্রীমঙ্গলে বৈঠকে বসেন। ওই বৈঠক ফলপ্রসূ না হওয়ায় সিদ্ধান্ত হয় আজ (বুধবার) বিকেল ৪টায় বাংলাদেশ শ্রম অধিদপ্তরের ঢাকার কার্যালয়ে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় বসবেন চা বাগান মালিক পক্ষ ও বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।

জানা যায়, ওই বৈঠকে অংশ নিতে ইতোমধ্যে চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দ মৌলভীবাজার থেকে ঢাকার পথে রওনা হয়েছেন। এছাড়া পৃথকভাবে ২৩ আগস্ট ঢাকায় মন্ত্রী ও সচিবের নেতৃত্বে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়া কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক বিজয় হাজরা গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, শ্রমিকদের দৈনিক ৩শ টাকা মজুরী বৃদ্ধির দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। তবে চলমান ওই আন্দেলনের মধ্যে আলোচনাও চলবে। আলোচনা ফলপ্রসূ হলে তবেই ধর্মঘট প্রত্যাহর করে কাজে ফিরবেন শ্রমিকরা। উল্লেখ্য, চা শ্রমিকদের দৈনিক ১২০ টাকা থেকে মজুরি ৩শ’ টাকা বৃদ্ধি করার দাবিতে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন ৯ আগস্ট থেকে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ২ ঘন্টা করে পালন করে। এরপর ১৩ই আগষ্ট অনির্দিষ্টকালের জন্য পূর্ণদিবস চা শ্রমিক ধর্মঘট পালন করে। ১৪ ও ১৫ আগষ্ট ২ দিন স্থগিত থাকার পর ১৬ই আগস্ট থেকে পূর্ণদিবস ধর্মঘট পালন করছেন চা শ্রমিকরা।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ২:৩২ অপরাহ্ণ | বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

dhakanewsexpress.com |

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোঃ মাসুদ রানা হানিফ সম্পাদক