জনপ্রিয় সংবাদ

x



নওগাঁয় নতুন সাংস্কৃতিক সংগঠন ত্রিশূলের যাত্রা শুরু

মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর ২০১৯ | ৬:৫৫ পিএম | 41 বার

নওগাঁয় নতুন সাংস্কৃতিক সংগঠন ত্রিশূলের যাত্রা শুরু
নওগাঁয় নতুন সাংস্কৃতিক সংগঠন ত্রিশূলের যাত্রা শুরু

হাজার বছরের বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেয়ার প্রত্যয় নিয়ে নওগাঁয় যাত্রা শুরু করেছে প্রথিতযশা সংস্কৃতিকর্মী তৃণা মজুমদারের হাত ধরে নতুন সাংস্কৃতিক সংগঠন ত্রিশূল।

‘সোপার্জিত কৃষ্টির নীত’ এ শ্লোগানকে ধারণ করে ত্রিশূল তার নবযাত্রা করল। বাংলার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে সমুন্নত করে তা নতুন প্রজন্মের মাঝে যথাযথভাবে লালনের মানসে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নতুনভাবে এর আত্মপ্রকাশ।



গত ২২-২৫ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে অনুষ্ঠীতব্য বিশ্বব্যাপী নৃত্যশিল্পীদের সংগঠন ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ড্যান্স এলায়েন্স-এশিয়া প্যাসিফিক’ এর উদ্যেগে ওশান ড্যান্স ফ্যাস্টিভাল-এ অংশগ্রহণের মাধ্যমে সমুদ্রের ঢেউয়ের গর্জনের সাথে তাল মিলিয়ে গর্জন করে জানান দিয়েছে তার আগমনী বার্তা। সংস্কৃতি মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত জীবন প্রবাহের অংশ। এ কীর্তিমান শিল্পীর প্রগতিশীল ও অসাম্প্রদায়িক কৃষ্টি চিন্তার ফসল হলো ত্রিশূল।

সাহিত্য ও সংস্কৃতির ক্ষেত্রে নওগাঁর রয়েছে এক বিশেষ তাৎপর্যময় বৈশিষ্ট্য। বাংলাদেশের আবহমান সাহিত্য ও সংস্কৃতির একই প্রবাহের ক্ষুদ্র অংশ হয়েও এর স্বাতন্ত্র্য রয়েছে সৃষ্টির অবয়বে। জেলার মধুইল, পোরশা, সাপাহার, নিয়ামতপুর, ধামইরহাট অঞ্চলের উঁচু নীচু দীঘল ফসলের মাঠ বেয়ে দিনান্তে শ্রম-কিণাংক শরীরে অস্তায়মান সূর্য্যের রাঙা আবির মেখে আজো সাঁওতাল তরুণ তরুণীরা মোষের পিঠে, পায়ে হেঁটে, বাঁশী মুখে, খোঁপায় বুনোফুল গুজে ঘরে ফেরে। যাত্রা, লোকগান, গ্রাম্য কবিতা, পল্লী এলাকার বিয়ের গীত নওগাঁ জেলায় প্রচলিত আছে বহু শতাব্দী ধরে।

আর এসব আঞ্চলিক গীতেই নওগাঁর আবহমান কালের লোক-সংস্কৃতির পরিচয় ফুটে উঠে স্পষ্টভাবে।

কালের পরিক্রমায় এ শিল্প সংস্কৃতি যেন বিস্তৃতির অতল গহ্বরে বিলীনের দোরগোড়ায়। বাঁচানোর জন্য দরকার এ ধরনের সাংস্কৃতিক সংগঠনের। বর্তমানে বিশ্বায়নের যুগে আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্যে লালিত শিল্প সংস্কৃতি হুমকির মুখে। প্রয়োজন সঠিক মূল্যবোধের সাংস্কৃতিক আন্দোলন, যে আন্দোলন বাংলার গরিব মানুষের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক মৃক্তির জন্য সহায়ক হবে। সংস্কৃতি যে সমাজ পরিবর্তনে গুরুত্বপূর্ন একটি ভূমিকা পালন করে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

ত্রিশূলের সাংস্কৃতিক চর্চার ভিতর দিয়ে প্রয়োজনীয় সামাজিক পরিবর্তন হবে নিশ্চয়ই। এ সাংস্কৃতিক সংগঠন ভবিষ্যতে জাতির যে কোন দুর্যোগের মোকাবেলা করবে সাংস্কৃতিক কর্মের ভেতর দিয়ে। গড়ে তুলবে মানবিক অসাম্প্রদায়িক সমাজ। ত্রিশূলের তিনটি ফলা যেমন জীবনের বিভিন্ন ত্রিত্বগুণকে উপস্থাপন করে, তেমনি একটি গুণ অতীত-বর্তমান-ভবিষ্যতের সাংস্কৃতিক কার্যক্রম নিয়ে নওগাঁসহ সারা দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গন আলোড়িত হবে, বিকশিত হবে, বেঁচে থাকবে আজীবন স্বকীয়তায়!

250

Development by: webnewsdesign.com