বৃহস্পতিবার ৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড.আকবর আলি খান আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড.আকবর আলি খান আর নেই

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড.আকবর আলি খান

-ফাইল ছবি

দেশের প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা আকবর আলি খান আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরিবার জানিয়েছে, আকবর আলি খান অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছিল। সেখানে যাওয়ার পথে অ্যাম্বুলেন্সেই তিনি মারা যান। হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড.আকবর আলি খান ঢাকার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ২০ মিনিটে এভারকেয়ার হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন তার ছোট ভাই কবির উদ্দিন খান।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। কবির উদ্দিন বলেন, ”আমার বড় ভাই ড.আকবর আলি খান হার্টঅ্যাটাকে মারা গেছেন। রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছিল। হাসপাতালে নেওয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।” তিনি জানান, গত কয়েকদিন ধরে আকবর আলি অসুস্থতা বোধ করছিলেন। এদিন বেশি অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সাবেক মন্ত্রি পরিষদ বিভাগের সচিব আকবর আলি ২০০৬ সালে ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদের নেতৃত্বাধীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ছিলেন। পরে সেই সময় রাজনৈতিক বিরোধের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে প্রশ্নে তিনিসহ চার উপদেষ্টা পদত্যাগ করেছিলেন। সাবেক আমলা আকবর আলি খান ১৯৪৪ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে স্নাতক ডিগ্রি নেন। পরে কানাডার কুইন্স ইউনিরভার্সিটিতে অর্থনীতিতে পড়েছেন। এরপর অর্থনীতি নিয়ে পিএইচডি করেন।

পাকিস্তান সিভিল সার্ভিসের পরীক্ষার মাধ্যমে তিনি সরকারি চাকুরিতে যোগ দেন। অবসর নেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে। অর্থ সচিবের দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

উপদেষ্টা হিসেবে পদত্যাগের এক বছর পর ফখরুদ্দীন আহমদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় আকবর আলি রেগুলেটরি রিফর্মস কমিশনের (আরআরসি) চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করেন।

সত্যভাষী ও সাহসী সাবেক এই সরকারি কর্মকর্তা পাকিস্তান সিভিল সার্ভিসে কর্মরত থাকা অবস্থায় মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে তিনি হবিগঞ্জের মহুকুমা প্রশাসক (এসডিও) ছিলেন।

যুদ্ধের সময়ে আকবর আলি মুজিবনগর সরকারের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে কাজ করেন। কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত থাকায় পাকিস্তানি জান্তা তখন তার অনুপস্থিতিতে তাকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়।

দেশ স্বাধীন হলে তিনি সরকারি চাকরিতে যোগ দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতার সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে অবসর নেওয়ার পর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন।

একই সঙ্গে লেখালেখি করেছেন। অর্থনীতি, সমাজ ও স্মৃতিচারণমূলক বই লিখেছেন। পত্রপত্রিকায় নিয়মিত রাজনীতি ও আর্থ সামাজিক অবস্থা নিয়ে কলাম লিখেছেন।

অর্থনীতি বিষয়ে আকবর আলি খানের দুই বই ‘পরার্থপরতার অর্থনীতি’ এবং ‘আজব ও জবর-আজব অর্থনীতি’ পাঠকদের কাছে সমাদৃত হয়েছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১১:৩৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

dhakanewsexpress.com |

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোঃ মাসুদ রানা হানিফ সম্পাদক