সর্বশেষ সংবাদ

x


ঢাকা নবাবগঞ্জের শোল্লা ইউনিয়নের মহিলা মেম্বারের বিরুদ্ধে জমি দখল ও গাছ কাটার অভিযোগ

রবিবার, ২৯ আগস্ট ২০২১ | ৮:১৫ অপরাহ্ণ | 24 বার

ঢাকা নবাবগঞ্জের শোল্লা ইউনিয়নের মহিলা মেম্বারের বিরুদ্ধে জমি দখল ও গাছ কাটার অভিযোগ
ঢাকা নবাবগঞ্জের শোল্লা ইউনিয়নের মহিলা মেম্বারের বিরুদ্ধে জমি দখল ও গাছ কাটার অভিযোগ

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় শোল্লা ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার বিউটি চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে জোরপূর্বক গাছ কাটার ও জমি দখল করার অভিযোগ ওঠেছে।

গতকাল সোমবার বিকেলে উপজেলার দক্ষিণ শোল্লায় স্থানীয় সুভাষ চন্দ্র ভট্রাচার্যের জমিতে লাগানো ৭টি পেঁপে গাছ কেটে ফেলে রেখে যান।

জমি রেহান নেওয়া চাষী তুষ্ট বিশ্বাসকে জমিতে আর না আসতে বলে ও হুমকি দিয়ে যায়। মঙ্গলবার বিকেলে জমির মালিক নবাবগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

জমি চাষী তুষ্ট বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, আমি ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা দিয়ে শোল্লা মৌজার আরএস খতিয়ান নং ৩৮২ ও আর এস ৭৯২ দাগে ১ একর ৩৯ শতাংশ জমি জমির মালিক সুভাষ চন্দ্র ভট্রাচার্যের কাছ থেকে রেহান নিয়ে ১১ বছর ধরে চাষ বাস করে আসতেছি।

স্থানীয় মহিলা মেম্বার বিউটি চক্রবর্তী সোমবার বিকেলে জমির আংশিক ভিটায় লাগানো ২ বছর বয়সী পেঁপে গাছ সহ ৭টি গাছ নিজ হাতে কেটে ফেলে রেখে যান। জমিতে এসে জোড় করে ধান লাগায়। আমি যেন জমিতে আর না আসি বলে নিষেধ করে হুমকি দিয়ে চলে যান তিনি।

জমির মালিক সুভাষ চন্দ্র ভট্রাচার্য বলেন, এ জমি আমার দাদার নামে রেকর্ড ভুক্ত। দাদা আমার বাবা কে জমিটি আম-মোক্তার দলিল করে দেয়। পরে আমার বাবা আমাকে ও আমার ভাই কে দানপত্র দলিল করে দেন।

আমরা ২০০৯ সালে নবাবগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) অফিস থেকে খারিজ খাজনা দিয়ে শান্তি পূর্ণ ভাবে ভোগ দখল করে আসছি।

আমার টাকার প্রয়োজন হলে তুষ্ট বিশ্বাসের কাছ থেকে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়ে এ জমিটি ১১ বছর ধরে রেহান দিয়ে রেখেছি।

তিনি বলেন বিউটি মেম্বার বানোয়াট কথা বলে ভুয়া জমির মালিক সাজতে চায়। এ নিয়ে আমি গত ৮/০৮/২১ ইং তারিখে নবাবগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি যাহার নং ২৯২।

পরে সে ক্ষিপ্ত হয়ে সোমবার বিকেলে জমিতে গিয়ে ৭টি পেঁপে গাছ কেটে ফেলেন। আমি বিউটির বিরুদ্ধে মঙ্গলবার বিকেলে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

এ বিষয়ে শোল্লা ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার বিউটি চক্রবর্তী পেঁপে গাছ কাটার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি ১টি গাছ কেটেছি। পুলিশ যখন আমাকে গাছ কাটতে বারণ করেন তখন আর কোনো গাছ কাটিনি। এসময় তিনি বলেন এই জমিটি আমার দাদা শ্বশুরের।

সুভাষ চন্দ্র ভট্রাচার্য জালিয়াতি ভাবে কাগজ করে জমিটি দখল করে রেখেছেন।

এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানা ডিউটি অফিসার উপ পরিদর্শক তানভির শেখ বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। উপ পরিদর্শক মিন্টু লস্কর সরেজমিন তদন্তে যাবেন বলে জানা যায় ।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  

Development by: webnewsdesign.com