ঠাকুরগাঁওয়ের রত্নাই সীমান্তের নাগন নদী থেকে গরু ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার

সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০ | ৬:২৭ অপরাহ্ণ | 97 বার

ঠাকুরগাঁওয়ের রত্নাই সীমান্তের নাগন নদী থেকে গরু ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার
ঠাকুরগাঁওয়ের রত্নাই সীমান্তের নাগন নদী থেকে গরু ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার রত্নাই সীমান্তের নাগর নদী থেকে ৩ আগস্ট মোমবার সকালে মামুন(৩০) নামে এক বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করেছে বিজিবি।
নিহত মামুন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের পশ্চিম হরিণমারি ঠকবস্তি গ্রামের সাদেকের ছেলে।
ইসলামপুর সোনামতি ক্যাম্পের বিএসএফ’র সদস্যদের পাথর ছোঁড়ে মারার নির্যাতনে মামুনের মৃত্যু হয়েছে বলে তার পরিবারের ভাষ্য।
স্থানীয় ও এলাবাসির বরাত দিয়ে বালিয়াডাঙ্গী থানার পুলিশ পরিদর্শক আতিকুল ইসলাম জানন, ঈদের দিন রাতে মামুনসহ আরো কয়েকজন গরু ব্যবসায়ী অবৈভাবে রত্নাই সীমান্তের তারকাটা পেরিয়ে ভারতের ভিতরে ৩৮২/টুএস পিলার এলাকায় ঢুকে পড়লে, ভারতের উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর
থানার আয়রন ব্রীজের কাছে রবিবার ময়নামতি ক্যাম্পের বিএসএফ’র নজরে পড়লে গরুনিয়ে যাওয়ার সময় তাদেরকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়ে মারে এ সময় মামুনের সহযোগীরা পালিয়ে বাংলাদেশে ফিরে এলেও মামুন ভারতের অভ্যন্তরে থেকে যায় এবং তাকে পাথরের আঘাত লাগে।
সোমবার সকালে স্থানীয়রা রত্নাই সীমান্তের নাগর নদীতে ভেসে আসা মামুনের মরদেহ দেখতে পায়। সাথে সাথে বিজিবি ও পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ মামুনের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে লাশ ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠায়। ঠাকুরগাঁও -৫০ বিজিবি’র অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শহিদুল ইসলাম বলেন, মামুনের শরীরে কোন গুলি চিহ্ন দেখতে পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে। তিনি আরো বলেন, সীমান্তে গুলি, হত্যা ও নির্যাতন বন্ধের বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে বিজিবি’র পক্ষ থেকে বিএসএফ কে পত্র দেওয়া হয়েছে।



আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
“ইয়ুথ ব্লাড ডোনার ক্লাব”র দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের প্রস্তুতি মূলক সভা অনুষ্ঠিত

Development by: webnewsdesign.com