জনপ্রিয় সংবাদ

x



টুলের সাঁকো থেকে পড়ে আহত হচ্ছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা

বুধবার, ১৩ মার্চ ২০১৯ | ২:৩৭ অপরাহ্ণ | 161 বার

টুলের সাঁকো থেকে পড়ে আহত হচ্ছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের একটি এলাকায় পাঁচ শতক বাসাবাড়ির পয়ঃনিষ্কাশনের পানি কয়েক বছর ধরে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জমছে।

এ পানির দুর্গন্ধে আর রোগ জীবাণুতে অসুস্থ হয়ে পড়ছে কোমলমতি শিশুরা।



বিদ্যালয়ের আঙিনা ও ক্লাসরুমে হাঁটুপানি থাকায় যাতায়াতের জন্য ক্লাসের টুল দিয়ে সাঁকো বানো হয়েছে।

এ সাঁকো দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে হাত-পা ভেঙে অনেক শিক্ষক-শিক্ষার্থী যন্ত্রণা সহ্য করছে। এ দুর্ভোগ থেকে বাদ পড়েনি স্কুলের শিক্ষিকারাও।

সরেজমিন নারায়ণগঞ্জ সিটির ১২নং ওয়ার্ডের ফতুল্লার ইসদাইর এলাকায় অবস্থিত ৭২নং ইসদাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ দুরাবস্থা দেখা যায়।

অভিভাবকরা জানান, ইসদাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি দীর্ঘদিনের পুরনো একটি দোতলা ভবন।

এ ভবনে গরিব ও হতদরিদ্রদের শিশুসন্তানরা অনেক কষ্ট করে লেখাপড়া করছে এক যুগ ধরে।

একসময় দুর্যোগে এ স্কুলটি আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হতো। কিন্তু এখন এ স্কুলের শিক্ষার্থীদের পাঠদানে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে বিকল্প কোনো স্থান খুঁজছেন শিক্ষক ও অভিভাবকরা।

বারবার সিটি কর্পোরেশন ও সরকারি বিভিন্ন দফতরে দৌড়ঝাঁপ করে এখন ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা লতিফা নাহার।

ক্লান্ত শরীর নিয়ে বেঞ্চের ওপর দিয়ে এক ক্লাস থেকে আরেক ক্লাসে যাওয়ার সময় পড়ে গিয়ে মারাত্মক আহত হয়েছেন তিনি। হাত-পা ভেঙে গেছে। কপাল ও ঠোঁটে আঘাত পেয়েছেন। ৭ ফেব্রুয়ারি এ ঘটনার পর এখন ঘরে বসেই চিকিৎসা নিচ্ছেন প্রধান শিক্ষিকা।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষিকা লতিফা নাহার জানান, স্কুলে ৬৪৫ শিক্ষার্থী ও ১৪ শিক্ষক আছে। স্কুলটির উন্নয়নের জন্য কয়েক বছর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর কাছে দৌড়ঝাঁপ করেছি। এতে ব্যর্থ হয়ে এমপি শামীম ওসমানের কাছে সহযোগীতা চাই। এরপর ২০১৮ সালে এক কোটি টাকা ব্যায়ে একটি তিন তলা ভবন নির্মান করে দিয়েছে এমপি শামীম ওসমান। বর্তমানে সেই ভবনের সামনেও হাঁটুপানি জমে আছে।

250
পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ ও সাতদিন পেঁয়াজ বর্জনের আহ্বান জানিয়ে ৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মানববন্ধন

Development by: webnewsdesign.com