শুক্রবার ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সম্পর্কিত বিটাকে আয়োজিত তিন দিনের কনফারেন্স সমাপ্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ০৫ এপ্রিল ২০২২ | প্রিন্ট

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সম্পর্কিত বিটাকে আয়োজিত তিন দিনের কনফারেন্স সমাপ্ত

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সম্পর্কিত বিটাকে আয়োজিত তিন দিনের কনফারেন্স সমাপ্ত

-প্রতিনিধি

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রেক্ষাপটে মেকাট্রনিক্স এবং অটোমেশন টেকনোলজির মাস্টার ট্রেইনার ট্রেনিং বিষয়ে বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রে (বিটাক) অনুষ্ঠিত তিন দিনের কনফারেন্স গতকাল বৃস্পতিবার শেষ হয়েছে। বিটাকের টুল অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউটে গত ০৫ এপ্রিল মঙ্গলবার এ কনফারেন্স শুরু হয়েছিল।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, এম.পি। এতে সভাপতিত্ব করেন বিটাকের মহাপরিচালক আনোয়ার হোসেন চৌধুরী। বক্তারা বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ধারণা- কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তা, বিগ ডাটা, ক্লাউড কম্পিউটিং, ভার্চুয়্যাল রিয়েলিটি, অগমেন্টেড রিয়েলিটি এবং রোবটিক্সসহ প্রযুক্তির আরও অনেক শাখায় বিস্তৃত। আগামীর পৃথিবীর সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে আমাদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে অংশ গ্রহণের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বিশে^র বুকে প্রতিষ্ঠিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন। এর অংশ হিসেবে দেশের তরুণ জনগোষ্ঠীকে আধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। বিটাক এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, দেশে বিটাকের আরও ছয়টি আঞ্চলিক কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এসব কেন্দ্রে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে সামনে রেখে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে।

সভাপতি আনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে বর্তমান সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করেছে। আগামী দিনে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে বেঁচে থাকতে হলে এর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। বিটাকের নতুন কেন্দ্রগুলো চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ধারণাকে মাথায় রেখে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে গড়ে তোলা হবে।

মেকাট্রনিক্স প্রযুক্তিবিদ্যার একটি আন্তঃবিভাগীয় শাখা, যা মেকানিক্যাল, ইলেক্ট্র্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক্স এবং কন্ট্রোল সিস্টেমের মাধ্যমে ইন্ড্রাস্ট্রিতে প্রয়োগ করা হয়। বর্তমানে বাংলাদেশের বিভিন্ন ইন্ড্রাস্ট্রিতে এর প্রয়োগ ব্যাপকভাবে শুরু হওয়ায় বিটাকের টুল অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউট দক্ষ জনবল তৈরির জন্য মাস্টার ট্রেইনার তৈরির একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এ বিষয়ে বিটাক, জার্মানির ব্রেমেন বিশ্ববিদ্যালয়, মেকাট্রনিক্স ইকুইপমেন্ট উৎপাদনকারী জার্মান ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ফেস্টো এবং এটুআই যৌথভাবে তিন দিনের এই কনফারেন্স আয়োজন করেছিল।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১:৪৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৫ এপ্রিল ২০২২

dhakanewsexpress.com |

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

মোঃ মাসুদ রানা হানিফ সম্পাদক