শুক্রবার ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>
সীতাকুণ্ড ট্র্যাজেডি

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ঘটে গেছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা,ক্রিকেটাররাও নেমেছিলেন অন্য রকম এক যুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ০৫ জুন ২০২২ | প্রিন্ট

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ঘটে গেছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা,ক্রিকেটাররাও নেমেছিলেন অন্য রকম এক যুদ্ধে

ক্রিকেটাররাও নেমেছিলেন অন্য রকম এক যুদ্ধে

-সংগৃহীত

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ঘটে গেছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড আর বিস্ফোরণের ঘটনায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪৩ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। গত রাতে এমন ঘটনার পর আহতদের জন্য প্রচুর রক্তের দরকার হয়ে পড়ে। সেই সঙ্গে তাদের বহন করে হাসপাতালে নেওয়ার জন্য প্রয়োজন হয় অ্যাম্বুল্যান্সের।

এ দেশে ক্রিকেটাররা যেহেতু ভীষণ জনপ্রিয়, সোশ্যাল সাইটে তাদের লাখ লাখ ফ্যান-ফলোয়ার, তাই তারা নেমে পড়েন অন্য রকম এক যুদ্ধে।

মাশরাফি বিন মর্তুজা, লিটন কুমার দাস, মেহেদি মিরাজরা সোশ্যাল সাইটে রক্তের আবেদন জানান। এই আবেদনে সাড়া দিয়ে অসংখ্য রক্তদাতা ভিড় করেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। আজ ভোরবেলায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দুই বাস ভর্তি করে চলে আসেন রক্ত দিতে। এ ছাড়া অনেক সাধারণ মানুষ, রক্তদাতাদের সংগঠন ঝাঁপিয়ে পড়েছে দুর্ঘটনায় আহতদের জন্য রক্ত দিতে।

ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল, টেস্ট সহ-অধিনায়ক লিটন দাস গত রাতেই লিখেছিলেন, ‘চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সকলকে অনুরোধ করব চট্টগ্রাম মেডিক্যালে অবস্থান করার জন্য। সীতাকুণ্ডের কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়েছে। হতাহতের সংখ্যা অনেক, প্রচুর পরিমাণ রক্তের প্রয়োজন হচ্ছে। দয়া করে যে যেখানে আছেন সাধ্যের মধ্যে থাকলে এক্ষুনি ছুটে যান, আপনার এক ব্যাগ রক্ত হয়তো বাঁচিয়ে দিতে পারে একটি প্রাণ। আপনার পরিচিত রক্তযোদ্ধা বন্ধুদেরও আসার জন্য অনুরোধ করুন। মানুষ মানুষের জন্য। ‘

সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা লিখেছেন, ‘চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনারের ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং যারা আহত হয়েছে তাদের প্রতি রইল সহমর্মিতা। আমি চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করি যেন হতাহতদের সাহায্যে এগিয়ে আসেন। শুনেছি প্রচুর রক্তের প্রয়োজন। সবাই এগিয়ে আসুন। আপনার একটু সহযোগিতা, এক ব্যাগ রক্ত হয়তো বাঁচিয়ে দিতে পারে একটি প্রাণ, হাসি ফোটাতে পারে একটি পরিবারকে। সকলে প্রার্থনা করি। ‘

তাসকিন আহমেদ লিখেছেন, ‘আসুন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত সাধারণ মানুষ, ফায়ার ফাইটার, ডাক্তার, পুলিশসহ উদ্ধারকার্যে অংশ নেওয়া সবার জন্য দোয়া করি। যে যেভাবে পারি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিই। হে আল্লাহ, তুমি আমাদের হেফাজত করো। ‘

এ ছাড়া উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম লেখেন, ‘চট্টগ্রাম থেকে আসা খবরটা শুনে খুব খারাপ লাগছে। আহত-নিহতদের পরিবারের জন্য প্রার্থনা করি। শক্ত থাকো, সীতাকুণ্ড। আল্লাহ আমাদের সবাইকে নিরাপদ রাখুন। ’

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৩:১৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৫ জুন ২০২২

dhakanewsexpress.com |

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
মোঃ মাসুদ রানা হানিফ সম্পাদক