সর্বশেষ সংবাদ

x



খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সমঝোতা, ফখরুলও শপথ নেবেন

মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল ২০১৯ | ১:১৩ পূর্বাহ্ণ | 261 বার

খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সমঝোতা, ফখরুলও শপথ নেবেন
খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সমঝোতা, ফখরুলও শপথ নেবেন

রাজনীতিতে বিএনপি’র নাটকীয় পরিবর্তন ঘটেছে। নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণ না করার বিষয়ে বিএনপি’র নীতি-নির্ধারকরা কঠোর অবস্থানে থাকলেও শেষ মুহূর্তে সেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়েছে।

ইতিমধ্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম ছাড়া বিএনপি’র নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সকল সংসদ সদস্য শপথ নিয়েছেন। শপথ গ্রহণের জন্য নিজের অসুস্থতার কথা উল্লেখ করে স্পিকারের কাছে সময় চেয়েছেন। আর রাজনীতি বিএনপি’র অবস্থান বদলের পেছনে দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জামিনের মুক্তির বিষয়টি কাজ করছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে।



সংসদ অধিবেশনে যোগ দিয়ে বিএনপি’র সংসদ সদস্যদের পক্ষ থেকে বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব মো. হারুনুর রশীদের দেওয়া বক্তব্যে তেমনটি ফুটে উঠেছে। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও সরকারের কঠোর সমালোচনা করেন। দেশের রাজনীতি এখন কঠিন সংকটের মধ্যে আছে দাবি করে তিনি বলেন, তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তিই একমাত্র সংকট উত্তরণে কাজ করতে পারে। সরকার আদালতের ওপর প্রভাব বিস্তার না করলে ৮৩ বছরের এই অসুস্থ বৃদ্ধা, যাকে হুইল চেয়ারে চলতে হয়, তিনি জামিন পাবেন বলে দাবি করেন।

এদিকে বিএনপি থেকে নির্বাচিত ছয় সংসদ সদস্যের মধ্যে পাঁচজনই ইতিমধ্যে শপথ নিয়েছেন। শপথ নেওয়া থেকে বিরত থাকা বগুড়া-৬ আসন থেকে নির্বাচত বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ নিতে সময় চেয়ে আবেদন জানিয়ে স্পিকারের কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন। সেখানে শারীরিক অসুস্থার কারণে শপথ গ্রহণে সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ বিষয়ে স্পিকারের দপ্তরের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য না পাওয়া গেলেও সংসদ সচিবালয়ের একাধিক সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সূত্র আরো জানায়, মঙ্গলবার যেকোনো সময়ে ওই সংসদ সদস্য এই শপথ নিতে পারে। শপথ অনুষ্ঠানের জন্য সংসদ সচিবালয় প্রস্তুত রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সংবিধান অনুযায়ী, কোনো নির্বাচিত ব্যক্তি যদি যৌক্তিক কারণে পরে শপথ গ্রহণের জন্য স্পিকারের কাছে আবেদন করেন, তাহলে সেক্ষেত্রে স্পিকারের সেটি বিবেচনার এখতিয়ার রয়েছে। অবশ্য এক্ষেত্রে ৯০ দিনের মধ্যে শপথ গ্রহণ করতে না পারার কিংবা না নেওয়ার ‘যথার্থ কারণ’ দেখানোর কথাও সংবিধানে স্পষ্ট করে বলা আছে। এ ছাড়াও সংবিধানে বলা আছে, স্পিকারের কাছে সময় বৃদ্ধির এই আবেদনও করতে হবে নির্ধারিত ৯০ দিন অতিবাহিত হওয়ার আগে।

সূত্র জানায়, মির্জা ফখরুল অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে পরে শপথ নেওয়ার কথা জানালেও এর পেছনে রাজনৈতিক কারণ রয়েছে। আর সেটি হচ্ছে দলের চেয়ারপার্সনের মুক্তি। যে কারণে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান শপথ গ্রহণে সম্মতি জানিয়েছে। এর আগে গত ২৫ এপ্রিল বিএনপি আরেক সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান শপথ গ্রহণের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তার সুচিকিৎসা নিশ্চিতের দাবি করেন। এর আগে গত ২৪ এপ্রিল বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরীক গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খানও সংসদে দেওয়া বক্তৃতায় একই দাবি জানান। তিনি চলতি সংসদ বাতিল করে পুনর্নির্বাচন দাবি করেন।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জের বথপালীগাঁও নিজস্ব সম্পত্তির উপর দুসক্রীতি কারীদের হামলা

Development by: webnewsdesign.com