সর্বশেষ সংবাদ

x



এমপি পাপুলকে নিয়ে সর-গরম কুয়েতি পার্লামেন্ট, উত্তেজনা-বক্তব্য এম পি’দের

শুক্রবার, ১৯ জুন ২০২০ | ১১:০১ পূর্বাহ্ণ | 68 বার

এমপি পাপুলকে নিয়ে সর-গরম কুয়েতি পার্লামেন্ট, উত্তেজনা-বক্তব্য এম পি’দের

১৭ জুন কুয়েত নিউজ এজেন্সি ( KUNA ) র বরাত দিয়ে কুয়েত থেকে প্রকাশিত ইংরেজী দৈনিক পত্রিকা আরব টাইমস জানায় , মানবপাচারের দায়ে আটক বাংলাদেশি এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলকে নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়েছে কুয়েতি পার্লামেন্টে।

সংক্ষিপ্ত ওই অধিবেশনে পাপুলককাণ্ড রীতিমতো উতপ্ত বক্তব্য দিয়েছেন কুয়েতের সরকারী ও বিরোধী দলীয় এম পি’রা । স্পিকারকে উদ্দেশ্য করে এমপিরা প্রশ্ন রেখেছেন , একজন মাফিয়া কীভাবে এতোটা সাহস পায়? তারা পাপুলের ভিসা জালিয়াতির নমুনাও হাজির করেছেন। রিমান্ডে পাপুল তার অপকর্মের সহযোগী হিসাবে দেশি-বিদেশি যাদের নাম বলেছেন তা দ্রুত প্রকাশ এবং অভিযুক্তদের পাকড়াওয়ের দাবি জানিয়েছেন কুয়েতের সব এমপিরা।



এম পি’দের মধ্য সবচেয়ে উতপ্ত ও যুক্তিযুক্ত বক্তব্য রেখেছেন তরুন এম পি আবদুল করিম আল কান্ডারী – যিঁনি গত পার্লামেন্টে সরকারের বিভিন্ন অনৈতিক কাজে প্রতিবাদ করে পদত্যাগ করেছিলেন । এবার ওঁনার আসনের জনগন জোড় করে আবার এম পি নির্বচন করান এবং দ্বিগুন ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন । তিঁনি বলেন , এই মাফিয়া ডনের সম্পৃক্ততার ব্যপারে যাদের নাম আসছে তাদের দ্রুত নাম প্রকাশ ও জবাব দিহিতার জন্য মাননীয় স্পিকারের নজরে আনেন ।

পাপুলকাণ্ডে এ পর্যন্ত সাবেক ও বর্তমান ৩ জন এমপি, স্বরাষ্ট্র ও জনশক্তি মন্ত্রণালয়সহ ৭টি মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্তা এবং ৩টি সংস্থায় কর্মরত অন্তত ২১ জন কর্মকর্তার সম্পৃক্ততার তথ্য পেয়েছে কুয়েত সিআই ডি । সন্দেহ ভাজন কিছু বাংলাদেশীদের সম্পৃক্ততার তথ্যও সিআইডি’র তদন্ত কর দেখছেন ।

পাপুলের রিমান্ডের শেষ দিনে একনাগাড়ে ৯ ঘন্টার জিজ্ঞাসাবাদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বড় কর্তাসহ যে দু’জন মধ্যস্থতাকারীকে মোটা অংকের ঘুষ দেয়ার কথা কবুল করেছেন তাদের এরইমধ্যে আটকের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। জানা গেছে , আটক স্বরাষ্ট্রের পদস্থ ওই কর্মকর্তা মূলত পাপুলের অর্থ সরিয়ে নেয়ার কাজটি করে দিয়েছেন।

শুধু তা-ই নয়, পাপুলের স্বীকারোক্তিতে লাক্সারি গাড়ীসহ দামী উপহার গ্রহণকারী হিসাবে পাওয়া ৩ জন কর্মকর্তাকেও তলবের সিদ্ধান্ত হয়েছে। যার মধ্যে গত ১৬ জুন মঙ্গলবার চাকরিচ্যুত জনশক্তি বিভাগের উচ্চপদস্থ একজন কর্মকর্তাও রয়েছেন। এ ছাড়া , পাপুলকে বাঁচাতে অনৈতিক সুবিধা নেয়ার দায়ে অভিযুক্ত সংসদের বর্তমান দুই এমপি সদ্য সমাপ্ত অধিবেশনে যোগ দিয়ে এ ইস্যুতে কথা বলেছেন।

অবশ্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা কুয়েতের উপ-প্রধানমন্ত্রী আনাস আল সালেহ ঐ ২ এম পি’র বক্তব্যের রেশ ধরে সংসদে প্রদত্ত বিবৃতিতে ক্ষোভের সঙ্গে বলেছেন, ভিসা বাণিজ্যে রাষ্ট্র হিসাবে কুয়েতের নিরাপত্তা বা অস্তিত্ব আজ হুমকির মুখে। যাদের নাম এসেছে তাদের বিষয়ে বিস্তৃত তদন্ত হচ্ছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তারা কেউ রেহাই পাবে না। এমপি, মন্ত্রী বিশিষ্টজন হলেও তাদের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।

উল্লেখ্য, কুয়েতে মানবপাচার বিষয়ক সর্ব বৃহৎ এবং চাঞ্চল্যকর ওই মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশি এমপি ‘মাফিয়া বস’ খ্যাত কাজী পাপুলকে কারাগারেই থাকতে হচ্ছে।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  
ঢাকানিউজএক্সপ্রেস ডটকম’র ৭ম বছর উদযাপন উপলক্ষে নিজস্ব কাযার্লয়ে দোয়ার আয়োজন

Development by: webnewsdesign.com