জনপ্রিয় সংবাদ

x

আবরার পথচারী সেতুর নির্মাণ শুরু

বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯ | ১২:৩৭ অপরাহ্ণ | 112 বার

আবরার পথচারী সেতুর নির্মাণ শুরু

রাজধানীর প্রগতি সরণিতে বেপরোয়া বাসচাপায় নিহত বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরীর (২০) নামে পথচারী সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পরদিনই আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্রগতি সরণির সড়কে সেতুর কাজ শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সুপ্রভাত পরিবহণের বাসের চাপায় আবরার যেখানে নিহত হন, ঠিক তার কয়েক গজ দূরেই পথচারী সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে।পুরোদমে চলছে নির্মাণ কাজ। এজন্য বন্ধ রাখা হয়েছে জোয়ার সাহারা বাজারের দিকে যাওয়ার সড়কটি। সেখানে ওভারব্রিজের পাইলিংয়ের কাজ চলছে।

বুধবার নিহত আবরারের বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আরিফ আহমেদ চৌধুরীর পক্ষে ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

এ সময় বিইউপির ভিসি মেজর জেনারেল মোহাম্মদ এমদাদুল বারী, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়াসহ ডিএনসিসি, ডিএমপি ও বিইউপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন শেষে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি আবরারের বাবা ও পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছি। সেখানে না গেলে বোঝা যাবে না যে এটি কতটা হৃদয়বিদারক ঘটনা। এখানকার জনগণ ও ছাত্রছাত্রীদের দাবি- একটি পথচারী সেতুর।আগামী দুই মাসের মধ্যে এ ব্রিজের কাজ শেষ হবে। এ ব্রিজ আবরারের নামে হবে, আর এর উদ্বোধক হবেন তার বাবা।

বিস্ময় প্রকাশ করে মেয়র বলেন, হালকা যানের লাইসেন্স নিয়ে ভারী যান চালাচ্ছিলেন সুপ্রভাত বাসের চালক। এটি কীভাবে সম্ভব? আইন অনুসারে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মঙ্গলবার সকালে প্রগতি সরণি এলাকায় সুপ্রভাত বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী আবরার আহম্মেদ চৌধুরী নিহত হন। পরে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। টানা দুদিন চলে এ বিক্ষোভ। এ সময় তারা ৮ দফা দাবিতে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। তাদের পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রভাত ও জাবালে নূর পরিবহনের রুট পারমিট বাতিল করে চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। বুধবার দ্বিতীয় দিন সন্ধ্যায় আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি ২৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করে।

শিক্ষার্থীদের এসব দাবির বিষয়ে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, দাবি যেগুলো পূরণ করা সম্ভব সেগুলো করা হবে। বাকিগুলো ধীরে ধীরে করা হবে।

মুসলিমদের জন্য চালু হল ‘হালাল পতিতালয়’!

Development by: webnewsdesign.com