সোমবার ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

আপাতত পিপিপি’র মাধ্যমে সরকারি জলমহাল ইজারা প্রদানের কোনো সুযোগ নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০২২ | প্রিন্ট

আপাতত পিপিপি’র মাধ্যমে সরকারি জলমহাল ইজারা প্রদানের কোনো সুযোগ নেই

আপাতত পিপিপি’র মাধ্যমে সরকারি জলমহাল ইজারা প্রদানের কোনো সুযোগ নেই

-প্রতিনিধি

বিদ্যমান পিপিপি আইনের সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ায় পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) আওতায় সরকারি জলমহাল ইজারা প্রদানের কোনো সুযোগ নেই। বর্তমানে কেবল অনলাইনে জলমহাল ইজারার জন্য আবেদন দাখিল করার মাধ্যমেই প্রকৃত মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি জলমহাল ইজারা পেতে পারে।

সম্প্রতি, এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে এই মতামত ব্যক্ত করা হয়। এতে অবহিত করা হয়, ‘বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব আইন, ২০১৫’-এর ধারা ২(১২) অনুযায়ী ‘সরকারি জলমহাল ব্যবস্থাপনা নীতি, ২০০৯’-এর ২৮ অনুচ্ছেদ-এর আওতায় মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সাথে সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে কোনও জলমহাল ইজারা প্রদানের সুযোগ নেই।

উল্লেখ্য, জলমহাল ব্যবস্থাপনা নীতিমালাটি পিপিপি আইন প্রণয়নের পূর্বে করা হয়েছিল। আইনের বিধানাবলি, যেকোনো বিধি ও প্রবিধিমালা কিংবা নীতিমালার উপর প্রাধান্য পায়। ২০০৯ সালে প্রণীত সরকারি জলমহাল ব্যবস্থাপনা নীতিতে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের মাধ্যমে ভূমি মন্ত্রণালয় পরীক্ষামূলকভাবে সারাদেশে স্বল্পসংখ্যক জলমহালের ব্যবস্থাপনার কথা বলা আছে। অন্যদিকে, ২০১৫ সালের পিপিপি আইনে পিপিপি প্রকল্প বলতে নূতন কোন অবকাঠামো নির্মাণ বা পরিচালনা বা উভয় করার পরিকল্পনা, বিদ্যমান কোন অবকাঠামো বিনির্মাণ করার পরিকল্পনা কিংবা দুটিই অথবা কোন অবকাঠামোর সুবিধার সাথে সংযুক্ত নয় এমন সকল পণ্য বা সেবা সরবরাহ সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ড বা কর্মসূচি বোঝায়।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী অনলাইনে জলমহালের আবেদন প্রক্রিয়া উদ্বোধন করেন। প্রচলিত পদ্ধতিতে জলমহাল ইজারার আবেদনে অনেক সময় জলমহাল ইজারা প্রক্রিয়ায় মধ্যস্বত্বভোগী ও দালালদের নানা অপকৌশলের কারণে প্রকৃত মৎস্যজীবীগণ নানা ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হতেন। অনলাইনে জলমহালের আবেদন প্রক্রিয়া চালুর ফলে এখন আর সেই সুযোগ নেই। অনলাইনে জলমহাল আবেদন শুরুর পর জলমহাল সংশ্লিষ্ট অংশীজন থেকে কোনো ধরণের অভিযোগ আসেনি।

প্রসঙ্গত, land.gov.bd ভূমিসেবা কাঠামো থেকে অথবা সরাসরি jm.lams.gov.bd ওয়েব পোর্টালে গিয়ে জলমহাল ইজারার জন্য আবেদন দাখিল করা যাচ্ছে। এছাড়া, জলমহাল ইজারার আবেদন অনলাইনে দাখিল এবং ইজারা প্রক্রিয়ার বিস্তারিত উপর্যুক্ত ওয়েবপোর্টাল থেকেই জানা যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিল, হাওর, বাওর, নিম্ন জলাভূমি ও নদ-নদীতে মৎস্য আহরণের এলাকাকে জলমহাল বলা হয়। এক হিসাবমতে ছোটো-বড় মিলিয়ে দেশের জলমহালের সংখ্যা প্রায় ৩৮ হাজার। এসব ইজারা দিয়ে বছরে প্রায় শতকোটি টাকার রাজস্ব আদায় হয়। বেশ কয়েকটি জলমহাল ঐতিহ্যবাহী ও দর্শনীয় স্থান হিসেবে ইজারা-বিহীন রাখা হয়েছে যেমন, দিনাজপুরের রামসাগর, সিরাজগঞ্জের হুরাসাগর। মাছ সংগ্রহের অভয়াশ্রম ঘোষিত জলমহালের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সুনামগঞ্জের টাংগুয়ার হাওড়, মৌলভীবাজারের হাকালুকি হাওড় ইত্যাদি।

‘উন্নয়ন প্রকল্পে’ ৬ বছরের জন্য ২০ একরের ঊর্ধ্বে সরকারি জলমহাল এবং বিশেষ ধরণের বিবিধ জলমহাল ইজারা আবেদন মন্ত্রণালয় পর্যায়ে ভূমিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ‘সরকারি জলমহাল ইজারা সংক্রান্ত কমিটি’র সভায় উপস্থাপন ও অনুমোদন হয়। ‘সাধারণ আবেদনে’ ৩ বছরের জন্য ২০ একরের ঊর্ধ্বে বদ্ধ সরকারি জলমহালের ইজারা আবেদন ‘জেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটি’র সভায় উপস্থাপন ও অনুমোদন হয়। ‘সাধারণ আবেদনে’ ৩ বছরের জন্য ২০ একর পর্যন্ত বদ্ধ জলমহালের ইজারা আবেদন ‘উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটি’র সভায় উপস্থাপন ও অনুমোদন হয়। এছাড়াও জনস্বার্থে সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে প্রস্তাবিত প্রকল্প পরিকল্পনা অনুযায়ী বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে জলমহাল হস্তান্তর করা হয়।

As of now no scope for leasing out Gov Waterbodies through PPP

There is no scope for awarding Government Waterbody (Jalmahal) lease under the public-private partnership (PPP) as it conflicts with the existing PPP Act. Currently, the bona fide Fisheries cooperative society can get the Jalmahal lease only by applying for the Jamaal lease online.

Recently, the Ministry of Land expressed this opinion in view of an application. According to section 2(12) of the ‘Bangladesh Public-Private Partnership Act, 2015‘, there is no scope for leasing any Jalmahal through a Memorandum of Understanding (MoU) with the Fisheries Cooperative Society under paragraph 28 of the ‘Government Jalmahal Management Policy-2009’.

The Waterbody Management Policy was made before the enactment of the PPP Act. The provisions of law prevail over any rules and regulations or policies. It is said in the ‘Government Jalmahal Management Policy’ formulated in 2009, that the Ministry of Land can manage a small number of waterbodies across the country on an experimental basis through public-private partnerships. On the other hand, in the PPP Act of 2015, a PPP project refers to activities or programs related to the construction or operation of any new infrastructure or a plan to do both, plan to reconstruct any existing infrastructure or both of two or delivery of all those goods or services which are not related to any infrastructure facility.

On February 24, 2022, Land Minister Saifuzzaman Chowdhury inaugurated the online Jalmahal application process. The bona fide fishermen used to face various problems because of various tactics of the middlemen and brokers in the Jalmahal leasing process. Now there is no such opportunity. No complaints were received from any stakeholders after the online Jalmahal application was started.

Now the application for the Jalmahal lease can be filed from the land.gov.bd land service platform or directly from the jm.lams.gov.bd web portal. Apart from this, the application process for the Jalmahal lease and the details of the lease process could be known from the above web portal.

It is to be noted that the area of fishing in Beel, Haor, Baor, low-lying wetlands, and rivers is called Jalmahal (water bodies). According to one estimate, the number of water bodies in the country, big and small, is about 38,000. These leases generate a revenue of about Taka 100 crore a year. A number of Jalmahals have been kept non-leased as traditional and sightseeing places such as Ramsagar in Dinajpur, Hurasagar in Sirajganj. Notable water bodies, which are declared as the fishing sanctuaries, are Tanguar Haor in Sunamganj, Hakaluki Haor in Moulvibazar, etc.

The ‘Development Project’ lease applications for government Jalmahal and special types of Jalmahal of above 20 acres for 6 years are presented and approved at the meeting of the ‘government Jalmahal lease committee’ chaired by the land minister at the ministry level. In the ‘General Application’, the lease application of the government Jalmahal of ‘above 20 acres for 3 years are presented and approved in the meeting of the District Jalmahal Management Committee. In the ‘General Application’, the lease application of the government Jalmahals of above 20 acres for 3 years are presented and approved in the meeting of ‘Upazila Jalmahal Management Committee’. Besides, Water Bodies are handed over to various ministries as per the proposed project plan through memorandum of understanding for public interest.

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৬:২২ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০২২

dhakanewsexpress.com |

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
মোঃ মাসুদ রানা হানিফ সম্পাদক