Rz Rasel
১ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
২ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
২ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
২ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
২ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
২ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
২ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
২ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
২ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
২ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
২ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
২ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
২ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
২ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
২ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
২ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
২ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
২ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
২ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
২ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
২ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
২ দিন পূর্বে
4:50 pm
চলন্ত গাড়ির জানালার বাইরে টপলেস নারী! হঠাৎ…
২ দিন পূর্বে
4:46 pm
বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হলো পুতুলের যৌনপল্লী!(ভিডিও)
২ দিন পূর্বে
4:43 pm
এবার সন্তানের জন্ম দেবে সেক্স ডল ‘সামান্তা’
২ দিন পূর্বে
4:34 pm
দুর্বল হৃদয়ের জন্য নয় এই ৫ মিনিটের ভিডিও !
রাজশাহী-১ আসনে আওয়ামী লীগের গুছানো মাঠ নষ্ট করছে ওরা কারা?  

রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী ) সংসদীয় আসনের নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগের কথিত মনোনয়ন প্রত্যাশা করে একশ্রেণীর বগী নেতা (আক্যামা) স্থানীয় নেতাকমীগণ যাদের অতিথি পাখি বা বসন্তের কোকিল বলে অবহিত করেছে এরা আওয়ামী লীগের সম্ভবনাময় গোছানো রাজনীতির মাঠ নষ্ট করতে মরিয়া হয়ে নানা অপতৎপরতা করেছে বলে গুঞ্জন বইছে। জানা গেছে, রাজনীতিতে সক্রিয় বা মাঠপর্যায়ে তাদের তেমন কোনো জনসমর্থন না থাকলেও জনবিচ্ছিন্ন এসব বগি নেতা বাহারি পোষ্টার, ফেষ্টুন ও ব্যানার দিয়ে সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছে।

কেউ কেউ আবার ইউপি সদস্য নির্বাচিত হবার মতো যোগ্যতা না রাখলেও এমপি হবার খোয়াব দেখে প্রার্থী হবার ঘোষণা দিয়ে মাঠে নেমেছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সাধারণের প্রশ্ন এরা কারা ? তারা কি ? আসলে আওয়ামী লীগকে ভালবাসে না আওয়ামী লীগের চাদর গায়ে দিয়ে নানা সুযোগ-সুবিধা বাগিয়ে নিতে আওয়ামী লীগের ছায়াতলে রয়েছে। এদিকে এসব বগি নেতার বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মী এমনকি সাধারণ মানুষ পর্যন্ত চরম ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে।

এসব বগি নেতাদের ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌরসভা বা উপজেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কোনো সম্পৃক্ততা নাই এমনকি উপজেলা বা জেলা কমিটির সিংহভাগ নেতাকর্মী তাদের বিষয়ে কিছুই জানেন না বা চেনেন না। আবার স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এসব বগি নেতাদের কোনো সম্পৃক্ততা নাই। অথচ এরা হঠাৎ করে এসে জুড়ে বসে নিজেদের আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী দাবি করে মাঠে নেমেছেন। ফলে বগি নেতাদের এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে আওয়ামী লীগের প্রতিপক্ষ তাদের দলীয় কর্মকান্ড চাঙ্গা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এসব কারণে আওয়ামী লীগের বগি নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে তৃণমুল নেতাকর্মীরা দলের হাইকমান্ডের কাছে নালিশ করেছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) সংসদীয় আসনের নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধূরীর বিকল্প তেমন কোনো নেতৃত্ব এখনো গড়ে উঠেনি সম্ভবনাও নাই। তিনি তার নির্বাচনী এলাকার সব মানুষের চাওয়া-পাওয়া বা প্রত্যাশা হয়তো বা পূরুণ করতে পারেননি এটা যেমন সত্য, তেমনি তার দ্বারা নির্বাচনী এলাকার কোনো মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি সেটাও চিরন্তন সত্য।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়া নিয়ে তার সঙ্গে মতবিরোধ থাকতে পারে তবে দলমত নির্বিশেষে নির্বাচনী এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে এখানো তার আকাশচুম্বি জনপ্রিয়তা রয়েছে। গণমানুষের নেতা হিসেবে এখানো এই অঞ্চলের সাধারণ মানুষের মধ্যে তিনি সমান জনপ্রিয়। ইতমধ্যে মাঠপর্যায়ের তৃণমূলের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার জরিপের ভিত্তিত্বে আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড এখানে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে ওমর ফারুক চৌধূরীকে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছেন। তিনি হাইকমান্ডের সবুজ সঙ্কেত পেয়ে নির্বাচনী মাঠে প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে নিরলসভাবে কাজ করে আওয়ামী লীগের পক্ষে ব্যাপক জনমত গড়ে তোলেছেন।

মূলত এখানে তাকে ঘিরেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি আবর্তিত ও গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। অথচ এই অবস্থায় গ্রহণযোগ্যহীন ও জনবিচ্ছিন্ন কিছু বগি নেতা বা বসন্তের কোকিল কোনভাবেই দলীয় মনোনয়ন পাবেন না এমনটা নিশ্চিত জেনেও শুধু দলীয় কোন্দল সৃস্টি ও প্রতিপক্ষ প্রার্থীদের সুযোগ করে দেওয়ার জন্যই তারা রাজনীতির মাঠে প্রচার-প্রচারণার নামে আওয়ামী লীগের সম্ভবনাময় গোছানো মাঠ তছনছ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তারা আওয়ামী লীগের চাদর গায়ে রাজনীতির মাঠে নামলেও গোপণে বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে আঁতাত করে বিএনপি-জামায়াতের বি-টিম হয়ে মাঠে কাজ করছে। তৃষমূলে অভিযোগ আসলে এসব মতলববাজরা কখনই আওয়ামী লীগের ভালো চাইনি এখানো চাইনা।

স্থানীয় রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত, আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাবেন না এটা নিশ্চিত হয়েও প্রার্থী ঘোষণার নেপথ্যে রয়েছে দলীয় প্রার্থীর কাছে থেকে বড় অঙ্কের আর্থিক সুবিদা আদায় করার কৌশল ও মতলব। তাদের আসল উদেশ্যে নির্বাচনের মাঠে নিজেদের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দিয়ে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের কাছে থেকে আর্থিক সুবিধা আদায় করা। আর নির্বাচনের মৌসুম এলেই তাদের তৎপরতা চোখে পড়ে, আবার প্রতিপক্ষের কাছে থেকে সুবিধা আদায় করে সময় মতো উধাও হয়ে যায়,দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সৃষ্টি হয় অযাচিত কোন্দল। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা এসব কারণে এবার বগি নেতাদের রাজনীতির মাঠে প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন।

বগি নেতারা যাতে নেতাকর্মীদের মাঝে কোনো দলীয়কোন্দল সৃষ্টি করতে না পারে। রজাশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, কিছু সময় শিল্প প্রতিমন্ত্রী এবং সাংসদ হিসেবে প্রায় ৮ বছর দায়িত্ব পালন সময়ে ওমর ফারুক চৌধূরী এলাকায় উন্নয়নে অসংখ্য কাজ করেছেন, এসবের মধ্যে দু’একটি কাজ নিয়ে বিতর্ক থাকতেই পারে সেটা স্বাভাবিক। কিšত্ত রাজশাহী অঞ্চলে আওয়ামী লীগের রাজনীতির শক্ত ভিত গড়তে তার যে অসামান্য অবদান রয়েছে, তাকে কখনই খাটো করা বা তা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টির কোনো সুযোগ নাই। এছাড়াও কর্মী ও জনবান্ধব, প্রচার বিমূখ ওমর ফারুক চৌধূরী রাজনৈতিক সহাবস্থান সৃষ্টির জন্য সকলের কাছে সমান জনপ্রিয় তাকে বাদ দিয়ে অন্য কেউ এখানে প্রার্থী হবেন এটা আওয়ামী লীগ বিরোধীরাও বিশ্বাস করে না।

এ ব্যাপারে তানোর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি ও কলমা ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না অভিযোগ করে বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে হঠাৎ করে আবির্ভাব ঘটেছে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বেশকিছু বসন্তের কোকিলের আসলে এরা আওয়ামী লীগের ভালো চাইনা। তারা বিএনপি-জামায়াতের বি-টিম হয়ে আওয়ামী লীগের মধ্যে দলীয় কোন্দল সৃষ্টির চেষ্টা করে চলেছে। ফলে তাদের বিরুদ্ধে দলের নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃস্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরুজ্জামান (রবু) মিঞা বলেন, স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধূরীর জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে একটি মহল বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে আঁতাত করে এসব বসন্তের কোকিল রুপী কিছু নেতাদের দিয়ে আওয়ামী লীগের মধ্যে দলীয়কোন্দ্বল সৃষ্টি অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। তিনি বলেন বসন্তের কোকিল খ্যাত এসব নেতা অবৈধ অর্থ পাবার মোহে বিএনপি-জামায়াত মতাদর্শী কিছু লোকজন জমায়েত ও কথিত সভা-সমাবেশের মাধ্যমে তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন।

তিনি বলেন, তাদের এই আশা কখনই পূরুণ হবে না আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ তা হতে দিবে না। এ ব্যাপারে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও তানোর আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা শরীফ খাঁন প্রচন্ড ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার কথা যেসব বগি নেতা কথিত সভা সমাবেশ করছেন তাদের আমরাই চিনিনা। তাহলে সাধারণ জনগণ কিভাবে তাদের চিনবেন।