Rz Rasel
১ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
১ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
১ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
১ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
১ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
১ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
১ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
১ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
১ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
১ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
১ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
১ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
১ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
১ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
১ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
১ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
১ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
১ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
১ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
১ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
১ দিন পূর্বে
4:50 pm
চলন্ত গাড়ির জানালার বাইরে টপলেস নারী! হঠাৎ…
১ দিন পূর্বে
4:46 pm
বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হলো পুতুলের যৌনপল্লী!(ভিডিও)
১ দিন পূর্বে
4:43 pm
এবার সন্তানের জন্ম দেবে সেক্স ডল ‘সামান্তা’
১ দিন পূর্বে
4:34 pm
দুর্বল হৃদয়ের জন্য নয় এই ৫ মিনিটের ভিডিও !
১ দিন পূর্বে
4:29 pm
ক্যামেরার সামনের সেই সব অভিজ্ঞতা কেমন, জানালেন পর্নতারকা!
জানেন? মৃত্যুর মুহূর্তে মানুষ কী দেখতে পায়

সেই আদিকাল থেকে মানুষের মৃত্যু নিয়ে রহস্যের যেন শেষ নেই। কী হয় মৃত্যুর পূর্বমুহূর্তে, কেমন হয় মৃত্যুপথযাত্রীদের অনুভূতি, আদৌ তাঁদের সামনে স্বর্গ-নরকের কোনো দৃশ্য ভেসে ওঠে কী—এমন নানা প্রশ্ন আছে মানুষের মনে, যার জবাব মেলেনি কোনোদিন। তবু মানুষ ভাবে, কারণ মৃত্যু নিয়ে মানুষের রয়েছে অদম্য কৌতূহল।

সম্প্রতি নিকি মরগান নামের একজন সেবিকা (নার্স) মৃত্যুর আগমুহূর্তে মানুষ আসলে কী বলে বা করে, সে সম্পর্কে নিজের সারা জীবনের অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন। নিকি দীর্ঘদিন ব্রিটেনের রয়্যাল স্টোক বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে কাজ করেছেন। পেশাগত কারণেই মৃত্যুর আগমুহূর্তে মানুষের অভিব্যক্তি বা বাক্যালাপ তিনি নিজের চোখের সামনে দেখেছেন। সেই অভিজ্ঞতার আলোকেই তিনি দাবি করেছেন, অনেক রোগীই নাকি মৃত্যুর আগমুহূর্তে স্বর্গ অথবা নরকের দৃশ্য দেখতে পান।

উদাহরণ দিতে গিয়ে নিকি বলেন, ‘বেশ কয়েক বছর আগে মৃত্যুর আগমুহূর্তে এক ব্যক্তি প্রায় সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন। সে সময় তিনি বলেন, মরতে তাঁর একটুও ভ্য় লাগছে না। কারণ, চোখের সামনে তিনি স্বর্গ দেখতে পাচ্ছেন।’ তাঁর পেশাজীবন এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে বলে জানান নিকি।

এ ছাড়া মৃত্যুর আগে অনেকেই টের পান, তাঁর জীবন শেষ হতে চলেছে। কেউ মৃত্যুর আগাম খবর অনেক আগেই পেয়ে যান। কেউ পান কয়েক মাস কিংবা কয়েক ঘণ্টা আগে। নিকি বলেন, এক রোগী মৃত্যুর কিছুদিন আগে জানান, কিছুদিন পরেই জীবনের ৮০তম বছরে পা দেবেন তিনি। বলেন, ‘আমি জন্মদিনের উৎসব করব। তারপরই পৃথিবী ছেড়ে চলে যাব।’ বাস্তবেও ঘটেছিল এমনটাই।

নিকি জানান, মৃত্যুর আগে অনেক রোগীই তাঁর প্রিয় খাবার খেতে চান। দেখা করতে চান পরিবারের প্রিয় মানুষের সঙ্গে। অনেকেই শেষ সময় কাটাতে চান পোষা প্রাণীদের সঙ্গে।

এমন এক ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে নিকি এক বৃদ্ধ দম্পতির ঘটনা বলেন। তিনি বলেন, মৃত্যুর কিছুদিন আগে এক রোগী তাঁর বৃদ্ধ স্ত্রীকে পাশে চান। আবদার মেটাতে বিছানার পাশে তাঁর স্ত্রীর থাকার ব্যবস্থা করা হয়। সেখানে ওই দম্পতি হাত ধরে একসঙ্গে গান গাইতেন। এর ১০ দিনের মধ্যেই স্বামী-স্ত্রী দুজনেরই মৃত্যু হয়।