Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
6:08 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশপত্নীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকার চাঁদা দাবি\ গ্রেফতার-৩
০ দিন পূর্বে
6:04 pm
সিন্ডিকেট মুক্ত ছাত্রলীগ হবে জাতিরজনকের প্রকৃত ছাত্রলীগ
২ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
৩ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
৩ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
৩ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
৩ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
৩ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
৩ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
৩ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
৩ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
৩ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
৩ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
৩ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
৩ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
৩ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
৩ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
৩ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
৩ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
৩ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
৩ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
৩ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
৩ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
৩ দিন পূর্বে
4:50 pm
চলন্ত গাড়ির জানালার বাইরে টপলেস নারী! হঠাৎ…
৩ দিন পূর্বে
4:46 pm
বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হলো পুতুলের যৌনপল্লী!(ভিডিও)
রোহিঙ্গা নিয়ে ঢাকার পাশেই দাঁড়াল দিল্লি

নির্যাতনের মুখে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থানকেই সমর্থন জানালো ভারত। ঢাকা সফরের প্রথম দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাসভবনে গিয়ে তাঁর সঙ্গে বৈঠকে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ রবিবার বলেছেন, ‘‘রোহিঙ্গারা মায়ানমারের বাসিন্দা।

তাঁদের দেশে ফিরিয়ে নিতেই হবে। ’’

মিয়ানমারের রাখাইন (সাবেক আরাকান) প্রদেশে রোঙিঙ্গা সমস্যা নিরসনে কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবি করেছে বাংলাদেশ। সুষমা শেখ হাসিনাকে জানান, ভারতও তাই চায়।

রোহিঙ্গাদের সব ধরনের মানবিক সাহায্য দেওয়ার পাশাপাশি সন্ত্রাসবাদের মোকাবিলায় দু’দেশই যে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি নিয়ে চলতে বদ্ধপরিকর, সে কথাও এদিন ফের ঘোষণা করেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ঢাকায় জয়েন্ট কনসালটেটিভ কমিশন-এর বৈঠকে যোগ দিতে সুষমার এই সফর হলেও, দু’দেশই তাকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। এদিন দুপুরে বিশেষ বিমানে ঢাকা পৌঁছলে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলি তাঁকে স্বাগত জানান। এরপর হোটেলে এসে দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রায় এক ঘণ্টা বৈঠকে বসেন। পরে বিকেলে সুষমা যান প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ‘গণভবন’-এ। সেখানে শেখ হাসিনা তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান।

সুষমার শরীরের খোঁজ খবর নেন। এরপর তাঁদের আনুষ্ঠানিক বৈঠকে অনেকটা সময় ধরেই কথা হয় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিয়ে। সুষমা বলেন, এই সমস্যায় দিল্লি সর্বতোভাবে ঢাকার পাশে থাকবে। ভারতও চায় সব রোহিঙ্গা শরণার্থীকে মায়ানমার ফিরিয়ে নিক। জাতিসংঘের মতো আন্তর্জাতিক মঞ্চগুলিও এ ব্যাপারে চাপ তৈরি করুক।

সুষমা বলেন, মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গাদের জাতিগত সমস্যার নিরসন না হলে শরণার্থী সমস্যাও রয়ে যাবে। কফি আনান কমিশনের সুপারিশ মেনেই সে সমস্যা সে কাজ সম্ভব। বাংলাদেশও আগে এই দাবি করেছে।

বাংলাদেশ সরকারের হাতে ১৯৭১-এর যুদ্ধে ব্যবহৃত ২৫টি অস্ত্র, একটি হেলিকপ্টার ও দু’টি ট্যাঙ্ক তুলে দেন সুষমা। বাংলাদেশের দু’টি জাদুঘরে এগুলি রাখা হবে। প্রতীকী হিসাবে শেখ হাসিনার হাতে একটি ৩৮ ক্যালিবারের পিস্তল তুলে দেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।