Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
11:46 pm
এনজিও’র কিস্তির ভয়ে বাড়ি ছেড়েছে মসহুর’রা
০ দিন পূর্বে
11:39 pm
কোটালীপাড়ায় প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মাথা কেটে হাসপাতালে, মিথ্যা মামলা
০ দিন পূর্বে
11:25 pm
গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় কৃষকের মৃত্যু
০ দিন পূর্বে
11:18 pm
লুটেরা সরকার সবখানেই ব্যর্থ : বি চৌধুরী
০ দিন পূর্বে
11:12 pm
কালীগঞ্জে ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু
০ দিন পূর্বে
11:07 pm
মুনাফার লোভের আগুনে শ্রমিকরা পুড়ে মরছে
০ দিন পূর্বে
10:57 pm
বিভিন্ন দাবিতে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি
০ দিন পূর্বে
10:54 pm
মিশরের মসজিদে জঙ্গি হামলা, নিহতের সংখ্যা ২৩৫
০ দিন পূর্বে
10:51 pm
‘হেফাজত কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না ’
০ দিন পূর্বে
10:47 pm
গোদাগাড়ীতে কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য কর্মী সামসুল ১২ দিন থেকে নিখোঁজ
০ দিন পূর্বে
10:37 pm
গোদাগাড়ীতে কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য কর্মী সামসুল ১২ দিন থেকে নিখোঁজ
০ দিন পূর্বে
10:27 pm
গোদাগাড়ীতে হিরোইনসহ চাউল ভর্তি ট্রাক আটক
০ দিন পূর্বে
10:08 pm
হাসপাতালের ওষুধ চুরি করে বিক্রির চেষ্টায় স্টোরকীপার মোশারফের বিরুদ্ধে অভিযোগ
০ দিন পূর্বে
9:34 pm
বঙ্গবন্ধুর ভাষণ এবং প্রধানমন্ত্রীর সততার স্বীকৃতি দেশকে অন্য উঁচ্চতায় নিয়ে গেছে
০ দিন পূর্বে
9:27 pm
পঞ্চগড়ে দুঃস্থ্য মহিলাদের মাঝে বিনামুল্যে সেলাই মেশিন প্রদান
০ দিন পূর্বে
9:23 pm
লক্ষীপুর জেলা যুবলীগের কমিটি গঠন, সভাপতি-টিপু, সম্পাদক-নোমান
০ দিন পূর্বে
9:20 pm
ইয়াবা আগ্রাসনে হুমকির মুখে যুব সমাজ!
০ দিন পূর্বে
9:15 pm
‘গুড লাক’ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়’, ফেসবুকে তোলপাড়
০ দিন পূর্বে
9:12 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে বিনা মূল্যে চক্ষু চিকিৎসা সেবা ক্যাম্প
০ দিন পূর্বে
8:55 pm
৭ মার্চকে জাতীয় দিবস ঘোষণার দাবিতে পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভূক্তির দাবিতে র‌্যালী
০ দিন পূর্বে
8:52 pm
ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ট্রাকের হেলপার ও ড্রাইভার নিহত
০ দিন পূর্বে
5:14 pm
ট্রেন-ট্রাকের সংঘর্ষে গাজীপুরে ট্রেনচালক নিহত,আহত কয়েকজন
০ দিন পূর্বে
5:07 pm
বারী সিদ্দীকির মরদেহ নেত্রকোনায়
০ দিন পূর্বে
5:01 pm
‘বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিতে জনগণের জীবনযাত্রায় মামুলি প্রভাব পড়বে’
০ দিন পূর্বে
4:57 pm
সরকারকে হুমকি দিয়ে লাভ নেই : বাণিজ্যমন্ত্রী
অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার পরও চাকরিতে বহাল মারজান

কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার এটিটিআর মারজান আক্তার নিজ ইচ্ছায় অফিসে আসা-যাওয়া করেও নিয়মিত বেতন-ভাতা উত্তোলন করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারজান আক্তার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়ন তহসিল অফিসে ৩ মাস চাকরি করার পর অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে জেলা প্রশাসনের এক অফিসে আদেশে সাময়িক ভাবে চাকরি থেকে বরখাস্ত হন।

দীর্ঘ ১ বছর সরকারি চাকরিবিধি লংঘন করে ঘোলপাশা ইউনিয়ন তহসিল অফিসে হাজিরা না দিয়ে বুড়িচং উপজেলা সদরে বসবাস করতে থাকে। পরবর্তীতে জেলা প্রশাসনের এক নির্দেশে জগমোহনপুর তহসিল অফিসে বদলি হন। সেখানেও এক দিন মাত্র অফিসে গিয়ে উপজেলা সদরে সহকারি কমিশনার ভূমির নিকট যোগদানপত্র জমা দেয়ার কথা বলে অফিস ত্যাগ করেন এবং দীর্ঘ ৬ মাস উক্ত অফিসে হাজিরা না দিলেও বেতন ভাতা পেয়েছেন।

বর্তমানে উপজেলার আলকরা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এটিটিআর মারজান আক্তার অফিস করেন নিজ ইচ্ছায়। আবার হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর দিয়ে চলে যান নিজ গন্তব্যে। কখনোবা আগাম স্বাক্ষর করে অফিস ত্যাগ করেন। ঘোলপাশা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যোগদেন ২০১৩ইং সালে। তিন মাস পর অফিসে যাওয়া-আসা করেনি ফলে স্বাক্ষর করেনি হাজিরা খাতায়। ঘোলাপাশা ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আবুল খায়ের জানান, আমি যোগদানের পূর্বেই মারজান আক্তার জগমোহনপুর তহসিল অফিসে যোগদান করেছে। আমি যতদূর জানি ঘোলপাশা ইউনিয়ন তহসিল অফিসের কর্মচারিদের হাজিরা খাতায় মারজান আক্তারের মাত্র ৩ মাস স্বাক্ষল আছে। পরবর্তীতে সে আর অফিসে আসেননি। ২০১৬ইং সালের ১৬ জুন বদলি জনিত কারণে ৩নং কালিকাপুর ইউনিয়নের জগমোহনপুর ইউনিয়ণ ভূমি অফিসে যোগদান করলেও হাজিরা খাতায় বা সাদা খাতায় ২০১৭ সালের ১৭ জুন পর্যন্ত স্বাক্ষর করেনি মারজান আক্তার। বর্তমান কর্মস্থল আলকলা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যোগদান করার পর ২/৮/২০১৭ইং পর্যন্ত হাজিরা বহিতে কোন রূপ স্বাক্ষর করেননি। বর্তমানে অফিসে গিয়ে স্বাক্ষর করে অফিস ত্যাগ করেন। কোন কোন সময় অগ্রীম স্বাক্ষর করে অফিসে হাজির থাকেন না।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেড রবিউল হাসান বিষয়টি অবহিত হলে ইউএলও সিরাজুল ইসলামকে মোবাইলফোনে ডেকে পাঠান। সিরাজুল ইসলাম উপজেলা ভূমি অফিসে হাজির হয়ে ঘটনার সত্যতা আছে মর্মে সহকারি কমিশনার ভূমিকে অবহিত করেন। পরবর্তীতে তিনি আলকরা ইউনিয়ন ভূমি অফিস পরিদর্শন করেন। পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের সত্যতা আছে মর্মে জানান। উক্ত বিষয়ে মারজান আক্তারকে প্রশ্ন করা হলে সে জানান, আমি ২১ আগস্ট ২০১৭ইং তারিখের হাজিরা খাতায় আগাম স্বাক্ষর দিয়ে ময়মনসিংহ ইসলামি ব্যাংকে ব্যক্তিগত কাজে গিয়েছিলাম।

সরজমিনে অনুসন্ধানকালে জানা যায়, মারজান আক্তার ঠিকমত অফিসে হাজির থাকে না। আসলেও হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে চলে যান। সরকারি চাকরিবিধির তোয়াক্কা না করে, অফিস না করে, সরকারি বেতন ভাতা সহ যাবতীয় সুবিধাধি ভোগ করছেন। গত ১০ অক্টোবর বুচিড়ং উপজেলা সদরে মনা মিয়ার বাড়ী মায়ের দোয়া ভবনে থেকে বেপরোয়া চলাচলের কারণে স্থানীয় লোকজন অতিষ্ট হয়ে প্রতিবাদ করলে বেলা আনুমানকি ৫ টা ২০ ঘটিকার সময় কাউকে কিছু না বলে তার সাবেক স্বামির যাবতীয় মালামাল নিয়ে অজ্ঞাত স্থানের উদ্দেশ্যে চলে যান। মারজান আক্তার জনৈক কবিরাজের সাথে সম্পৃক্ত থেকে কবিরাজির কথা বলে চান্দিনা থানার প্রবাসি জনৈক হুমায়ূনের সাথে ০১৭৫৬২৭৯০= নাম্বারে বউ সেজে কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ৮ লক্ষাধিক টাকা আত্মাসাৎ করেছেন বলে হুমায়ূন কবির জানান। ৯ বছর বয়সি এক কন্যা সন্তানের জননি মারজান কোন কোন সময় একজন প্রফেসর হিসেবে বিভিন্নস্থানে পরিচয় দিয়ে থাকেন। বর্তমানে জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের সাথের সুসম্পর্ক আছে বলে ৫/৭ লাখ টাকা দিতে পারলে চাকরি নিশ্চিত বলে নিয়োগ বাণিজ্যের গুরুতর অভিযোগ রয়েছে মারজানের বিরুদ্ধের। একজন সরকারি কর্মচারি পুরো চার বছরকাল নিয়মিত অফিস না করে, হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর না করে, এখনো বহাল তবিয়তে আছেন কি করে?