Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
11:46 pm
এনজিও’র কিস্তির ভয়ে বাড়ি ছেড়েছে মসহুর’রা
০ দিন পূর্বে
11:39 pm
কোটালীপাড়ায় প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মাথা কেটে হাসপাতালে, মিথ্যা মামলা
০ দিন পূর্বে
11:25 pm
গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় কৃষকের মৃত্যু
০ দিন পূর্বে
11:18 pm
লুটেরা সরকার সবখানেই ব্যর্থ : বি চৌধুরী
০ দিন পূর্বে
11:12 pm
কালীগঞ্জে ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু
০ দিন পূর্বে
11:07 pm
মুনাফার লোভের আগুনে শ্রমিকরা পুড়ে মরছে
০ দিন পূর্বে
10:57 pm
বিভিন্ন দাবিতে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি
০ দিন পূর্বে
10:54 pm
মিশরের মসজিদে জঙ্গি হামলা, নিহতের সংখ্যা ২৩৫
০ দিন পূর্বে
10:51 pm
‘হেফাজত কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না ’
০ দিন পূর্বে
10:47 pm
গোদাগাড়ীতে কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য কর্মী সামসুল ১২ দিন থেকে নিখোঁজ
০ দিন পূর্বে
10:37 pm
গোদাগাড়ীতে কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য কর্মী সামসুল ১২ দিন থেকে নিখোঁজ
০ দিন পূর্বে
10:27 pm
গোদাগাড়ীতে হিরোইনসহ চাউল ভর্তি ট্রাক আটক
০ দিন পূর্বে
10:08 pm
হাসপাতালের ওষুধ চুরি করে বিক্রির চেষ্টায় স্টোরকীপার মোশারফের বিরুদ্ধে অভিযোগ
০ দিন পূর্বে
9:34 pm
বঙ্গবন্ধুর ভাষণ এবং প্রধানমন্ত্রীর সততার স্বীকৃতি দেশকে অন্য উঁচ্চতায় নিয়ে গেছে
০ দিন পূর্বে
9:27 pm
পঞ্চগড়ে দুঃস্থ্য মহিলাদের মাঝে বিনামুল্যে সেলাই মেশিন প্রদান
০ দিন পূর্বে
9:23 pm
লক্ষীপুর জেলা যুবলীগের কমিটি গঠন, সভাপতি-টিপু, সম্পাদক-নোমান
০ দিন পূর্বে
9:20 pm
ইয়াবা আগ্রাসনে হুমকির মুখে যুব সমাজ!
০ দিন পূর্বে
9:15 pm
‘গুড লাক’ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়’, ফেসবুকে তোলপাড়
০ দিন পূর্বে
9:12 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে বিনা মূল্যে চক্ষু চিকিৎসা সেবা ক্যাম্প
০ দিন পূর্বে
8:55 pm
৭ মার্চকে জাতীয় দিবস ঘোষণার দাবিতে পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভূক্তির দাবিতে র‌্যালী
০ দিন পূর্বে
8:52 pm
ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে ট্রাকের হেলপার ও ড্রাইভার নিহত
০ দিন পূর্বে
5:14 pm
ট্রেন-ট্রাকের সংঘর্ষে গাজীপুরে ট্রেনচালক নিহত,আহত কয়েকজন
০ দিন পূর্বে
5:07 pm
বারী সিদ্দীকির মরদেহ নেত্রকোনায়
০ দিন পূর্বে
5:01 pm
‘বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিতে জনগণের জীবনযাত্রায় মামুলি প্রভাব পড়বে’
০ দিন পূর্বে
4:57 pm
সরকারকে হুমকি দিয়ে লাভ নেই : বাণিজ্যমন্ত্রী
‘আক্রান্ত হলে বিশ্ব মানচিত্র থেকে মুছে যাবে যুক্তরাষ্ট্র’

উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে বিদ্বেষপূর্ণ নীতি পরিত্যাগ না করা পর্যন্ত পরমাণু অস্ত্র হ্রাসের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসবে না পিয়ংইয়ং। জাতিসংঘকে এমনটাই জানাল উত্তর কোরিয়া।

জাতিসংঘের পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক এক বৈঠকে জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার উপ-রাষ্ট্রদূত কিম ইন-রিয়ং বলেন, “কোরীয় উপদ্বীপের পরিস্থিতি বিস্ফোরণের পর্যায়ে রয়েছে এবং যে কোনও মুহূর্তে পরমাণু যুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে। ”

তিনি আরও বলেন, “আমেরিকার বিদ্বেষী নীতি ও পরমাণু হামলার হুমকি পুরোপুরি কেটে না যাওয়া পর্যন্ত আমরা কোনও অবস্থায় আমাদের পরমাণু অস্ত্র ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে আলোচনার টেবিলে বসব না। ”

উত্তর কোরিয়ার উপ-রাষ্ট্রদূত বলেন, একটি পরিপূর্ণ পরমাণু শক্তিধর দেশে পরিণত হওয়ার চূড়ান্ত দরজা অতিক্রম করেছে তার দেশ। এর অর্থ হচ্ছে উত্তর কোরিয়া এখন যে কোনও সময় পরমাণু বোমার হামলা চালাতে পারে।

এর আগে দেশটির প্রেসিডেন্ট কিম জং উন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, “আমেরিকার গোটা মূল ভূখণ্ড এখন আমাদের হামলার আওতায় রয়েছে। কাজেই মার্কিন সরকার যদি উত্তর কোরিয়ার এক ইঞ্চি ভূমিতেও আগ্রাসন চালানোর ধৃষ্টতা দেখায় তাহলে সে পৃথিবীর কোনো প্রান্তে গিয়েই আমাদের শাস্তিমূলক পদক্ষেপ থেকে বাঁচতে পারবে না। আক্রান্ত হলে বিশ্ব মানচিত্র থেকে মুছে যাবে যুক্তরাষ্ট্র। ”