Rz Rasel
১ দিন পূর্বে
1:29 pm
শাকিব খানের বয়স কত?
১ দিন পূর্বে
1:22 pm
প্রশ্নপত্র ফাঁস জাতির মেরুদণ্ড ধ্বংসের আলামত
১ দিন পূর্বে
1:20 pm
ভার্জিন বার্থ ! যৌন মিলন ছাড়াই মা হছেন নারীরা
১ দিন পূর্বে
1:18 pm
নেতাকর্মীদের ধৈর্যহারা না হওয়ার আহ্বান মির্জা ফখরুলের
১ দিন পূর্বে
1:10 pm
সকালে যৌন মিলন ডায়াবেটিক নিয়ন্ত্রনে সহায়ক
১ দিন পূর্বে
1:07 pm
মেয়েরা মিলনের জন্য পাগল হয়ে ওঠে কেন জানেন?
১ দিন পূর্বে
1:04 pm
বিয়ের আগে যৌন মিলন করলে কী হয়?
১ দিন পূর্বে
12:53 pm
যৌন জিবনে স্ত্রীর সাথে মধুর মিলন ও যৌন উত্তেজিত করার পদ্দতি
১ দিন পূর্বে
12:39 pm
সাপের সঙ্গে যুদ্ধে নেমেছে জাকার্তা!
১ দিন পূর্বে
12:36 pm
মৃত ব্যক্তির শুক্রাণু থেকে জন্ম নিল যমজ শিশু
১ দিন পূর্বে
12:33 pm
রাজধানীতে ইউলুপের বিম ভেঙে পড়ল রাস্তায়
১ দিন পূর্বে
12:29 pm
অাইসিইউতে অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ
১ দিন পূর্বে
12:27 pm
ভালোবাসায় মুগ্ধ মিম
১ দিন পূর্বে
12:22 pm
টি-টোয়েন্টির পর ওয়ানডে সিরিজও আফগানিস্তানের
১ দিন পূর্বে
12:20 pm
আমার আর শাকিবের ক্ষেত্রে উল্টোটা হলো: অপু
১ দিন পূর্বে
12:18 pm
‘বাঁচাও বাঁচাও’ বলছিলাম, কারণ আমি ডুবে যাচ্ছিলাম!
১ দিন পূর্বে
12:17 pm
খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপির গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচি
১ দিন পূর্বে
12:16 pm
খালেদা না পারলেও নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি: কাদের
১ দিন পূর্বে
12:13 pm
আরো তিন স্মার্টফোন আনছে অ্যাপেল
১ দিন পূর্বে
12:12 pm
যখন-তখন সেলফি, চিকিৎসার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের!
১ দিন পূর্বে
12:10 pm
এবার প্লেবয় মডেলের সাথে ট্রাম্পের সম্পর্ক নিয়ে তোলপাড়!
১ দিন পূর্বে
12:05 pm
অর্থের অভাবে আটকে গেছে সালমানের ছবির শ্যুটিং!
১ দিন পূর্বে
12:02 pm
নারী পুলিশকে প্রেমের প্রস্তাব যুবকের, অতঃপর…
১ দিন পূর্বে
11:59 am
ভালোবাসা দিবসে স্ত্রীর পিছনে লাঠি নিয়ে দৌড়াচ্ছেন স্বামী!
১ দিন পূর্বে
11:58 am
যে কারণে অনেকে ফেসবুকে আকর্ষণীয় ছবি দিতে আগ্রহী!
ঝিনাইদহ সরকারী বালক বিদ্যালয়ে সাড়ে ২৪ লাখ টাকার অডিট আপত্তি

ঝিনাইদহ সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়ে ৮ খাতের সাড়ে ২৪ লাখ টাকার অডিট আপত্তি দেওয়া হয়েছে। বিধি বহির্ভুত ভাবে স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার অধিকারী সরকারের বিভিন্ন ফান্ডের টাকা তছরুপ করেছেন। তার এই লুটপাটে ঝিনাইদহ সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষক জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় ও রাজস্ব অধিদপ্তরের এক হিসাব নিরীক্ষন প্রতিবেদন থেকে এ সব তথ্য জানা গেছে।

এ ছাড়া ঝিনাইদহ জেলা শিক্ষা অফিসার মোকছেদুল ইসলামের এক তদন্ত প্রতিবেদনে বালক বিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষককে প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার অধিকারীর দোসর হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অডিট সেল সুত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহ সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার অধিকারী দায়িত্ব পালনকালে ৮টি খাতের ২৪ লাখ ৪৫ হাজার ৬৭৪ টাকার দুর্নীতি করেন। এ বছরের পহেলা মার্চ স্থানীয় ও রাজস্ব অধিদপ্তরের উপ পরিচালক শামীম আহমদ উজ্জল আপত্তির বিষয়টি জানিয়ে চিঠি দেন। ২৬২৯/এলএএস-২/নিঃপ্রঃ/১৯৯৩-১৫/১৭৩ নাম্বারের স্মারকে উল্লেখ করা হয়, ঝিনাইদহ সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়ে পরিপত্র বহিভুর্ত সমাজকল্যান খাত থেকে ১ লাখ ৭৭ হাজার ৩১৫ টাকা, ম্যাগাজিন না ছাপিয়ে ওই খাত থেকে ২ লাখ টাকা, রেডক্রিসেন্ট ফি বাবাদ ১ লাখ ২০ হাজার ৮৫০ টাকা, আয়কর ও উৎস করা না কাটায় রাজস্ব ক্ষতি ৭১ হাজার ৮১৮ টাকা, চুক্তি ব্যাতিত টিফিন সরবরাহ থেকে ১৬ লাখ ৫০ হাজার ৬৯১ টাকা, ল্যাবরেটরী যন্ত্রপাতি খাতে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও অনিয়মিত ম্যাগাজিন তহবিল থেকে ৭৫ হাজার টাকার অনিয়ম করা হয়।

মন্ত্রনালয় থেকে নিরীক্ষা প্রতিবেদনের আলোকে প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমারকে ব্রডশিটে জাবা দিতে বলেন। তিনি জবাব দিলেও তা গ্রহন করেনি মন্ত্রনালয়। এদিকে প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার অধিকারী মাগুরা সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়ে বদলী হওয়ার পরও দুর্নীতির মাধ্যমে তছরুপ করা টাকা সমন্বয় করতে স্কুলের দিবা প্রহরী ওসমান আলীর সহায়তায় রাধের আঁধারে স্কুলে ঢুকে জাল ভাউচার তৈরী করতে থাকেন। দিবা প্রহরী এই ওসমানকে বিধি বহির্ভুত ভাবে অফিস সহকারীর পদে বসানো হয়।

এদিকে বদলী হওয়া একজন প্রধান শিক্ষকের রাতে অফিস করার বিষয়টি বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানতে পেরে স্কুলের সব তালা পরিবর্তন করেন। অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার অধিকারী জাল ভাউচার তৈরীর মাধ্যমে হিসাব সমন্বয় করে ব্রডশিটের জবাব দিলেও গত ১৬ আগষ্ট শা-৩/১ এ অডিট-১৬০/২০০২/৭০৭ নং স্মারকে টাকা রিফান্ড করতে তাগাদা পত্র দেন। শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অডিট ও আইন শিাখার উপ-সচিব অজিত কুমার ঘোষ সাক্ষরিত ওই চিঠিতে দ্রুত হিসাব সমন্বয় করে ব্রডশিটে জবাব দাখিলের নির্দেশ দেন।

এই চিঠিরও জবাব দিয়েছেন সাবেক প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার অধিকারী। অভিযোগ উঠেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক ক্ষমতাধর ব্যক্তির নাম ভাঙ্গিয়ে সুনীল কুমার অধিকারী স্কুলের বিভিন্ন ফান্ডের টাকা লোপাটসহ সরকারী গাছ বিক্রি করে দেন। ভর্তি নিয়েও তিনি জালিয়াতি করেন। দিতেন কোচিং বানিজ্যে উৎসাহ। এ সব বিষয় জানতে পেরে ঝিনাইদহের াবেক জেলা প্রশাসক সফিকুল ইসলাম সুনীল কুমারকে বদলীর সুপারিশ করেন।

কিন্তু তার খুটোর জোর থাকায় বদলী হয়নি। অবশেষে দুর্নীতি ও অনিয়মের অপবাদ মাথায় নিয়ে আড়াই মাস আগে তিনি বদলী হন মাগুরা জেলায়। অডিট আপত্তির বিষয়টি নিয়ে সুনীল কুমার অধিকারী সরকারী টাকা তছরুপের কথা অস্বীকার করে বলেন, অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে যেমন মন্ত্রনালয় থেকে অডিট করে, ঝিনাইদহ সরকারী উচ্চ বালক বিদালয়েও সেমনটি করেছে। সঠিক ভাবে প্রতিষ্ঠান চালাতে হলে কিছুটা অনিয়ম হয়। আমি ব্রডশিটে জবাব দিয়েছি। কিন্তু তাদের পচ্ছন্দ হয়নি। আমি আবারো দিয়েছি। তিনি বলেন এ ভাবে বারবার দিতে দিতে এক সময় মন্ত্রনালয় নীরব হয়ে যাবে। তখন আর জবাবের প্রয়োজনীয়তা থাকবে না বলে তিনি জানান।