Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
5:12 pm
নীতিমালা লঙ্ঘন করে ফসলি জমিতে পুকুর খনন
০ দিন পূর্বে
5:11 pm
তানোরে পুলিশের নারী কেলেঙ্কারি, তোলপাড়!
০ দিন পূর্বে
5:03 pm
মুক্তির আগেই ইন্টারনেটে ফাঁস গুরলীনের বেডরুম দৃশ্য
০ দিন পূর্বে
5:02 pm
এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় হট লুকে ক্যাটরিনা
০ দিন পূর্বে
4:47 pm
জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম সম্মেলনের সমাপনী
০ দিন পূর্বে
3:31 pm
জিয়া পরিবারকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি
০ দিন পূর্বে
2:29 pm
কুমিল্লায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে বাসের ধাক্কা: শিশুসহ নিহত ৪
০ দিন পূর্বে
12:01 am
মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণের পূর্বাভাস সোমবার সকাল পর্যন্ত
১ দিন পূর্বে
9:53 pm
আইপিএল চলাকালীন সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ রাখার প্রস্তাব ভারতের !
১ দিন পূর্বে
9:51 pm
কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রিজার্ভ ডে না থাকায় ক্ষুব্ধ ক্রিকেটপ্রেমীরা !
১ দিন পূর্বে
9:28 pm
নিজ উদ্যোগেই কর দিচ্ছে কম বয়সীরা : অর্থমন্ত্রী
১ দিন পূর্বে
9:25 pm
সবাইকে নিয়মের কথা বলে নিজেই অনিয়ম করেন
১ দিন পূর্বে
9:19 pm
‘৯৯৯’ জরুরি সেবায় টোল ফ্রি সার্ভিস,উদ্বোধন করবেন জয়
১ দিন পূর্বে
9:18 pm
কলকাতায় ম্যারাডোনা
১ দিন পূর্বে
9:14 pm
মৌলিক অধিকার বাস্তবায়নের মাধ্যমে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা পাবে
১ দিন পূর্বে
9:04 pm
প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজ ছাত্রী ও বাবাকে মারধরের অভিযোগ,যুবক গ্রেফতার
১ দিন পূর্বে
8:57 pm
টেস্ট অধিনায়কত্ব হারালেন মুশফিক ; নতুন অধিনায়ক সাকিব
১ দিন পূর্বে
8:54 pm
বিমানে শ্লীলতাহানির শিকার ‘দঙ্গল কন্যা’ !
১ দিন পূর্বে
8:39 pm
ঢাকা-চট্টগ্রাম জেলা সিএনজি শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ৮ দফা দাবিতে স্মারকলিপি পেশ
১ দিন পূর্বে
5:55 pm
বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের নবীনবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠান
১ দিন পূর্বে
5:49 pm
অপো এফ৫ ৬জিবি’র প্রি-বুকিং-এ আশাতীত সাফল্য
১ দিন পূর্বে
5:47 pm
আধূনিক বাগমারার রুপকার আবু হেনা পছন্দের শীর্ষে
১ দিন পূর্বে
5:43 pm
গোদাগাড়ীতে বিএসএফের গুলীতে দুই গরু ব্যবসায়ী নিহত
১ দিন পূর্বে
5:40 pm
লক্ষীপুরে মানবাধিকার দিবস পালিত
১ দিন পূর্বে
5:37 pm
আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসে সিরাজগঞ্জে জেলা বিএনপির মানববন্ধন
যে বাজে অভ্যাসগুলো সহকর্মীর কাছে আপনাকে বিরক্তিকর করে তুলছে

 

কর্মক্ষেত্রে অনেক সময় আমরা এমন কিছু কাজ অথবা আচরণ করে ফেলি যা খুবই অনুচিত। নিজ বাসস্থান এবং কর্মক্ষেত্রে আচরণ এবং কাজের ধরণের মাঝে কিছু পার্থক্য থাকা উচিৎ। কিন্তু এই সাধারণ ব্যাপারটি অনেকেই বুঝতে চান না।

কর্মক্ষেত্রে বহু মানুষের সাথে মিলেমিশে কাজ করতে হয় বলে নিজের মধ্যে সহনশীলতা, ভদ্রতা বোধ এবং বিবেচনা বোধ বৃদ্ধি করতে হয়। কারণ, শুধুমাত্র ভালো কাজ দ্বারা একজন ভালো কর্মজীবী হওয়া যায় না, নিজেকে ও নিজের ব্যক্তিত্বকেও সেখানে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে হয় সকলের কাছে।

অনেকেই কর্মক্ষেত্রে এমন কিছু কাজ অথবা আচরণ প্রতিদিন করে থাকেন, যার ফলে নিজের অজান্তেই তারা সহকর্মীদের কাছে একজন অপছন্দের মানুষ হয়ে উঠছেন। নিজেকে এমন অবস্থা থেকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য জানতে হবে কী কী কাজ এবং কেমন আচরণ কর্মক্ষেত্রে করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

১/ মোবাইলে অনেক জোরে কথা বলা

অফিসে কাজের মাঝে অনেকেই এই ভুল কাজটি করেন। নিজের ব্যক্তিগত অথবা অফিসের প্রয়োজনে মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় খুব উচ্চস্বরে কথা বলেন। এতে করে তার আশেপাশের অন্যন্য সহকর্মীরা যে বিরক্ত হতে পারেন বা তাদের কাজে ব্যঘাত ঘটতে পারে এই ব্যাপারটি তারা একেবারেই ভুলে যান।

২/ নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অনেক বেশী আলোচনা করা

অফিস অথবা নিজ কর্মক্ষেত্র সম্পুর্ণভাবে একটি ফর্মাল জায়গা। সেখানে কাজের সুবাদে বিভিন্ন স্থানে, বিভিন্ন মানসিকতার মানুষ একসাথে কাজ করেন। নিজের ব্যক্তিগত জীবন এবং কর্মক্ষেত্রের জীবনকে অনেকেই একসাথে করেন ফেলেন। যার ফলাফল স্বরূপ, নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সহকর্মীদের সাথে অনেক বেশী আলোচনায় করা শুরু করে দেন। যেটা কখনোই উচিৎ নয়। অনেকেই এতে বিব্রতবোধ করতে পারেন।

৩/ মিটিং এ অনেক দেরী করে উপস্থিত হওয়া

হতে পারে খুব ছোটখাটো কোন বিষয়ে মিটিং, তবুও অফিসিয়াল কোন মিটিংএ দেরী করে উপস্থিত হওয়াটা খুব বাজে একটি স্বভাব। এতে করে মিটিংএ উপস্থিত অন্যান্য সকলে বিরক্ত বোধ করেন।

৪/ খুব কড়া সুগন্ধি ব্যবহার করা

কে কী ধরণের সুগন্ধি ব্যবহার করবেন এটা সম্পূর্ণভাবে তার নিজের ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে এখানেও একটি ‘কিন্তু’ রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে কাজ করার সময় অনেকজন মানুষের একসাথে কাজ করতে হয়। সেখানে খুব কড়া এবং ঝাঁঝালো কোন সুগন্ধি ব্যবহার করে উপস্থিত হলে অনেকেরই শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা অথবা মাইগ্রেনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। যে কারণে, কর্মক্ষেত্রে ব্যক্তিগত সুগন্ধি ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে।

৫/ নিজের কাজের টেবিল অগোছালো রাখা

এই বাজে অভ্যাসটা অনেকের মাঝেই দেখা যায়। বিশেষ করে পুরুষ কর্মীদের মাঝে এর প্রবণতা বেশী থাকে। কাজের টেবিলে বিভিন্ন ধরণের ফাইল, প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র খুবই অগোছালো ভাবে রাখার এই বদঅভ্যাসটি কর্মক্ষেত্রে নিজের ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে খুব নেতিবাচক ধারণা তৈরি করে দেবার জন্য যথেষ্ট।

৬/ নিজের কাজের টেবিলে খাওয়াদাওয়ার ফলে টেবিল অপরিষ্কার হওয়া

অনেকেই নিজের টেবিলেই নানা রকম খাওয়াদাওয়া করেন, যার ফলে টেবিল অপরিষ্কার হয়ে যায়। কিন্তু এরপরে টেবিল পরিষ্কার করা নিয়ে তাদের মাঝে কোন ধরণের মাথাব্যথা একেবারেই দেখা যায় না। এতে করে নিজের টেবিলে তো বটেই আশেপাশের সহকর্মীদের টেবিলেও পিঁপড়ার সংক্রমণ দেখা দিয়ে থাকে। যেটা যথেষ্ট বিরক্তিকর একটি ব্যপার।

৭/ অন্য সহকর্মীর ব্যক্তিগত ব্যাপারে বেশি আগ্রহী হয়ে ওঠা

প্রতিটা মানুষের নিজস্ব একটা গণ্ডি থাকে, যার বাইরে যাওয়াটা কিছু ক্ষেত্রে একেবারেই অনুচিত। কাজের খাতিরে সহকর্মীর সাথে ভালো পরিচিতি গড়ে উঠতে পারে। তবে তার জন্যে অহেতুক তার ব্যক্তিগত জীবনের প্রতি অনেক বেশী আগ্রহী হয়ে ওঠাটা খুব অনুচিত একটি কাজ। সকলের ‘পারসোনাল স্পেস’ এর প্রতি সম্মান রাখাটা বাঞ্ছনীয়।

৮/ অন্যকে দোষারোপ করা

ভুল সকলের হয়, সেক্ষেত্রে ভুল নিজেরও হতে পারে। এতে দোষের কিছু নেই। বরং নিজের ভুল স্বীকার করে ভুল শোধরানোর চেষ্টা করলে ক্ষতি নয় বরং নিজেরই তাতে লাভ। সহজ এই ব্যাপারটি অনেকেই বুঝতে চান না। নিজের কাজের কোন ভুল চালাকি করে অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দেবার চেষ্টা করেন। যেটাকে খুবই বাজে আচরণ হিসেবে অভিহিত করা হয়।

৯/ খুব ছোটখাটো ব্যাপারে বারবার সাহায্য চাওয়া

একজন মানুষ সকল বিষয়ে কখনোই পারদর্শী হবেন না। এটা খুব স্বাভাবিক একটি ব্যাপার। তবে নিজ কর্মক্ষেত্রে কাজ করার সুবাদে নিজের কাজগুলো আরো নিখুঁতভাবে করার জন্যে নানান ধরণের কাজ শেখা এবং জানা উচিৎ। এক্ষেত্রে অনেকেই খুব ছোট এবং নগন্য কোন কাজের জন্য সবসময় অন্যের উপর নির্ভরশীল হয়ে থাকেন। যেটা অন্য সহকর্মীর মনে বিরক্তির উদ্রেক তৈরি করে দেয়। কারণ, ব্যস্ততা সকলেরই থাকে।

সূত্র: Huffpost , The Telegraph