Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
10:46 pm
কুমিল্লার সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সড়ক টমছম ব্রিজ টু কোটবাড়ি!
০ দিন পূর্বে
10:42 pm
কুমিল্লা মহানগর জামায়াত আমীর গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ
০ দিন পূর্বে
9:56 pm
থেমে নেই নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্য!
০ দিন পূর্বে
6:01 pm
দুদকের মামলায় বগুড়ায় লতিফ সিদ্দিকী
০ দিন পূর্বে
5:58 pm
অধিনায়ক কোহলি হলেও মাঠের নেতা ধোনি!
০ দিন পূর্বে
5:57 pm
মেসির চোখে রোনালদোর চেয়ে এগিয়ে নেইমার!
০ দিন পূর্বে
5:46 pm
উসমানের বোলিং তোপে লণ্ডভণ্ড শ্রীলঙ্কা
০ দিন পূর্বে
5:45 pm
আবার শিরোনামে গেইল
০ দিন পূর্বে
5:42 pm
কূটনৈতিকভাবেই সব সমস্যা মোকাবেলা করব: প্রধানমন্ত্রী
০ দিন পূর্বে
5:40 pm
শেরপুরে নব্য জেএমবি সদস্য ৫ দিনের রিমান্ডে
০ দিন পূর্বে
5:36 pm
আইএস মুক্ত হলো ফিলিপাইনের মারাওয়ি, ৯২০ জঙ্গি নিহত
০ দিন পূর্বে
5:33 pm
কক্সবাজারের সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন
০ দিন পূর্বে
5:31 pm
ঝিনাইদহে জেলা ব্র্যান্ডিং, কিশোর বাতায়ন প্রতিযোগীতা বিষয়ে তথ্য অফিসের সংবাদ সম্মেলন
০ দিন পূর্বে
5:28 pm
ঝিনাইদহে জাতীয় স্যানিটেশন মাস অক্টোবর ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত
০ দিন পূর্বে
5:19 pm
রিয়ালের টানা দ্বিতীয় জয়
০ দিন পূর্বে
5:17 pm
ইউরোপের ‘গোল্ডেনবয়’ এমবাপো
০ দিন পূর্বে
5:13 pm
চুনারুঘাটে আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন, ড. নাজমানারা খানম
০ দিন পূর্বে
5:09 pm
লক্ষীপুরে জেলা ব্র্যার্ন্ডি ও কিশোর বাতায়ন বিষয়ক প্রেস ব্রিফিং
০ দিন পূর্বে
4:59 pm
গোটা বিশ্বে কার কত পরমাণু অস্ত্রের মজুদ রয়েছে!
০ দিন পূর্বে
4:56 pm
মাদার মেরির ছবিতে মিয়া খলিফা, ইন্সটাগ্রামে বিতর্ক
০ দিন পূর্বে
4:47 pm
একটি কাজ হৃদরোগের ঝুঁকি কমিয়ে আনবে অর্ধেক!
০ দিন পূর্বে
4:41 pm
র‌্যাব সদস্যদের দরবার শরীফ লুটের মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পেছাল
০ দিন পূর্বে
4:33 pm
শিশুদের স্মার্টঘড়িতে ট্র্যাকিং থেকে হ্যাকিং ঝুঁকি!
০ দিন পূর্বে
4:30 pm
সোনালী ব্যাংকের ডিজিএমসহ পাঁচ কর্মকর্তা গ্রেফতার
০ দিন পূর্বে
4:23 pm
বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াতেই হবে : জর্ডানের রানি
ডেটিং করুন বউ’র সঙ্গে, কমবে ডিভোর্স

স্বামী-স্ত্রী মাসে অন্তত একবার রাত্রীকালীন ‘ডেটিং’ করলে ‘ডিভোর্স’-এর প্রবণতা কমে যাবে। ক্যালিফোর্নিয়ার ‘ম্যারেজ ফাউন্ডেশন’-এর ডিরেক্টর হ্যারি বেনসন এবং ক্যান্টারবেরি-র ‘লিঙ্কন ইউনিভার্সিটি’-র ‘সোশ্যাল রিসার্চ’-এর অধ্যাপক স্টিফেন ম্যাকের নেতৃত্বে গবেষণার ফলাফলে এ কথা বলা হয়েছে।

প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে ৯৯৬৯ জন দম্পতির উপরে এই গবেষণা চলে। এর মধ্যে ১১ শতাংশকে সপ্তাহে একবার করে ‘ডেট নাইট’-এ পাঠানো হয়। ৩০ শতাংশ দম্পতিকে মাসে একবার করে ‘ডেট নাইট’-এ পাঠানো হয়। ২৩ শতাংশ দম্পতিকে অনিয়মিতভাবে একবার করে ‘ডেট নাইট’-এ পাঠানো হয়। আর ৩৬ শতাংশ দম্পতিকে কখনই ‘ডেট নাইট’-এ পাঠানো হয়নি।

দেখা যায় যারা প্রত্যেক মাসেই নিয়মিত একদিন করে ‘ডেট নাইট’ করেছেন তাদের বিবাহিত জীবন সুখের এবং টিকে আছে। কিন্তু বাকি যারা ‘ডেট নাইট’-এ গেছেন বা যাননি, তাদের সম্পর্কের মধ্যে দূরত্ব কোনোভাবেই কমেনি।

গবেষকদের মতে, স্বামী-স্ত্রী রাতে ‘ডেটে’ বেরোলে তারা যাবতীয় ক্লান্তি থেকে সরে আসতে পারেন। স্রেফ স্বামী-স্ত্রী একে অন্যের হাত ধরে ‘ডেট নাইট’-এ গেলে পরস্পরের উপরে ভাল করে মনোনিবেশ করতে পারেন।

একে অন্যের অনুভূতিকে অনুভব করার সময় পান। ফলে দুজনের মধ্যে হারিয়ে যাওয়া মানসিক সম্পর্কটা আবার ফিরে আসে। যার জেরে অনেক তিক্ততা কেটে যায়।

‘ডেট নাইট’ মানে কোথায় যাবেন? হতে পারে সিনেমা দেখা বা রেস্তোরাঁয় নৈশভোজ। এমনকি পরস্পরের হাত ধরে এদিক-সেদিক ঘুরে বেড়ানোও যেতে পারে। পার্কের বেঞ্চে বসে আড্ডায় মেতে যাওয়াও হতে পারে। এমনটিই বলেছেন গবেষক দল।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এবং তার স্ত্রী মিশেল ওবামাও মাসে অন্তত কয়েকবার নিজেরাই একে-অপরের হাত ধরে ‘ডেট নাইট’-এ যান। তাদের এই ‘ডেট নাইট’-এ সঙ্গে দুই মেয়ে কখনও থাকে না।