Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
10:46 pm
কুমিল্লার সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সড়ক টমছম ব্রিজ টু কোটবাড়ি!
০ দিন পূর্বে
10:42 pm
কুমিল্লা মহানগর জামায়াত আমীর গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ
০ দিন পূর্বে
9:56 pm
থেমে নেই নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্য!
০ দিন পূর্বে
6:01 pm
দুদকের মামলায় বগুড়ায় লতিফ সিদ্দিকী
০ দিন পূর্বে
5:58 pm
অধিনায়ক কোহলি হলেও মাঠের নেতা ধোনি!
০ দিন পূর্বে
5:57 pm
মেসির চোখে রোনালদোর চেয়ে এগিয়ে নেইমার!
০ দিন পূর্বে
5:46 pm
উসমানের বোলিং তোপে লণ্ডভণ্ড শ্রীলঙ্কা
০ দিন পূর্বে
5:45 pm
আবার শিরোনামে গেইল
০ দিন পূর্বে
5:42 pm
কূটনৈতিকভাবেই সব সমস্যা মোকাবেলা করব: প্রধানমন্ত্রী
০ দিন পূর্বে
5:40 pm
শেরপুরে নব্য জেএমবি সদস্য ৫ দিনের রিমান্ডে
০ দিন পূর্বে
5:36 pm
আইএস মুক্ত হলো ফিলিপাইনের মারাওয়ি, ৯২০ জঙ্গি নিহত
০ দিন পূর্বে
5:33 pm
কক্সবাজারের সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন
০ দিন পূর্বে
5:31 pm
ঝিনাইদহে জেলা ব্র্যান্ডিং, কিশোর বাতায়ন প্রতিযোগীতা বিষয়ে তথ্য অফিসের সংবাদ সম্মেলন
০ দিন পূর্বে
5:28 pm
ঝিনাইদহে জাতীয় স্যানিটেশন মাস অক্টোবর ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত
০ দিন পূর্বে
5:19 pm
রিয়ালের টানা দ্বিতীয় জয়
০ দিন পূর্বে
5:17 pm
ইউরোপের ‘গোল্ডেনবয়’ এমবাপো
০ দিন পূর্বে
5:13 pm
চুনারুঘাটে আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন, ড. নাজমানারা খানম
০ দিন পূর্বে
5:09 pm
লক্ষীপুরে জেলা ব্র্যার্ন্ডি ও কিশোর বাতায়ন বিষয়ক প্রেস ব্রিফিং
০ দিন পূর্বে
4:59 pm
গোটা বিশ্বে কার কত পরমাণু অস্ত্রের মজুদ রয়েছে!
০ দিন পূর্বে
4:56 pm
মাদার মেরির ছবিতে মিয়া খলিফা, ইন্সটাগ্রামে বিতর্ক
০ দিন পূর্বে
4:47 pm
একটি কাজ হৃদরোগের ঝুঁকি কমিয়ে আনবে অর্ধেক!
০ দিন পূর্বে
4:41 pm
র‌্যাব সদস্যদের দরবার শরীফ লুটের মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পেছাল
০ দিন পূর্বে
4:33 pm
শিশুদের স্মার্টঘড়িতে ট্র্যাকিং থেকে হ্যাকিং ঝুঁকি!
০ দিন পূর্বে
4:30 pm
সোনালী ব্যাংকের ডিজিএমসহ পাঁচ কর্মকর্তা গ্রেফতার
০ দিন পূর্বে
4:23 pm
বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াতেই হবে : জর্ডানের রানি
সোনালী সপ্ন থেকে হতাশায় কৃষক

গ্রামাঞ্চল এখন পাট কাটা, জাগ দেয়া এবং পাট শুকানো নিয়ে সোনালী সপ্ন দেখছে চাষীরা। জেলার হাট-বাজারে নতুন পাট উঠতে শুরু করেছে। তবে শুরুতেই দাম নিয়ে চাষীদের রয়েছে হতাশা। বিভিন্ন হাট-বাজারে দেখা যায়, প্রতি মণ পাট বিক্রি হচ্ছে ১৫’শ থেকে ১৭’শ টাকায়। এবার মোটামুটি অনুকূল আবহাওয়া থাকায় পাটের বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু শেষের দিকে বন্যার পানিতে কিছুটা ক্ষতি হলেও, আবার উপকারও হয়েছে। পাট জাগ দিতে হাতের কাছেই পানি আর পানি। চাষীরা জানান, জমিতে পানি থাকায় পাটগাছ কাটা শ্রমিকদের অনেক বেশি মজুরি দিতে হচ্ছে। বেলকুচি চরের কৃষক আব্দুল মান্নান বলেন, এই মৌসুমে আমি ৪ বিঘা জমিতে পাট লাগিয়েছি। ফলনও ভালো হয়েছে। আমি এ পর্যন্ত হাটে দুইবার পাট বিক্রি করেছি। পাটের দাম কম হওয়ায় বিপাকে পড়েছি। কামারখন্দ ইউনিয়নের দমদমা গ্রামের কৃষক মজিদ আলী বলেন, এবার মুষলধারে বৃষ্টি ও বন্যার পানির কারণে কিছুটা সমস্যায় পড়েছিলাম। তবে পাটের ফলন ভালো হওয়ায় তেমন কোনো সমস্যা হয়নি। পাট কেটেছি জাগও দিয়েছি। আশা করছি ভালো দামও পাবো। সীমান্ত বাজারের পাট ব্যবসাযী রফিকুল ইসলাম জানান, নতুন পাট বাজারে উঠতে শুরু করেছে। বিভিন্ন কল-কারখানায় এবার পাটের মূল্য নির্ধারণ করেছে প্রতি মণ ১৭’শ থেকে ১৭৫০টাকা। মোকাম থেকে ভালোমানের পাট কিনতে হয় প্রতি মণ ১৭০০টাকায়। আবার কেয়ারিং তো আছেই। তিনি আরো জানান, এবার নতুন পাটের আমদানি বেশি হবে। এদিকে পাট ব্যবসায়ীরা জানান, এ মৌসুমের শুরুতেই পাটের আমদানি বেশি দেখা যাচ্ছে। আগাম চাষের পাট হাট-বাজারে উঠতে শুরু করেছে। এর মধ্যেই আমরা বোঝা থেকে শুরু করে ট্রাক লোড আনলোড করছি। এখান থেকে বিভিন্ন জায়গার গাড়িতে পাট বোঝাই দিচ্ছি। এ অঞ্চলের চাষীরা খুব যত্ন নিয়ে ধোয়ার কাজ করে। এতে করে অন্যান্য জেলার চেয়ে এ জেলার পাটের মান ও রং ভালো। সিরাজগঞ্জ জেলা কৃষি অফিসার মোঃ আরশেদ আলী জানান, চলতি মৌসুমে জেলায় লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২১হাজার ২২০হেক্টর, সেখানে আবাদ হয়েছে ১৯ হাজার ৭০০হেক্টর। তবে এবার পাটের উৎপাদন ভালো হয়েছে। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সবসময় মনিটরিং করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ জেলার পাটের মান ভালো বলে জানালেন এই কর্মকর্তা।