Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
10:46 pm
কুমিল্লার সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সড়ক টমছম ব্রিজ টু কোটবাড়ি!
০ দিন পূর্বে
10:42 pm
কুমিল্লা মহানগর জামায়াত আমীর গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ
০ দিন পূর্বে
9:56 pm
থেমে নেই নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্য!
০ দিন পূর্বে
6:01 pm
দুদকের মামলায় বগুড়ায় লতিফ সিদ্দিকী
০ দিন পূর্বে
5:58 pm
অধিনায়ক কোহলি হলেও মাঠের নেতা ধোনি!
০ দিন পূর্বে
5:57 pm
মেসির চোখে রোনালদোর চেয়ে এগিয়ে নেইমার!
০ দিন পূর্বে
5:46 pm
উসমানের বোলিং তোপে লণ্ডভণ্ড শ্রীলঙ্কা
০ দিন পূর্বে
5:45 pm
আবার শিরোনামে গেইল
০ দিন পূর্বে
5:42 pm
কূটনৈতিকভাবেই সব সমস্যা মোকাবেলা করব: প্রধানমন্ত্রী
০ দিন পূর্বে
5:40 pm
শেরপুরে নব্য জেএমবি সদস্য ৫ দিনের রিমান্ডে
০ দিন পূর্বে
5:36 pm
আইএস মুক্ত হলো ফিলিপাইনের মারাওয়ি, ৯২০ জঙ্গি নিহত
০ দিন পূর্বে
5:33 pm
কক্সবাজারের সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন
০ দিন পূর্বে
5:31 pm
ঝিনাইদহে জেলা ব্র্যান্ডিং, কিশোর বাতায়ন প্রতিযোগীতা বিষয়ে তথ্য অফিসের সংবাদ সম্মেলন
০ দিন পূর্বে
5:28 pm
ঝিনাইদহে জাতীয় স্যানিটেশন মাস অক্টোবর ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত
০ দিন পূর্বে
5:19 pm
রিয়ালের টানা দ্বিতীয় জয়
০ দিন পূর্বে
5:17 pm
ইউরোপের ‘গোল্ডেনবয়’ এমবাপো
০ দিন পূর্বে
5:13 pm
চুনারুঘাটে আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন, ড. নাজমানারা খানম
০ দিন পূর্বে
5:09 pm
লক্ষীপুরে জেলা ব্র্যার্ন্ডি ও কিশোর বাতায়ন বিষয়ক প্রেস ব্রিফিং
০ দিন পূর্বে
4:59 pm
গোটা বিশ্বে কার কত পরমাণু অস্ত্রের মজুদ রয়েছে!
০ দিন পূর্বে
4:56 pm
মাদার মেরির ছবিতে মিয়া খলিফা, ইন্সটাগ্রামে বিতর্ক
০ দিন পূর্বে
4:47 pm
একটি কাজ হৃদরোগের ঝুঁকি কমিয়ে আনবে অর্ধেক!
০ দিন পূর্বে
4:41 pm
র‌্যাব সদস্যদের দরবার শরীফ লুটের মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পেছাল
০ দিন পূর্বে
4:33 pm
শিশুদের স্মার্টঘড়িতে ট্র্যাকিং থেকে হ্যাকিং ঝুঁকি!
০ দিন পূর্বে
4:30 pm
সোনালী ব্যাংকের ডিজিএমসহ পাঁচ কর্মকর্তা গ্রেফতার
০ দিন পূর্বে
4:23 pm
বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াতেই হবে : জর্ডানের রানি
ভুলেও এভাবে প্রস্তাব করবেন না ভালোবাসার মানুষকে

পছন্দের মানুষটির কাছে প্রস্তাব রাখার অভিনব সব ফন্দিফিকির বের করেন অনেকেই। ওই বিশেষ মুহূর্তটায় মনের মানুষটিকে চমকে দেওয়াই প্রধান লক্ষ্য থাকে তাঁদের। কখনও চায়ের কাপে আঙটি রেখে, কখনও আবার রাস্তায় অজস্র মানুষের সামনে হঠাৎ হাঁটুগেড়ে বসে প্রস্তাব রেখেছেন, এমন তো বহুবার শোনা গিয়েছে। কিন্তু এমন কখনো শুনেছেন কি যে প্রিয় মানুষটিকে প্রস্তাব দিয়ে চমকে দিতে পুলিশি হেনস্তার পথ বেছে নিয়েছেন কেউ? হ্যাঁ, এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, সম্প্রতি এমনটাই ঘটিয়েছেন ইউক্রেনের এক যুবক যিনি পেশায় কাস্টমস অফিসার। বলা যায়, প্রেমিকার সামনে প্রস্তাব রাখার জন্য যে পথ বেছে নিলেন তিনি, তা অভিনব বটে, সঙ্গে ভয়াবহও। ঘটনার সূত্রপাত হয় অনেকটা এইভাবে। ওই যুবকের প্রেমিকা তাঁর মায়ের সঙ্গে পোল্যান্ড থেকে ফিরছিলেন। ইউক্রেনের বিমানবন্দরে নামামাত্র কাস্টমস অফিসাররা তাঁদের ধরে নিয়ে যান এবং সঙ্গে থাকা ব্যাগের তল্লাশি শুরু করেন। ব্যাগ থেকে দুটো ছোট প্যাকেট উদ্ধার হয়, যা নিষিদ্ধ হেরোইন বলে দাবি করেন ওই কাস্টমস অফিসাররা। যুবতী অবশ্য বার বার বলতে থাকেন যে জীবনে তিনি কোনোদিন ড্রাগে হাত দেননি এবং জানেন না কীভাবে ওই প্যাকেট তাঁর ব্যাগে এলো। এরপর কাস্টমস অফিসাররা তাঁকে কারাদণ্ডের হুমকি দেন এবং এও বলেন স্বীকার না করলে ফল আরও খারাপ হতে পারে। একরকম যখন ভয়ে ভাবনায় দিশেহারা ওই যুবতী, ঠিক তখনই কাস্টমস অফিসারদের পেছন থেকে গোলাপের তোড়া হাতে বেরিয়ে আসেন তাঁর প্রেমিক। যুবতী তাঁকে দেখে এতটাই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন যে বাকরুদ্ধ হয়ে যান কয়েকমুহূর্তের জন্য। সেই সময়ে ওই ব্যক্তি তাঁর মনের মানুষটির সামনে হাঁটু গেড়ে বসে প্রস্তাব রাখেন। প্রেমিকা সেই প্রস্তাব গ্রহণ করেছেন বলেই জানা গিয়েছে। কিন্তু তিনি নাকি দীর্ঘক্ষণ প্রেমিকের সঙ্গে কথা বন্ধ রেখেছিলেন। ঘটনাটি শোনার পরে অনেকে মন্তব্য করেছেন, এই পদ্ধতিতে প্রস্তাব রেখে ওই যুবক ঠিক কাজ করেননি। দুর্বল হৃদয়সম্পন্ন কেউ হলে সংজ্ঞাহীনও হয়ে যেতে পারতেন ভয়ে। তাই আপনি প্রস্তাব রাখার অভিনব ফন্দি বের করলেও এই পথটা আবার বেছে নেবেন না যেন। হিতে বিপরীতও ঘটতে পারে।