Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
6:08 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশপত্নীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকার চাঁদা দাবি\ গ্রেফতার-৩
০ দিন পূর্বে
6:04 pm
সিন্ডিকেট মুক্ত ছাত্রলীগ হবে জাতিরজনকের প্রকৃত ছাত্রলীগ
২ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
৩ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
৩ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
৩ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
৩ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
৩ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
৩ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
৩ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
৩ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
৩ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
৩ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
৩ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
৩ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
৩ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
৩ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
৩ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
৩ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
৩ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
৩ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
৩ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
৩ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
৩ দিন পূর্বে
4:50 pm
চলন্ত গাড়ির জানালার বাইরে টপলেস নারী! হঠাৎ…
৩ দিন পূর্বে
4:46 pm
বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হলো পুতুলের যৌনপল্লী!(ভিডিও)
মমতার নিরংকুশ বিজয়, অমীমাংসিত ইস্যুর নিষ্পত্তি হবে তো?

mamata1433609669
পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে বিজয়ী হয়েছে মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস। নির্বাচনে বিধানসভার ২৯৪ আসনের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস পেয়েছে ২১১ আসন। তৃণমূল কংগ্রেসের এ বিজয় নানাভাবে মূল্যায়ন করবেন সেখানকার বিশ্লেষকরা। তবে তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি এ বড় বিজয়ের মধ্য দিয়ে ভারতীয় রাজনীতিতে নতুন ইতিহাস গড়েছেন, যা বলার অপেক্ষা রাখে না। এমন বাঁধভাঙা বিজয়ের মধ্যেও মমতা সরকারের সাবেক ৮ মন্ত্রী ভোটযুদ্ধে হেরে গেছেন। এতে একটি বিষয় পরিষ্কার- ভোটাররা কারও ব্যক্তিগত অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়টি মেনে নেয়নি। এ থেকে রাজনীতিকদের নিশ্চয়ই অনেক কিছু শেখার রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে একসময় দীর্ঘদিন বামফ্রন্টের শাসন প্রতিষ্ঠিত ছিল। গত নির্বাচনে ভোটযুদ্ধে বিজয়ী হয়ে তৃণমূল কংগ্রেস বাম শাসন যুগের অবসান ঘটায়। তৃণমূল কংগ্রেসের এবারের বিজয় আগের বিজয়ের ধারাবাহিকতা হলেও তা ভিন্নমাত্রা পেয়েছে নিরংকুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভের কারণে। ‘সারদা-নারদা’ কেলেংকারি নিয়ে মমতা ব্যানার্জি কিছুটা কোণঠাসা থাকলেও দেখা যাচ্ছে, ভোটের বাক্সে তিনি আঁচড় লাগতে দেননি। মমতা ব্যানার্জির এ বিজয়কে প্রয়াত কিংবদন্তী চিকিৎসক মুখ্যমন্ত্রী বিধান চন্দ্র রায়ের বিজয়ের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে। ১৯৬২ সালে বিধান চন্দ্র রায়ের নেতৃত্বে বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস পেয়েছিল ২০৪ আসন। উল্লেখ্য, ২০১১ সালের নির্বাচনে মমতা ব্যানার্জি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গড়ে তুললেও এবার এককভাবে নির্বাচন করেছেন। সংবাদমাধ্যমে পরিবেশিত তথ্য অনুযায়ী এবারের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কিছু অনিয়ম, বিশৃংখলা ও গোলোযোগ সৃষ্টি হলেও বড় ধরনের কোনো সহিংস ঘটনা ঘটেনি। সেখানকার নির্বাচন কমিশন কোনো বুথেই পুনঃনির্বাচনের নির্দেশ দেয়নি। বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে ভাষা-কৃষ্টি ও সংস্কৃতিসহ অনেক বিষয়েই মিল রয়েছে। বলা চলে, দুই বাংলার মধ্যে রয়েছে ঐক্য ও প্রাণের টান। আমাদের সবচেয়ে নিকট-প্রতিবেশী ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ। তাই ভারতের বিশেষ করে এ রাজ্যের নির্বাচন নিয়ে স্বভাবতই এ দেশের জনগণের আগ্রহ ও কৌতূহল ছিল ব্যাপক। তাছাড়া এ রাজ্যের নির্বাচনী ফলাফলের ওপর বাংলাদেশের সঙ্গে অমীমাংসিত ইস্যুগুলোর নিষ্পত্তির বিষয়টিও অনেকাংশে নির্ভরশীল। ইতিপূর্বে ভারত ও বাংলাদেশ সরকার বহু প্রতীক্ষিত তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি স্বাক্ষরের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছলেও মমতা ব্যানার্জির বিরোধিতার কারণে তা সাফল্যের মুখ দেখেনি। অবশ্য পরে ঢাকায় এসে তিস্তার পানি বণ্টন বিষয়ে বাংলাদেশের জনগণকে তার ওপর আস্থা রাখতে বলেছেন তিনি। দেখা যাক, মমতা ব্যানার্জি এখন কী করেন। নিকট-প্রতিবেশী হিসেবে ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্কের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ইতিমধ্যে দুই দেশের মধ্যকার স্থলসীমান্ত ও সমুদ্রসীমা বিরোধের শান্তিপূর্ণ নিষ্পত্তি হয়েছে, যা গোটা বিশ্বের কাছে একটি দৃষ্টান্ত। এর ধারাবাহিকতায় পানিবণ্টন ইস্যুরও দ্রুত নিষ্পত্তি হবে, এটাই কাম্য। এক্ষেত্রে মমতা ব্যানার্জির ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বিধানসভা নির্বাচনে বিজয়ী মমতা ব্যানার্জি এ সুযোগটি কাজে লাগাবেন- এটা আমরা বিশ্বাস করি। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ২৭ মে শুক্রবার দ্বিতীয় মেয়াদে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন মমতা ব্যানার্জি। তাকে অভিনন্দন।
সূত্র : যুগান্তর