Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
11:43 pm
শেখ হাসিনার সাথে খালেদা জিয়ার তুলনা করা মির্জা ফখরুলের দৃষ্টতা – হানিফ
০ দিন পূর্বে
11:40 pm
শোকবার্তা
০ দিন পূর্বে
11:35 pm
উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন সঞ্জয় দত্তের মেয়ে
০ দিন পূর্বে
11:32 pm
মৈত্রী এক্সপ্রেসে বাংলাদেশের নারী যাত্রীর শ্লীলতাহানি, সাসপেন্ড বিএসএফ কনস্টেবল
০ দিন পূর্বে
11:27 pm
আলাদা ব্যবস্থা করা হবে হকারদের জন্য : আইভী
০ দিন পূর্বে
11:22 pm
‘বজরঙ্গি ভাইজান’ মুক্তি পাচ্ছে চীনের ৮ হাজার প্রেক্ষাগৃহে
০ দিন পূর্বে
11:17 pm
দেশের প্রথম নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টে ব্যবহার হবে বসুন্ধরা সিমেন্ট
০ দিন পূর্বে
6:08 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশপত্নীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকার চাঁদা দাবি\ গ্রেফতার-৩
০ দিন পূর্বে
6:04 pm
সিন্ডিকেট মুক্ত ছাত্রলীগ হবে জাতিরজনকের প্রকৃত ছাত্রলীগ
২ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
৩ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
৩ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
৩ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
৩ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
৩ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
৩ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
৩ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
৩ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
৩ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
৩ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
৩ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
৩ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
৩ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
৩ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
৩ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বহাল : হেফাজতের সন্তুষ্টি প্রকাশ

38 দীর্ঘ ২৮ বছর পর রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে সর্বোচ্চ আদালত থেকে চূড়ান্ত রায় (রিট খারিজ) আসায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি নাঈমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রায়ের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরের যুগ্ম সদস্য সচিব ফজরুর রহমান কায়েসী সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, “রায়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। সরকারকে মোবারকবাদ। আদালত স্বাধীনভাবে রায় দিতে পেরেছেন।” এর আগে সোমবার সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের দাবিতে করা রিটের শুনানি না করার জন্য প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহাকে স্মারকলিপি দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক নূর হোসেন কাসেমী স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে বলা হয়, বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ২ (ক) এ উল্লেখ রয়েছে প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, তবে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ অন্যান্য ধর্ম পালনে রাষ্ট্র সমমর্যাদা ও অধিকার নিশ্চিত করিবে। উল্লেখ্য, ১৯৮৮ সালে ৫ জুন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে সংবিধানের অষ্টম সংশোধনীতে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম জাতীয় সংসদে পাশ করা হয়। সংশোধনীতে ২(এ) সংযুক্ত করে বলা হয়- ‘রাষ্ট্রধর্ম হবে ইসলাম, তবে অন্যান্য ধর্মও প্রজাতন্ত্রে শান্তিতে পালন করা যাবে।’ একই বছরের ৯ জুন রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের মধ্য দিয়ে এটা আইনে পরিণত হয়। যা সংবিধানের অষ্টম সংশোধনী নামে পরিচিত। ওই বছরের আগস্টে ‘স্বৈরাচার ও সাম্প্রদায়িকতা প্রতিরোধ কমিটি’র পক্ষে সাবেক প্রধান বিচারপতি কামালউদ্দিন হোসেনসহ (প্রয়াত) দেশের ১৫ জন বিশিষ্ট নাগরিক এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন। দীর্ঘ ২৩ বছর পর ২০১১ সালের ৮ জুন হাইকোর্টে একই বিষয়ে আবারো সম্পুরক আরো একটি আবেদন করে রিটের শুনানির আবেদন করা হয়। পরে ওই আবেদনে শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ রুল জারি করেন।