Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
11:43 pm
শেখ হাসিনার সাথে খালেদা জিয়ার তুলনা করা মির্জা ফখরুলের দৃষ্টতা – হানিফ
০ দিন পূর্বে
11:40 pm
শোকবার্তা
০ দিন পূর্বে
11:35 pm
উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন সঞ্জয় দত্তের মেয়ে
০ দিন পূর্বে
11:32 pm
মৈত্রী এক্সপ্রেসে বাংলাদেশের নারী যাত্রীর শ্লীলতাহানি, সাসপেন্ড বিএসএফ কনস্টেবল
০ দিন পূর্বে
11:27 pm
আলাদা ব্যবস্থা করা হবে হকারদের জন্য : আইভী
০ দিন পূর্বে
11:22 pm
‘বজরঙ্গি ভাইজান’ মুক্তি পাচ্ছে চীনের ৮ হাজার প্রেক্ষাগৃহে
০ দিন পূর্বে
11:17 pm
দেশের প্রথম নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টে ব্যবহার হবে বসুন্ধরা সিমেন্ট
০ দিন পূর্বে
6:08 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশপত্নীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকার চাঁদা দাবি\ গ্রেফতার-৩
০ দিন পূর্বে
6:04 pm
সিন্ডিকেট মুক্ত ছাত্রলীগ হবে জাতিরজনকের প্রকৃত ছাত্রলীগ
২ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
৩ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
৩ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
৩ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
৩ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
৩ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
৩ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
৩ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
৩ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
৩ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
৩ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
৩ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
৩ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
৩ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
৩ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
৩ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
বিশ্বকাপের পজিটিভ বিষয়গুলো কাজে লাগাব

index-12 ভারতে ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট থেকে শেখা ‘পজিটিভ’ বিষয়গুলো সামনের ম্যাচগুলোতে কাজে লাগাবে বাংলাদেশ। আজ রোববার সকালে ভারত থেকে ফিরে সাংবাদিকদের এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাসকিন ও আরাফাত সানির ওপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি দলের অন্য খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে কোনো প্রভাব ফেলেছিল কি না—জানতে চাইলে মাশরাফি বলেন, ‘ওরা দুজনেই তখন ফর্মে ছিল, তাই দলের ওপর একটা চাপ তৈরি হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক।’ টুর্নামেন্টে আরো অনেক বোলারের অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও কেবল বাংলাদেশের দুই বোলারকে কেন নিষিদ্ধ করা হলো—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘পার্টিকুলারলি (বিশেষ করে) যদি বলি সানির বিষয়টা, সানি এবং আমরা সবাই এক্সপেক্ট করেছিলাম। সানিরটা যে লেভেলে ছিল, সানি নিজেও জানে যে ওরটা ঠিক করে আবার আসতে হবে। কিন্তু তাসকিনের বিষয়ে যেটা হয়েছে যে, যেহেতু নরমাল ডেলিভারিতে যখন আসেনি, কিন্তু বাউন্সারে যখন এসেছে, তখন আসলে বিভিন্নভাবে প্রশ্ন এসেছে। তখন আমরা বিসিবিকে জানিয়েছি যে, কোনোভাবে আমরা তাসকিনকে পেতে পারি কি না। ইভেন আমরা এভাবেও চেয়েছি যে, যেহেতু বাউন্সারে প্রবলেম এসেছে তো বাউন্সার ছাড়া আমরা ওকে খেলাইতে পারি কি না।’ এসব ব্যবস্থাপনা করা কঠিন ছিল বলে জানান মাশরাফি। তাসকিনকে হারানোর পরও দলের অন্য খেলোয়াড়রা ভালো খেলতে চেষ্টা করেছেন বলে জানান তিনি। এ বছরের ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টির বাছাইপর্ব পেরিয়ে সুপার টেনে উঠলেও শেষ চারে ওঠার আগেই বিদায় নিয়েছে বাংলাদেশ। জিততে পারেনি সুপার টেনের একটি ম্যাচও। পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, ভারত এবং সর্বশেষ নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে আসর থেকে বিদায় নিয়ে আজ সকালে দেশে ফিরলেন মাশরাফিরা।