Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
11:22 pm
‘বজরঙ্গি ভাইজান’ মুক্তি পাচ্ছে চীনের ৮ হাজার প্রেক্ষাগৃহে
০ দিন পূর্বে
11:17 pm
দেশের প্রথম নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টে ব্যবহার হবে বসুন্ধরা সিমেন্ট
০ দিন পূর্বে
6:08 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশপত্নীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকার চাঁদা দাবি\ গ্রেফতার-৩
০ দিন পূর্বে
6:04 pm
সিন্ডিকেট মুক্ত ছাত্রলীগ হবে জাতিরজনকের প্রকৃত ছাত্রলীগ
২ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
৩ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
৩ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
৩ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
৩ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
৩ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
৩ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
৩ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
৩ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
৩ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
৩ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
৩ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
৩ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
৩ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
৩ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
৩ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
৩ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
৩ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
৩ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
৩ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
৩ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
‘চরমপন্থী, জঙ্গি ও সন্ত্রাসী প্রতিহত করতে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে’

09-8 বিদ্যমান শান্তি ও স্থিতিশীলতা নসাৎ করার অপপ্রয়াসে লিপ্ত চরমপন্থী, জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। হান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন আয়োজিত স্বাধীনতা স্মারক সম্মাননা পদক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এ মন্তব্য করেন। থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম (টিআইসি) মিলনায়তনে শিক্ষায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাযুদ্ধে অবদানের জন্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ডা. মোহাম্মদ ছৈয়দুর রহমান চৌধুরী, গবেষণায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডিন সমাজ-গবেষক প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন, চিকিৎসা ক্ষেত্রে অবদানের জন্য পতেঙ্গার কৃতি সন্তান ডা. মো. আয়ুব আলী (মরণোত্তর), সমাজসেবায় সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মনজুর আলমের বাবা আবদুল হাকিম কন্ট্রাক্টর (মরণোত্তর), সাংবাদিকতায় নাসিরুদ্দিন চৌধুরী এবং ক্রীড়ায় আল্লামা মোহাম্মদ ইকবালকে (মরণোত্তর) এবার পদক দেওয়া হয়। মরহুম ডা. মো. আয়ুব আলীর পক্ষে তার ছেলে আক্তারুজ্জামান খোকন, আল্লামা মোহাম্মদ ইকবালের পক্ষে স্ত্রী হাসিনা আকতার এবং আবদুল হাকিম কন্ট্রাক্টরের পক্ষে নাতি সংসদ সদস্য মোহাম্মদ দিদারুল আলম পদক গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ২৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি নাজমুল হক ডিউক। বিশেষ অতিথি ছিলেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম, সচিব রশিদ আহমদ, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা নাজিয়া শিরিন। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো. মঞ্জুরুল ইসলাম ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম। অনুভূতি জানান সাংসদ মো. দিদারুল আলম, প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ, প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন, ডা. মো. ছৈয়দুর রহমান চৌধুরী, নাসিরুদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মিনহাজ উদ্দিন চৌধুরী রনি, ডা. আয়ুব আলীর ছেলে আক্তারুজ্জামান খোকন এবং আল্লামা মোহাম্মদ ইকবালের ছেলে নাভিদ নেওয়াজ। মেয়র বলেন, গুণীদের মূল্যায়ন এবং মহান স্বাধীনতাযুদ্ধের মর্যাদা সমুন্নত রাখতেই এ পদক প্রদান কর্মসূচি। চট্টগ্রাম স্বাধীনতা সংগ্রামের সূতিকাগার। মহান মুক্তিযুদ্ধ চট্টগ্রাম থেকে শুরু হয় এবং জাতির জনকের পক্ষে চট্টগ্রাম থেকে স্বাধীনতার ঘোষণা করেন জননেতা এমএ হান্নান। চট্টগ্রাম ব্রিটিশ ও পাকিস্তান বিরোধী আন্দোলনের তীর্থস্থান এবং গণতন্ত্র ও অধিকার আদায়ের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি চিহ্নগুলো সংরক্ষণ, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিসৌধ নির্মাণ, জাদুঘর করার পরিকল্পনা নেওয়া হবে। মেয়র বলেন, বাংলাদেশ ধীরে ধীরে উন্নতি ও সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। উন্নয়ন ও অগ্রগতির চাকাকে স্তব্ধ করতে ১৯৭১ সালের পরাজিত অপশক্তি অপতৎপরতায় এবং ষড়যন্তে লিপ্ত। তিনি চট্টগ্রামকে নিরাপদ, স্থিতিশীল, ক্লিন, গ্রিন ও স্মার্ট সিটিতে পরিণত করার কর্মপরিকল্পনায় গুণী ও বিশিষ্ট জনদের সহযোগিতা কামনা করা হয়। পরে রচনা, সাধারণ নৃত্য, দেশের গান, উপস্থিত বক্তৃতা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ৬০ জনের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।