Rz Rasel
১ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
২ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
২ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
২ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
২ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
২ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
২ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
২ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
২ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
২ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
২ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
২ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
২ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
২ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
২ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
২ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
২ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
২ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
২ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
২ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
২ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
২ দিন পূর্বে
4:50 pm
চলন্ত গাড়ির জানালার বাইরে টপলেস নারী! হঠাৎ…
২ দিন পূর্বে
4:46 pm
বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হলো পুতুলের যৌনপল্লী!(ভিডিও)
২ দিন পূর্বে
4:43 pm
এবার সন্তানের জন্ম দেবে সেক্স ডল ‘সামান্তা’
২ দিন পূর্বে
4:34 pm
দুর্বল হৃদয়ের জন্য নয় এই ৫ মিনিটের ভিডিও !
চট্টগ্রাম লালদীঘি ময়দানে বিশ্ব ছুন্নী আন্দোলনের ঈদে আজম মহাসমাবেশ

ঢাকা নিউজ এক্সপ্রেস ডেস্ক :সর্বকল্যাণের উৎস মহান প্রিয়নবীর দুনিয়ায় শুভাগমনের লক্ষ্য- সত্য ও মানবতার প্রতিষ্ঠায় এবং মিথ্যা-অবিচার-বিণাশের গ্রাস থেকে মানব জীবনকে রক্ষায়- ঈমান দ্বীনের প্রকৃত ও পূর্ণাংগধারা ধরে রাখা এবং প্রিয়নবী প্রদত্ত- দুনিয়ার সকল মানুষের সম অধিকার-স্বাধীনতা- নিরাপত্তা ভিত্তিক তথা একক ধর্ম-জাতি-গোত্র-শ্রেণীর একক গোষ্ঠিবাদী অন্যায় স্বৈর আধিপত্যমুক্ত সার্বজনীন মানবতার রাষ্ট্রব্যবস্থা ও মুক্ত বিশ্বব্যবস্থা ব্যতীত বাতেল জালেম অপশক্তির কবলে বিপন্ন দ্বীন-মিল্লাত ও রূদ্ধ মানবতার মুক্তির পথ নেই- ইমাম হায়াত দয়াময় আল্লাহতালার নূর ও রাসুল, মানব জীবনে সত্য ও জ্ঞান এবং জীবনের সকল আলোকমালার উৎস, সকল মিথ্যা-মূর্খতা- আঁধার-অশুভ-অকল্যাণ-অপশক্তির বিণাশ থেকে মুক্তির উৎস মহান প্রিয়নবীর দুনিয়ায় মহাকল্যাণময় শুভাগমন ঈদে আজম উদ্যাপন উপলক্ষ্যে, বিশ্ব ছুন্নী আন্দোলন চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে লালদীঘী ময়দানে এক বিশাল মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আলেমে দ্বীন, ইমামে আহলে ছুন্নাত, মুজাদ্দিদে জামান, ওস্তাজুল ওলামা, শায়খুল হাদিস, মুর্শেদে হাক্কানী, ওলীয়ে রাব্বানী, হাফেজ আল্লামা হজরত ছাইফুর রহমান নিজামী শাহ্। এতে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব ছুন্নী আন্দোলন এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সার্বজনীন ও মানবিক রাষ্ট্র ও বিশ্বব্যবস্থা- বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লব এর আহ্বায়ক ইমাম হায়াত। এতে সভাপতিত্ত্ব করেন আল্লামা শাহ্ আরেফ সারতাজ এবং বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইমামে আহলে ছুন্নাত, মুজাদ্দিদে মিল্লাত, হযরত আজিজুল হক শেরে বাংলা(রহঃ) এর সাহেবজাদা আল্লামা আমিনুল হক আল কাদেরী। শতাধিক সম্মানিত পীর মাশায়েখ ওলামায়ে কেরাম, শিক্ষাবিদবৃন্দ এতে উপস্থিত ছিলেন। মাননীয় প্রধান মেহমান তাঁর বাণীতে মহান প্রিয়নবীকে ঈমানসম্মতভাবে চিনতে পারা দয়াময় আল্লাহতাআলাকে চিনতে পারা ও নিজেকে চিনতে পারার পূর্বশর্ত হিসেবে উল্লেখ করেন। মহান প্রিয়নবী কেন্দ্রিক হয়ে যাওয়াকে মানবজীবনে সত্যভিত্তিক অস্তিত্ত্ব তথা            আল্লাহতাআলার সম্পর্কের একমাত্র মূল বিষয় হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, রেসালাত ভিত্তিক জীবনই তাওহীদ ভিত্তিক জীবন, রেসালাত থেকে বিচ্ছিন্ন জীবন তাওহীদ থেকেই বিচ্ছিন্ন, রেসালাত ব্যতীত তাওহীদের কোন সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, প্রিয়নবীকে ঈমানের মূল ও জীবনের সর্বোচ্চ আপন এবং আল্লাহতাআলার সকল রহমত-নেয়ামত-হিদায়াত-মাগফেরাত-কবুলিয়ত-নাজাতের মূল কেন্দ্র হিসেবে না চিনলে জীবন মিথ্যা-মূর্খতা-আঁধার-বিণাশের ধারায় দোজাহানে দূর্ভাগ্যের মধ্যে নিমজ্জিত হয়ে যাবে। প্রিয়নবীর প্রেমই আল্লাহতাআলার প্রেম স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, যাঁরা প্রিয়নবীর প্রেমে উৎসর্গীকৃত কেবলমাত্র তাঁরাই আল্লাহতাআলার আপন ও মকবুল। তিনি বলেন, প্রিয়নবীর প্রেমই আত্মার আলো ও ঈমানের প্রাণশক্তি যা ব্যতীত আত্মা আঁধার ও মৃত এবং মিথ্যার হাতিয়ার। মাননীয় প্রধান বক্তা ইমাম হায়াত দুনিয়ায় প্রিয়নবীর মহান শুভাগমন ঈদে আজম এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য উপলব্ধিকে অস্তিত্ত্বের প্রাণপ্রবাহ উল্লেখ করে বলেন, জীবন সত্য ও মুক্তির ধারায় থাকবে নাকি মিথ্যা ও বিণাশের ধারায় থাকবে তা কেবল এ উপলব্ধির উপর নির্ভর করে, দুনিয়ায় জীবনের কল্যাণ ও বিকাশের ধারা জ্ঞান-বিবেক-ন্যায়-নিরাপত্তা-অধিকার-স্বাধীনতা-সমৃব্ধির ধারক শুভশক্তি কায়েম থাকবে নাকি এর বিপরীত অন্যায়-অবিচার-বর্বরতা-হিংস্রতা-পাশবতা-পরাধীনতা-স্বৈরতার ধারক অপশক্তি কায়েম থাকবে তা প্রিয়নবীর মহান শুভাগমন ঈদে আজমের লক্ষ্য উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের উপর নির্ভর করে। তিনি বলেন, মহামহিম পবিত্র আহলে বায়েত, মহামান্য খোলাফায়ে রাশেদীন, মকবুল সাহাবায়ে কেরাম, সত্যের সকল ইমামবৃন্দ ও আওলিয়া কেরাম সকল প্রতিকূলতা অতিক্রম করে যুগ থেকে যুগান্তরে আমাদের নিকট মহান প্রিয়নবীর শুভাগমনের দান, লক্ষ্য ও আলোকধারা পৌছিয়ে দিয়েছেন, যাঁদের এহসান ব্যতীত জীবন ও দুনিয়া তা হারিয়ে আঁধার বিণাশে নিমজ্জিত হয়ে যেত, তাঁদের উত্তরাধিকার হিসেবে যা আজ আমাদেরও জারি রাখায় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতে হবে। ইমাম হায়াত বলেন, প্রিয়নবীর শুভাগমনের দান, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তথা ঈমান-দ্বীন-মিল্লাত ও মানবতার বিরূদ্ধে সর্ব বাতেলের সর্বাত্মক যুদ্ধ চলছে। তিনি বলেন, শতাব্দির পর শতাব্দি দুনিয়াব্যাপী মিল্লাত ও মানবতা দিশাহারা ও সঠিক নেতৃত্ত্ববিহীন অবস্থায় অপূর্ণাংগ ধারায় বা ভূল ও বিকৃত পথে চলে এবং একের পর এক আত্মঘাতী সিদ্ধান্তের কূপরিণতিতে আজ চরম বিপন্ন ও অস্তিত্ত্বের সংকটে নিপতিত। ইসলামের নামে আজ ঈমান বিণাশী, দ্বীন বিকৃতিকারী ও সন্ত্রাসী খূনী জংগীবাদ, বস্তুবাদের সর্বগ্রাসী আগ্রাসনে কলেমার চেতনা উৎখাত হয়ে বস্তবাদী অমানুষ ও অমানুষিকতার কাঠামো তৈরি হয়েছে, বিভিন্ন ধর্মের চরম উগ্রবাদী যারা তারা ছাড়া অন্য কোন মানুষের জীবনই স্বীকার করেনা এবং সকল অধিকার উৎখাত করে, তাদের একক ক্ষমতার অন্যায় অবৈধ স্বৈর কাঠামোতে অন্য সবাই মহা বিপদগ্রস্ত ও মহা সংকটে নিপতিত। প্রাণপ্রিয় কেবলাভূমি ঈমান দ্বীনের বিপরীত বস্তুবাদী গোত্রবাদী বাতেল জালেম অপশক্তির জবরদখলে। দেশে দেশে মিল্লাত ও মানবতা খুন-উৎখাত-আগ্রাসন-অন্যায় যুদ্ধ-গণহত্যা-ধ্বংসযজ্ঞের পরিকল্পিত শিকার ধ্বংসস্তুপ হয়ে রক্তের সাগরে ভাসছে। ইতিহাসের সর্ব প্রলয়ংকর ধ্বংস ও বিপর্যয়কর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে যা ক্রমাগত আরও ভয়াবহতার দিকে যাবে, কারণ আমরা ঈদে আজমের লক্ষ্য ও মহান জাতীয় শহীদ দিবসের শিক্ষা ভূলে অপূর্ণাংগ ও ভূল পথে চলে জীবন ও দুনিয়ার নিয়ন্ত্রন অপশক্তির গ্রাসে তুলে দিয়েছি। তবে অপশক্তি অতক্ষণই টিকে থাকবে যতক্ষণ আমরা সত্য ও মানবতার আপনগণ নিজেদের পূর্ণাংগ ও সঠিক পথে ঐক্যবদ্ধ না হবো। মহান ঈদে আজমের লক্ষ্য বাতেল জালেম অপশক্তির কবল থেকে মুক্তি ও তাদের অপকাঠামোর পতন এবং সত্য ও মানবতার পূণঃপ্রতিষ্ঠা ও বিজয় নিশ্চিত, যদি আমরা নিজেদের সঠিক পথে সম্মিলিতভাবে এগি¬¬য়ে যেতে পারি, ইনশাআল্লাহ।