Rz Rasel
০ দিন পূর্বে
6:08 pm
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশপত্নীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকার চাঁদা দাবি\ গ্রেফতার-৩
০ দিন পূর্বে
6:04 pm
সিন্ডিকেট মুক্ত ছাত্রলীগ হবে জাতিরজনকের প্রকৃত ছাত্রলীগ
২ দিন পূর্বে
6:05 pm
রাবিতে স্থগিতকৃত দশম সমাবর্তন মার্চে
৩ দিন পূর্বে
11:56 pm
‘মৃত্তিকা প্রতিবন্ধীবান্ধব সাংবাদিকতা অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন ভৈরবের সুমন মোল্লা
৩ দিন পূর্বে
11:48 pm
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৮-এ অপো এফ ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা
৩ দিন পূর্বে
11:43 pm
মোরেলগঞ্জে,শরণখোলায় কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের তিন দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি
৩ দিন পূর্বে
11:39 pm
শ্রীমঙ্গলে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ
৩ দিন পূর্বে
11:28 pm
তানোরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা
৩ দিন পূর্বে
11:23 pm
তানোরে শিশুদের শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার
৩ দিন পূর্বে
11:16 pm
বৈষম্যহীন শিক্ষা ব্যবস্থা ও অসাম্প্রদায়িক,গণতান্ত্রিক দেশ গড়ার কারিগর ছিলেন শহীদ আসাদ
৩ দিন পূর্বে
10:53 pm
প্রেমিকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ইনস্টাগ্রামে লাইভ, তারপর…
৩ দিন পূর্বে
8:09 pm
এই কলগার্লের জন্যই নাকি পদচ্যুত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী
৩ দিন পূর্বে
8:07 pm
২০ প্রেতাত্মার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক’ এই ব্রিটিশ যুবতীর!
৩ দিন পূর্বে
7:40 pm
অন্তরঙ্গ সময়ে টিভির নেশায় বুঁদ প্রেমিকা, ফলাফল…!
৩ দিন পূর্বে
5:58 pm
মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা!
৩ দিন পূর্বে
5:33 pm
খরচ বাঁচাতে ৮ জোড়া প্যান্ট ও ১০ জামা পরে বিমানবন্দরে যুবক
৩ দিন পূর্বে
5:22 pm
‘বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই’
৩ দিন পূর্বে
5:19 pm
যে ৮টি উপকারে আসতে পারে ফিটকিরি
৩ দিন পূর্বে
5:17 pm
অমিতাভ ও মাধুরীদের সারিতে সানি লিওন
৩ দিন পূর্বে
5:10 pm
ভারত বিরাটের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল : রাবাদা
৩ দিন পূর্বে
5:08 pm
অবশেষে ঢেকে দেওয়া হল দীপিকার উন্মুক্ত পেট (ভিডিও)
৩ দিন পূর্বে
5:05 pm
আসামে ভূমিকম্পের আঘাত
৩ দিন পূর্বে
5:00 pm
রেডিওতে বাংরেজি বন্ধের নির্দেশ দিলেন তারানা
৩ দিন পূর্বে
4:50 pm
চলন্ত গাড়ির জানালার বাইরে টপলেস নারী! হঠাৎ…
৩ দিন পূর্বে
4:46 pm
বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হলো পুতুলের যৌনপল্লী!(ভিডিও)
বঙ্গবন্ধুর শাসন বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, মনে পরছে ভীষণ

ঢাকানিউজএক্সপ্রেসডকটম :আজ পয়লা সেপ্টেম্বর। একে একে শেষ করেছি আমাদের কান্নার মাস, শোকের মাস, পিতা হারানোর মাস আগস্টকে। যখনযুদ্ধ বিদ্ধস্ত বাঙালী জাতি বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে একটু মাথা উচু করে দাড়াচ্ছিল। ঠিক তখনি ঘাতকরা জাতির পিতা কে আর বাচঁতে দিলোনা।তারা ভুজতে পেরেছিলো যদি বঙ্গবন্ধুকে বাঁচিয়ে রাখা হয় তাহলে এই জাতি সহজে উন্নতির শিখরে আরোহন করবে।তাই তারা এই জাতিকে নেতিৃত্বশুন্য করে, তারা ন্যাক্কর জনকভাবে জাতির পিতাকে হত্যা করে। তারা শুধু জাতির পিতাকে হত্যাকরে ক্ষান্ত হয়নি। তারা তার পরিবার পরিজন সকলকে হত্যা করেছে। সেই সাতবছরের শিশুটিকেও তারা বাচঁতে দেইনি। তারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে ঠিকই। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে তারা হত্যা করতে পারিনি, মানুষের মন থেকে তাকে উঠাতে পারেনি। আজ প্রতিটি বাঙালীরমনে গেথেঁ আছেন তিনি। আমরা দেখেছি বাংলার মানুষ কিভাবে এই মাস টিকে পালন করেছে। যে যেভাবে পেরেছে সে সেই ভাবেই চেষ্টা করেছে, জাতির পিতার সম্মানে কিছু করার জন্য। কেউবা দোয়া করে ,কেউবা মানুষকে খাইয়ে, কেউবা আলোচনাসভা, র‌্যালীর মাধ্যমে। মানুষ যে কতটা তার শুন্যতায় ভুগতেছে তাএসব দেখলে, ভুজার বাকি থাকার কথা নয়। কিন্তু অতি দুঃখের বিষয় হলেও সত্য, যে দল বঙ্গবন্ধু তার রক্ত, মাংস দিয়ে তিলেতিলে গড়ে তুলেছেন। যে দলের অবদান মুক্তিযুদ্ধের সময়,বলে শেষ করার মতো নয়। সে আওয়ামিলীগ কে আজকারা নেতিৃত্ব দিচ্ছে ? যেদিন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে কোথায় ছিলো ওরা। কই সেদিন তাদের কাউকে তো দেখা যায় নি। বঙ্গবন্ধুকে দাপন করার মতো সেদিন নাকি লোক ছিলোনা। তাহলে কোথায় ছিলো এসব প্রবীণ রাজনীতিবিদরা ? হ্যাঁ তবে খুশির সংবাদ এটা যে এখন কিছু নেতা বানিয়ে কথা বলছেন। জানিনা এ কথা বলা বলি কোথায় গিয়ে শেষ হবে। এইতো সেই দিন আওয়ামিলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুলকরিম সেলিম এক অনুষ্ঠানে কে এমশফিউল্লাহ কে বলেন,আপনি তখন সেনা প্রধান ছিলেন কিন্ত আপনি কেন নিরব ছিলেন। আমরা জানি একজন সেনা প্রধানের ক্ষমতা কতটুকু। কিন্তু তিনি তার উত্তর দিলেন তার কথা নাকি সেদিন সেনাবাহীনি শুনেনি। অথচ সেদিন কর্নেল সাফায়াত, জামিল ছুটেএসেছিলো বঙ্গবন্ধুকে বাচাঁনোর জন্য। কিন্তু তারা পারেননি উল্টো তারাও মৃত্যুর পদযাত্রি হলেন বঙ্গবন্ধুর সাথে। একটা প্রশ্নতো তখন থেকে যায় কে এম শফিউল্লাহ তখনকি আঙ্গুল চুষছিলেন ? যখন অন্য সেনারা বঙ্গবন্ধুকে বাচাঁনোর জন্য আসলেন। বঙ্গবন্ধুর প্রতিতার এতো ভালবাসা , তাহলে কেন তিনি ছুটে আসলেন না তাকে বাচাঁনোর জন্য। তেমনি তথ্য মন্ত্রী হাসানুলহক ইনুসহ আরো কয়েক জনের বিরুদ্ধে এই জাতিয় কথা ইদানিং পত্রিকার পাতায় আসছে। আমরা জানিনা এর সত্ত্বতা কতটুকু। তবে আমরা এতটুকু বলবো, এই বংলার জমিনে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের থাকার কোন অধীকার নেই । অতি দ্রুত প্রকৃত খুনিদের বিচার করা হোক। সেদিনই বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তিপাবে।বাংলার মানুষ অভিশাপ থেকে মুক্ত হবে।  

লেখক মো: মাহবুব আলম জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয় প্রতিনিধি ঢাকানিউজএক্সপ্রেসডকটম